চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

উদ্বোধনী দিনে জিতল অস্ট্রেলিয়া

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ

Nagod
Bkash July

স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারিয়ে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ আসর শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া।

শুক্রবার সেন্ট প্রভিন্সে ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ক্যারিবীয়রা মোটেও সুবিধা করতে পারেনি। ৪০.১ ওভারে তারা ১৬৯ রানেই গুটিয়ে যায়। জবাবে অস্ট্রেলিয়া ৩১ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায়।

Sarkas

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৬৯ (৪০.১ ওভার), অস্ট্রেলিয়া ১৭০ (৪৪.৫ ওভার)

ইনিংসের শুরুতে মাত্র ১২ রানের ভেতর তিন ব্যাটারকে হারিয়ে চাপে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উইকেটরক্ষক ব্যাটার রিভাল্ডো ক্লার্ক ও অধিনায়ক অ্যাকেম অগাস্টে চতুর্থ উইকেটে ৯৫ রান যোগ করে সেই চাপ ভালোই সামাল দিয়েছিলেন।

দলীয় ১০৭ রানের মাথায় ক্লার্কের উইকেট পতনের পর থেকে স্বাগতিকদের ব্যাটিং অর্ডারে ধস নামে। ৬২ রান যোগ করতেই তারা শেষ ৬ উইকেট হারিয়ে বসে।

অধিনায়ক অগাস্টে ৬৭ বলে ৮ চারের মারে সর্বাধিক ৫৭ এবং ক্লার্ক করেন ৩৭ রান। শেষদিকে ম্যাককেনি ক্লার্ক ৩৫ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কার মারে ২৯ রানের ইনিংস খেলায় দলীয় স্কোর দেড়শ পেরিয়েছিল।

ক্যাঙ্গারুদের অধিনায়ক কুপার কনোলি ৭ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে পান ৩ উইকেট। টম উইটনিও ৩ উইকেট তুলে নেন ৮.১ ওভারে মাত্র ২০ রান খরচ করে। বিস্ময়করভাবে এই ম্যাচে ডান হাতে অফ ব্রেক এবং বাঁ হাতে অর্থোডক্স বোলিং করা নিভেথান রাধাকৃষ্ণ পকেটে পুরে নেন ৩ উইকেট।

সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অজিরা ২১ রানের ভেতর দুই উইকেট হারালেও সেই শুরুর ধাক্কা থেকে তাদের বের হতে সময় লাগেনি। ওপেনার টেগুয়ে উইলি এবং কুপার কনোলি তৃতীয় উইকেটে ৫৩ রানের জুটি গড়ে চাপ সামাল দেন।

২৩ রান করে কনোলি বোল্ড হওয়ার পর রাধাকৃষ্ণকে নিয়ে চতুর্থ উইকেটে ৭৫ রান যোগ করে ম্যাচ সেরা উইলি জয়ের রাস্তা মসৃণ করেন। ৩১ বলে ২ চারের মারে রাধাকৃষ্ণ আউট হলে ক্যাম্পবেল কেলাওয়েকে নিয়ে জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন ১২৯ বলে ৮ চারের মারে ৮১ রান করা উইলি।

‘ডি’ গ্রুপের আরেক ম্যাচে বোলারদের কল্যাণে স্কটল্যান্ডকে ৪০ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

টসে জিতে লঙ্কানরা আগে ব্যাট করে স্কটিশ বোলারদের বিপক্ষে তেমন সুবিধা করতে পারেনি, ৪৫.২ ওভারে ২১৬ রানে তারা অলআউট হয়।

শ্রীলঙ্কা ২১৬ (৪৫.২), স্কটল্যান্ড ১৭৮ (৪৮.৪)

উইকেটরক্ষক ব্যাটার সাকুনা নিদারশানা লিয়ানাগে ৮৫ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কার মারে সর্বাধিক ৮৫ রানের অতি কার্যকরী ইনিংস খেলেন। এছাড়া রাভিন ডি সিলভা ৩০, চামিন্দু বিক্রমাসিংহে ২৮ ও সাদিশা রাজাপাকশে করেন ২৪ রান।

স্কটল্যান্ডের হয়ে সিন ফিসচের-কেয়গ নেন ৩ উইকেট। দুটি করে উইকেট পান জ্যাক জারভিস ও অলিভার ডেভিডসন।

বল হাতে নৈপুণ্য দেখালেও ব্যাট হাতে রানের গতি ধরে রাখতে পারেনি স্কটল্যান্ড। সাত ব্যাটার দুই অংকের ঘরে রান করলেও ৬১ বলে ৩ চার ও ৩ ছক্কা মারা জারভিসের ৫৫ রানের ইনিংস ছাড়া বাকিগুলো বড় হতে পারেনি। অলআউট হওয়ার আগে ৪৮.৪ ওভারে তারা ১৭৮ রানে থামে।

লঙ্কানদের হয়ে দুনিথ ওয়েলালাগে ৯ ওভারে ২৭ রান দিয়ে একাই পাঁচ উইকেট শিকার করে হন ম্যাচ সেরা।

BSH
Bellow Post-Green View