চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঈদযাত্রায় ভোগান্তি কমাতে এখনই পদক্ষেপ জরুরি

ঈদযাত্রা সবসময় আনন্দের হলেও প্রতিবছর স্বজনদের সঙ্গে ঈদ করতে যাওয়া মানুষদের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। নাড়ির টানে বাড়িতে ঈদ করতে যাওয়া জনগণকে পদে পদে ভোগান্তির শিকার হতে হয়। আর এবার রমজান শুরু হতে না হতেই ইতোমধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে টানা তিন দিন তীব্র যানজটের খবর পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়: টানা তৃতীয় দিনের মতো ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে তীব্র যানজট অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার এ যানজটে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন মুন্সিগঞ্জের মেঘনা সেতু থেকে কুমিল্লার দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ পর্যন্ত ছাড়িয়ে গেছে।

ঢাকা থেকে কুমিল্লা যেতে যেখানে ২ ঘণ্টা লাগতো এখন সেখানে সময় লাগছে ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা। তীব্র এ যানজটে চরম দুর্ভোগে আছেন যাত্রীরা। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের কষ্ট সীমাহীন।

রমজানের শুরুতে তীব্র এ যানজট শুরু হয় মঙ্গলবার থেকে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন রোজাদাররা। তীব্র গরমে নাকাল যাত্রীদের বসে থাকতে হচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

এছাড়াও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কসহ অন্যান্য সড়ক মহাসড়কে তীব্র যানজটের খবর পাওয়া যাচ্ছে। যানজটের কারণ হিসেবে প্রাথমিকভাবে মহাসড়ক পুলিশ বলছে, মাত্রাতিরিক্ত যানবাহনের চাপের কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া সাধারণ যাত্রীরা দায়ী করছেন টোল প্লাজায় টোল আদায়ে ধীর গতি এবং টোল দেয়ার পর একমুখি সড়কে অনিয়ন্ত্রিত যান চলাচলকে। এসব বিষয়গুলোকে সংশ্লিষ্টদের গুরুত্বের সঙ্গে নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

আমরা জানি, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে আছেন। তবে তার অবর্তমানেও সাধারণ মানুষের ভোগান্তি কমাতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

ঈদের আগে সড়কে যেন কোনোরকম হাট-বাজার বসতে না পারে সেজন্য মাঠ পর্যায়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। এছাড়াও টিকিট বিক্রির পর থেকেই বাস টার্মিনালগুলোতে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে ভিজিলেন্স টিম থাকবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের বৈঠক শেষে এমনটাই জানানো হয়েছে।

আমরা মনে করি, এসব সিদ্ধান্ত অবশ্যই প্রশংসনীয়। তবে সংশ্লিষ্টদের দক্ষতার সাথে এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে হবে। বিশেষ করে পথে যেন যানজট সৃষ্টি না হয় এজন্য ট্রাফিক পুলিশসহ সংশ্লিষ্টদের যথাযথ ভূমিকা পালন করতে হবে। এছাড়া বাস-ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় রোধ করে যাত্রীসেবা নিশ্চিতে এখন থেকেই ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে উদ্যোগী হতে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি।

Bellow Post-Green View