চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইংল্যান্ডের ‘দ্বিতীয় দলের’ কাছেও হোয়াইটওয়াশ পাকিস্তান

মূল স্কোয়াডে করোনার হানায় ‘দ্বিতীয় দল’ সাজিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে নেমেছে ইংল্যান্ড। স্বাগতিকদের সেই দলের কাছেও হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারল না সফরকারীরা। তিন ওয়ানডের সিরিজে শেষটিতে বেন স্টোকসদের বিপক্ষে ৩ উইকেটে হেরেছে বাবর আজমের দল।

বার্মিংহামের এজবাস্টনে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে ৩৩১ রানের বিশাল সংগ্রহই জমিয়েছিল পাকিস্তান। জবাব দিতে নেমে ৩ উইকেট আর ১২ বল অক্ষত রেখে জয়ে নোঙর ফেলে ইংল্যান্ড। সঙ্গে বিশ্বকাপের সুপার লিগ টেবিলে ৩০ পয়েন্ট যোগ করেছে ইংলিশরা।

ইমাম-উল-হকের ৭৩ বলে ৫৬, মোহাম্মদ রিজওয়ানের ৫৮ বলে ৭৪, এবং বাবর আজমের ক্যারিয়ারসেরা ১৫৮ রানে বড় সংগ্রহ পায় পাকিস্তান। অধিনায়ক বাবর ১৪ চার ও ৪ ছক্কায় ১৩৯ বলে খেলেন ইনিংসটি। তার ১৪তম শতক। রিজওয়ানকে নিয়ে ১৭৯ রানের জুটি গড়েছেন।

ওয়ানডেতে প্রথমবার দেড়শ ছাড়ালেন বাবর, আগের সেরাটি ছিল ১২৫ রান। পাকিস্তানের প্রথম কোনো দলনেতা খেলল দেড়শ বা ততোধিক রানের ইনিংস। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দেশটির কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস যা।

বিজ্ঞাপন

ইংলিশদের সেরা বোলার ২৫ বছর বয়সী পেসার ব্রাইডন কার্স, ৬১ রান খরচায় প্রথমবার ৫ উইকেটের স্বাদ পেলেন তিনি। সাকিব মাহমুদ নিয়েছেন ৩ উইকেট।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ফিল স্ল্যাটের ৩৭, জ্যাক ক্রাউলির ৩৯, স্টোকসের ৩২ রানে এগোনো ইংল্যান্ডকে স্বস্তি দেন ষষ্ঠ উইকেটে ১২৯ রানের জুটি গড়া জেমস ভিন্স ও লুইস গ্রেগরি। গ্রেগরি ৬ চর ও ৩ ছক্কায় ৬৯ বলে ৭৭ রানে ফিরে গেলেও শতকের দেখা পান ভিন্স।

ভিন্স ১১ চারে ৯৫ বলে ১০২ রানের ইনিংস খেলে থেমেছেন, তার প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। শেষদিকে ক্রেইগ ওভারটন অপরাজিত ১৮ ও কার্স অপরাজিত ১২ রানে ম্যাচের ইতি টেনে আসেন।

হারিস রউফ নিয়েছেন ৪ উইকেট, ২ উইকেট শাদাব খানের।

বিজ্ঞাপন