চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আর কেলির চ্যানেল মুছে দিয়েছে ইউটিউব

দুই দশক ধরে ‘সুপারস্টার’ তকমা ব্যবহার করে নারী ও শিশুদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগ সম্প্রতি স্বীকার করে নিয়েছেন আমেরিকান গায়ক আর কেলি। জানিয়েছেন, তিনি অনুতপ্ত। তারই জের ধরে এবার ইউটিউব কর্তৃপক্ষ স্থায়ীভাবে মুছে ফেলেছে আর কেলির চ্যানেল। ইউটিউব তাকে নিষিদ্ধ করায় ভবিষ্যতেও নতুন কোনো চ্যানেল খুলতে পারবেন না এই গায়ক।

আর কেলির চ্যানেল ‘আরকেলিটিভি’-তে ৩.৫ মিলিয়ন সাবস্ক্রাইবার ছিলেন। ‘আরকেলিভেভো’ নামের চ্যানেলে ছিলেন ১.৬ মিলিয়ন সাবসক্রাইবার। এই দুটিই ব্যান করে দেয়া হয়েছে।

ভ্যারাইটির সূত্রে বলা হয়েছে, আর কেলির মিউজিক চ্যানেল মুছে গেলা হলেও ভক্তরা তার গান শুনতে পারবেন ‘ইউটিউব মিউজিক’-এর ‘আর কেলি’স মিউজিক’ ক্যাটালগে।

বিজ্ঞাপন

দুই দশক ধরে ১১ জন অভিযোগ তুলেছেন আর কেলির বিরুদ্ধে। তাদের নয় জন নারী এবং দুইজন পুরুষ। ছয় সপ্তাহ ধরে তারা আদালতে নিজেদের সাথে ঘটে যাওয়া অপমান এবং সহিংসতা বর্ণনা করেছেন। টানা দুই দিন জেরার পর, বিচারকদের কাছে ৫৪ বছর বয়সী কেলি তার সমস্ত দোষ শিকার করে নিয়েছেন।

মামলার শুনানি আগামী বছরের ৪ মে। এদিন সাজা শোনানো হবে। ২০ বছর অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে আর কেলির।

‘আই বিলিভ আই ক্যান ফ্লাই’ গানের জন্য বিশ্বজুড়ে খ্যাতি পেয়েছিলেন ‘আর অ্যান্ড বি’ গায়ক আর কেলি।

বিজ্ঞাপন