চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উন্নয়নের আকাশে শঙ্কার মেঘ

৭ বছরে তরুণদের বেকারত্ব দিগুণ

তিন দিন আগে প্রকাশিত আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৭ বছরে বাংলাদেশের তরুণ বেকারদের সংখ্যা এখন দিগুণ। মূলত ওই প্রতিবেদনে এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের ২৮টি দেশের বেকারত্ব, কর্মসংস্থান ও কর্মসন্তুষ্টির মতো বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে। 

‘এশিয়া-প্যাসিফিক এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড সোশ্যাল আউটলুক-২০১৮’ শীর্ষক এই প্রতিবেদনটি গত শুক্রবার প্রকাশ করা হয়। সেখানে বাংলাদেশে তরুণদের বেকারত্ব ২০১০ সালের তুলনায় দ্বিগুণ হয়ে ২০১৭ সালে দাঁড়ায় ১২ দশমিক ৮ শতাংশ।

তরুণদের বেকারত্বের বিষয়টি ছাড়াও প্রতিবেদনে বাংলাদেশের কর্মক্ষম তরুণদের নিষ্ক্রিয়তা, কোনো রকম প্রশিক্ষণ বা শিক্ষা না নেওয়া ইত্যাদির মতো বিষয়গুলোও তুলে আনা হয়েছে। আর এসব কারণেই বেকারত্বের সংখ্যা বছরের পর বছর বাড়ছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ প্রতিবেদন নিয়ে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো মন্তব্য করেনি। তবে চলতি বছরের এপ্রিলে দেশের বেকারদের সংখ্যা জানিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল বিবিএস। সেখানে তারা গত অর্থবছরে বেকারদের সংখ্যা ২৬ লাখ ৭৭ হাজার বলে উল্লেখ করে। এই ছিল আগের বছরের চেয়েও প্রায় ৮৭ হাজার বেশি।

আইএলওর ওই প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, ওই ৭ বছরের প্রায় প্রতি বছরই বাংলাদেশে তরুণ বেকারদের হার বেড়েছে। বাড়তে বাড়তে শেষ পর্যন্ত তা দ্বিগুণ হয়েছে। শুধু তাই নয়, এই বেকারত্বের সংখ্যা আবার পুরুষের চেয়ে নারীদের ক্ষেত্রে অনেক বেশি, প্রায় চারগুণ। প্রতিবেদনে পুরুষদের বেকারত্বের হার ৩ দশমিক ৩ শতাংশ আর নারীর ১২ দশমিক ৮ শতাংশ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আমরা জানি, বাংলাদেশ গত কয়েক বছরে আর্থ-সামাজিক দিক থেকে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটেছে। নিজেদের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু-১ এ উৎক্ষেপণের মাধ্যমে মহাকাশে যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশের নাম। শুধু তাই নয়; স্বল্পোন্নত (এলডিসি) দেশের তালিকা থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে যাওয়ার যোগ্যতা অর্জন, যা বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং সামাজিক অবস্থানকে বিশ্ব দরবারে মাথা উচু করে দাঁড় করিয়েছে।

এর বাইরেও অনেক অর্জনে এগিয়েছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে দারিদ্র্য বিমোচন, খাদ্য নিরাপত্তা, নারী শিক্ষা ও নারীর ক্ষমতায়ণে অগ্রগতি প্রত্যাশার চাইতেও বেশি।

কিন্তু এসব অর্জনও অনেক সময় বেকারত্বের কাছে মলিন হয়ে যায়। বিশেষ করে তরুণ বেকারত্ব আমাদের ভাবিয়ে তোলে। সাধারণত, আইএলও বহু তথ্য-উপাত্ত বিচার-বিশ্লেষণ করে তাদের প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে। সেই হিসেবে তরুণ বেকারদের এই পরিসংখ্যান আমাদের ভাবিয়ে তোলে। বিশেষ করে আমাদের সামনে যখন কোটা সংস্কার আন্দোলনের মতো বিষয় থাকে।

এমন অবস্থায় আমরা মনে করি, দেশের সার্বিক উন্নয়নই প্রকৃত উন্নয়ন। অর্থনীতির মাপকাঠিতে কিছু কিছু সূচকে উন্নয়ন হলেও বাড়তে থাকা তরুণদের বেকারত্ব সেই উন্নয়ন নিয়ে আমাদের মধ্যে এক রকম শঙ্কা তৈরি করে। তাই এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ প্রয়োজন।