চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইমপ্রেস প্রযোজিত মুক্তিযুদ্ধের আলোচিত ৫ ছবি

নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পৌঁছে দিতে ইমপ্রেস ইতিমধ্যে নির্মাণ করেছে মুক্তিযুদ্ধের বেশকিছু প্রশংসিত ছবি

বিকল্প ধারার চলচ্চিত্র নির্মাণে এক অনন্য প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। যে প্রতিষ্ঠানটি এককভাবে চলচ্চিত্র প্রযোজনায় এসেছিল ২০০৩ সালে। এরপর ইমপ্রেসের প্রযোজনায় তৈরি হয়েছে একের পর এক আলোচিত এবং প্রশংসিত ছবি। বিশেষ করে নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ইমপ্রেস বেশকিছু মুক্তিযুদ্ধের ছবি নির্মাণ করেছে। এর মধ্যে বেশ কিছু ছবি দেশ-বিদেশে সম্মানিত হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে তৈরি তেমনই আলোচিত পাঁচ ছবি সম্পর্কে জেনে নিন এখানে:

জয়যাত্রা: ২০০৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত জয়যাত্রা ছবিটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধকালীন একদল মানুষের হাসি-কান্না, সুখ-দুঃখ, মৃত্যু ও বেঁচে থাকার সংগ্রামের গল্প নিয়ে তৈরি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন তৌকির আহমেদ। আমজাদ হোসেন এর কাহিনী নিয়ে নির্মিত এই ছবিতে অভিনয় করেছে মাহফুজ আহমেদ, বিপাশা হায়াত, রোমানা, তারিক আনাম খান,আজিজুল হাকিম, চাঁদনী, শাহেদ সহ আরও অনেকে। ছবিটি ২৯তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ পরিচালক, শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার, শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার, শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেত্রী ও শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক বিভাগে পুরস্কার লাভ করে।

শ্যামল ছায়া: ২০০৪ সালে মুক্তি প্রাপ্ত ‘শ্যামল ছায়া’ ছবিটি পরিচালনা করেছিলেন হুমায়ূন আহমেদ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ নিয়ে তৈরি এই ছবিতে সরাসরি যুদ্ধের দৃশ্য না দেখিয়েও যুদ্ধের আবহ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে সুনিপুণ ভাবে। ছবিটি ২০০৬ সালে ‘সেরা বিদেশী ভাষার চলচ্চিত্র’ বিভাগে একাডেমি পুরস্কার এর জন্য বাংলাদেশ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল। ছবিতে অভিনয় করেছেন হুমায়ুন ফরীদি, শাওন, শিমুল, রিয়াজ, স্বাধীন খসরু, সৈয়দ আখতার আলী, তানিয়া আহমেদ, রাত্রি, আহমেদ রুবেল, এজাজুল ইসলাম, ফারুক আহমেদ, শামীমা নাজনীন, জেসমিন পারভেজসহ আরও অনেকে।

Advertisement

মেঘের পরে মেঘ: জনপ্রিয় কথা শিল্পী রাবেয়া খাতুন এর উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ‘মেঘের পরে মেঘ’ ছবিটি মুক্তি পায় ২০০৪ সালে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন চাষী নজরুল ইসলাম। ১৯৭১ এ মুক্তিযুদ্ধ এবং যুদ্ধোত্তর সময় কালের পটভূমিকায় দেশপ্রেম, ভালোবাসা এবং ত্যাগের বীরত্ব বিস্তৃত হয়েছে ছবিটিতে। ছবিতে অভিনয় করেছেন রিয়াজ, পূর্ণিমা, মাহফুজ আহমেদ, শহিদুল আলম সাচ্চুসহ আরও অনেকে।

গেরিলা: গেরিলা চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়েছে লেখক সৈয়দ শামসুল হকের উপন্যাস ‘নিষিদ্ধ লোবান’ অবলম্বনে। ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত এই সিনেমা পরিচালনা করেছেন নাসির উদ্দীন ইউসুফ। ছবিতে অভিনয় করেছে এটিএম শামসুজ্জামান, জয়া আহসান, ফেরদৌস, শতাব্দী ওয়াদুদ, শম্পা রেজা সহ আরও অনেকে। ২০১১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত গেরিলা ছবিটি বাণিজ্যিক ভাবেও দারুণ সফল হয়েছিল। ছবিটি ২০১১ সালে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব অংশগ্রহণ করে এবং ১৭তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০১১-এ নেটপ্যাক পুরস্কার জিতে নেয়।

আমার বন্ধু রাশেদ: ২০১১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘আমার বন্ধু রাশেদ’ ছবিটি মুহম্মদ জাফর ইকবাল রচিত শিশুতোষ উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি করা হয়েছে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন মোরশেদুল ইসলাম। ১৯৭১ সালে মফস্বল শহরের কয়েকজন কিশোর কীভাবে মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে, তারই কিছু চিত্র ফুটে উঠেছে গল্পে। ছবিতে অভিনয় করেছে চৌধুরী জাওয়াতা আফনান। অন্যান্য চরিত্রে ছিলেন রাইসুল ইসলাম আসাদ, পীযুষ বন্দ্যোপাধ্যায়, ইনামুল হক, হুমায়রা হিমু, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, আরমান পারভেজ মুরাদ। এছাড়াও শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছে রায়ান ইবতেশাম চৌধুরী, কাজী রায়হান রাব্বি, লিখন রাহি, ফাইয়াজ বিন জিয়া, রাফায়েত জিন্নাত কাওসার আবেদীন।