চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আয়াক্সের উত্থানে চরম ব্যস্ত এজেন্টরা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তরুণ ডাচ দল আয়াক্স পরপর যে দুটি অঘটন ঘটিয়েছে। সত্যিই ঘোর যেন এখনো কাটতেই চাইছে না! তার সঙ্গে শুরু হয়ে গেছে এজেন্টদের ব্যস্ততা। ইউরোপের নামী ক্লাব ঝাঁপিয়ে পড়েছে আয়াক্স দলের উপর।

বিজ্ঞাপন

আয়াক্স কোচ এরিক টেন হাগ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিফাইনালে পৌঁছানোর পর বলেছেন, ‘আমরা রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, ম্যানচেস্টার সিটি বা জুভেন্টাস নই। আমাদের দলে ভালো খেললে বড় ক্লাবগুলো আমাদের দল ভাঙিয়ে নিয়ে যাবেই। তবে আমরা নির্দিষ্ট দর্শন নিয়ে দল তৈরি করি। পরের বছরেও তাই করব।’

ফুটবল বিশ্বও হয়তো অপেক্ষায় থাকবে। আবার ডাচ জাদু দেখার প্রত্যাশা নিয়ে। আর আগামী বছর এই আয়াক্সের তারকাদের কয়েকজনকে তো অন্য দলে দেখা যাবেই। যেমন ফ্রেঙ্কি ডি জং। গত জানুয়ারিতেই বার্সেলোনা চুক্তি করে ফেলেছে ফ্রেঙ্কির সঙ্গে।

২১ বছরের এই মিডফিল্ডার পুরো মৌসুমে আয়াক্সের জার্সিতে দারুণ উজ্জ্বল। ১ জুলাইয়ের পর বার্সেলোনার মিডফিল্ডে সার্জিও বুটসকেটসেরর সঙ্গী হতে যাচ্ছেন ফ্রেঙ্কি। ৬ কোটি ৫০ লাখ ইউরো ট্রান্সফার মূল্য দিয়ে বার্সেলোনা নিচ্ছে ফ্রেঙ্কিকে।

বিজ্ঞাপন

এই ফ্রেঙ্কির জন্য আয়াক্সকে কত ট্রান্সফার মূল্য দিতে হয়েছিল, জানলে চোখ কপালে উঠবে। মাত্র ১ ইউরো! উইলেম টু-তে সে বছর কয়েকজন খেলোয়াড়কে লোনে পাঠিয়ে ছিল আয়াক্স। তাই উল্টো দিক থেকে আসা ফ্রেঙ্কির জন্য ‘টোকেন মানি’ হিসেবে এক ইউরো খরচ হয়েছিল আয়াক্সের।

চমক আরও দিচ্ছেন মাথিস ডি লিট। মাত্র ১৯ বছরেই আয়াক্সের অধিনায়ক। গত বছর ইউরোপের ‘গোল্ডেন বয়’ হয়েছিলেন। পুরস্কারের ১৫ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনও সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার জিতেছিলেন। জুভদের বিরুদ্ধে জয়ের গোলটিও তার। একদিন আগের খবর, তার এজেন্ট মিনো রাইওলার সঙ্গে আলোচনায় বসে পড়েছে বার্সেলোনা। মেসিদের দলে সই করে ফেলা ফ্রেঙ্কি নাকি ডি লিটকে পরামর্শ দিয়েছেন বার্সাতেই আসার জন্য।

Bellow Post-Green View