চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উইজডেনে কোহলির বর্ষসেরার রাজ্যে স্টোকসের হানা

আগের তিন বছর একাই রাজত্ব করেছেন বিরাট কোহলি। টানা তিনবার হয়েছেন উইজডেন ক্রিকেট অ্যালমান্যাকের লিডিং ক্রিকেটার। এবার তাতে ছেদ পড়ল। ক্রিকেটের বাইবেল খ্যাত উইজডেনের ‘লিডিং ক্রিকেটার’ হলেন ইংল্যান্ড অলরাউন্ডার বেন স্টোকস।

উইজডেন ক্রিকেট অ্যালমান্যাকের ২০২০ সংস্করণ বের হয়েছে বুধবার। তাতে ২০০৫ সালের পর প্রথম কোনো ইংলিশ ক্রিকেটার হিসেবে লিডিং স্থানটা পেলেন স্টোকস। ১৫ বছর আগেও লিডিং ক্রিকেটার হয়েছিলেন একজন অলরাউন্ডার, ইংল্যান্ডকে অ্যাশেজ জেতানো অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ।

বিজ্ঞাপন

ব্যাটে-বলে ২০১৯ সালটা দুর্দান্ত কেটেছে স্টোকসের। লর্ডসের ফাইনালে দলকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন, হয়েছেন ম্যান অব দ্য ফাইনাল। অ্যাশেজে তৃতীয় ম্যাচে লিখেছেন মহাকাব্য, হেডিংলিতে ১৩৫ রানের ঐতিহাসিক এক ইনিংস খেলে একাই হারিয়েছেন অস্ট্রেলিয়াকে। গত জানুয়ারিতে হয়েছেন আইসিসি বর্ষসেরা ক্রিকেটার।

বিজ্ঞাপন

কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে অনিন্দ্য সুন্দর ইনিংস খেলার স্বীকৃতিই পেয়েছেন স্টোকস, এমন বলেছেন উইজডেনের সম্পাদক লরেন্স বুথ।

‘বেন স্টোকস তার সারা জীবনের সেরা পারফরম্যান্স দেখিয়েছে কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে দুইবার। প্রথমটি প্রতিভা আর ভাগ্যের মিশ্রণে স্টোকস ইংল্যান্ডকে রান তাড়ায় বাঁচিয়েছে। এরপর সুপার ওভারেও ১৫ রান তুলতে সাহায্য করেছে।’

‘দ্বিতীয়টি হেডিংলিতে। সে অসাধারণ এক ইনিংস খেলেছে। তার ১৩৫ রানের ইনিংসে এক উইকেটে জয় পায় ইংল্যান্ড। কি লাল বল কিংবা সাদা, সে যেন এক প্রাকৃতিক শক্তি।’

মেয়েদের ক্রিকেটে ‘লিডিং ক্রিকেটার’ হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যালিসা পেরি। বিশ্বকাপের ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সুপার ওভার করা পেসার জফরা আর্চার আছেন উইজডেনের সেরা ক্রিকেটারের তালিকায়। অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স ও মার্নাস লাবুশেনও আছেন সেরা পাঁচে। সাউথ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত এসেক্স অফস্পিনার সাইমন হার্মার আছেন ছোট্ট সেই তালিকায়।