চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উইন্ডিজকে হারাতে আত্মবিশ্বাসী মিরাজ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অতীতের পারফরম্যান্স আত্মবিশ্বাস দিচ্ছে মেহেদী হাসান মিরাজকে। ঘরের মাঠে খেলা হওয়ায় টাইগার অফস্পিনার পাচ্ছেন বাড়তি সাহস। নিজেকে আগের জায়গায় ফিরিয়ে আনার দারুণ সুযোগও তার সামনে।

‘শেষ তিন-চারটা আন্তর্জাতিক ম্যাচ কিন্তু অতটা ভালো করতে পারিনি, দেশের মাটিতে বা দেশের বাইরে। তবে যেকটা ম্যাচ খেলেছি, আমার জন্য একটা আলাদা অ্যাডভান্টেজ থাকবে, যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আমি তাদের সাথে ভালো করেছি, আর দেশের মাটিতে খেলা টেস্ট-ওয়ানডে দুটোই।’

বিজ্ঞাপন

‘আমার অবশ্যই ভালো অনুভূতি থাকবে যে এখানে যদি ভালো করতে পারি, নিজেকে ফেরানোর ভালো একটা সুযোগ পাবো। এটাই চেষ্টা করব, নিজের পারফরম্যান্সটা ভালো করার জন্য এবং দিনশেষে দল যেন ভালো ফলাফল করে।’

করোনা-ভীতি কাটিয়ে আগামী সপ্তাহে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে বাংলাদেশ। ২০ জানুয়ারি মিরপুরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টাইগারদের প্রথম ওয়ানডে। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন ওয়ানডের পর দুটি টেস্ট খেলবে স্বাগতিক দেশ।

বাংলাদেশ সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে গত বছরে মার্চে। ১০ মাসের করোনা বিরতি কাটিয়ে ফের ফিরছে চেনা আবহে। মিরপুরে চলছে টাইগারদের পুরোদমে উইন্ডিজ-বধের প্রস্তুতি ও পরিকল্পনা। কঠিন সময় পেরিয়ে সামনে তাকানোর সুযোগে উৎফুল্ল মিরাজ ও গোটা দল।

‘আমার কাছে খুব ভালো লাগছে, অনেকদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে। সবচেয়ে বড় কথা, আমরা একটা পরিস্থিতি পার করেছি শেষে একবছর। আমরা হতাশ ছিলাম, কীভাবে কী করব না করব। অনুশীলন ঐভাবে করতে পারছিলাম না। তারপরও আমরা চেষ্টা করছিলাম।’

‘একবছর পর খেলা শুরু হচ্ছে, প্রত্যেকেই খুশি এবং আমিও ব্যক্তিগতভাবে খুশি। সব থেকে ভালো কথা, আমরা জাতীয় দলের সাথে জয়েন করেছি এবং খুব ভালো একটা অনুশীলন সেশন চলছে। শেষ চারদিন আমরা খুব ভালো সময় পার করেছি অনুশীলন সেশনে।’

‘অনেকদিন পর একসাথে হয়েছি এবং সবাই অনেক উৎফুল্ল খেলার জন্য। বিশেষ করে সাকিব ভাই টিমে ফিরেছেন। একবছর টিমের বাইরে ছিলেন। আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট যে, করোনার জন্য দীর্ঘদিন খেলা হয়নি। এটা আমাদের বাংলাদেশের জন্য প্লাস পয়েন্ট। মনে করি, আমাদের টিম খুব ভালো একটা পজিশনে আছে। সিরিজে আশা করি আমরা ভালো কিছু করতে পারবো।’

বিজ্ঞাপন