চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইতালির চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশি প্রামাণ্যচিত্র

ইতালির রিলিজিয়ন টুডে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে মনোনীত হয়েছে বাংলাদেশি প্রামাণ্যচিত্র ‘আর্মেনিয়ান চার্চে একদিন’

ইতালির রিলিজিয়ন টুডে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘স্পেশাল জুরি ডায়োসেসান মিশনারী সেন্টার এন্ড মাইগ্রেশন প্যাস্টোরাল, মাইগ্রেশন এন্ড কোএক্সসিসটেন্স’ অ্যাওয়ার্ড বিভাগে মনোনীত হয়েছে বাংলাদেশি প্রামাণ্যচিত্র ‘আর্মেনিয়ান চার্চে একদিন’। খবরটি নিশ্চিত করেছেন এই প্রামাণ্যচিত্রের নির্মাতা মেহজাদ গালিব।

প্রতিবছর ইতালির ট্রেন্টো শহরে এই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবটি অনুষ্ঠিত হয়। এরআগে ২১তম রিলিজিয়ন টুডে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতা বিভাগে ‘গ্র্যান্ড পিক্স’ জিতে নিয়েছিলো তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘হালদা’।

বিজ্ঞাপন

রিলিজিয়ন টুডে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবটির মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মানুষের কৃষ্টি এবং জীবনযাত্রার সাথে সংহতি প্রকাশ।

বিজ্ঞাপন

প্রামান্যচিত্রটিকে ব্যক্তিগত জার্নি বা ডায়েরি বলে মনে করেন মেহজাদ গালিব। কৌতুহলবশত একদিন চার্চটি দেখতে গিয়েই মূলত ঢাকায় বসবাসরত আর্মেনিয়ানদের সম্পর্কে আগ্রহী হন নির্মাতা। রির্সাচ করতে গিয়ে জানতে পারেন ঢাকা শহর তৈরী হবার পেছনে আর্মেনিয়ানদের বিশাল অবদানের কথা। আর এই পুরো গল্পটাই তিনি তার চলচ্চিত্রে তুলে ধরেন।

ছবিটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে এই ছবিটিতে রয়েছে বাংলাদেশে বসবাসরত আর্মেনিয়ান কমিউনিটির সর্বশেষ বাসিন্দা আর্মেনিয়ান চার্চটির ওয়ার্ডেন মাইকেল জোসেফ মার্টিনের একটি ইন্টারভিউ। যতদূর জানা যায় বাংলাদেশে এটাই তার একমাত্র ভিডিও ডকুমেনটেশন।

মেহজাদ গালিব মনে করেন, ৪০০ বছরের পুরনো এই শহরে এরকম অসংখ্য গল্প ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। যে গল্পগুলো সবার কাছে তুলে ধরাটা খুবই জরুরী। তিনি এটাও মনে করেন যে ইচ্ছা থাকলে স্বল্প বাজেটেই একটি ভাল ছবি নির্মাণ সম্ভব।

ইতালির এই চলচ্চিত্র উৎসবে নির্বাচিত হওয়ার আগে ‘আরমেনিয়ান চার্চে একদিন’ প্রামাণ্যচিত্রটি গেল জানুয়ারিতে ‘ঢাকা আর্ন্তজাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০২০’ এ প্রথম প্রদর্শিত হয়।

মেহজাদ বিশ বছর ধরে চলচ্চিত্র সংসদের কাজের সাথে নিজেকে প্রত্যক্ষ ভাবে সম্পৃক্ত রেখেছেন মেহজাদ গালিব। সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন দেশের বহু পুরানো একটি চলচ্চিত্র সংসদ চলচ্চিত্রম ফিল্ম সোসাইটির। বাংলাদেশ শর্টফিল্ম ফোরামের কার্যনিবাহী পদে থাকা ছাড়াও তিনি শর্টফিল্ম ফোরামের আয়োজনে দ্বিবার্ষিক আন্তজাতিক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবে ফরেন ডেলিগেট কো-অর্ডিনেটর হিসেবে কাজ করেন। এছাড়াও তিনি দুটি প্রাইভেট টেলিভিশন চ্যানেলে উপস্থাপনা করতেন। বর্তমানে তিনি সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত একটি স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্রের সম্পাদনা শেষ করেছেন।