চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আর্থিক সংকটে ভার্চুয়াল রিয়েলিটিতে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ

পুরো বিশ্ব যখন ভার্চুয়াল রিয়েলিটি এবং অগমেন্টেড রিয়েলিটিতে এগিয়ে যাচ্ছে, সে সময়েও বাংলাদেশে তেমন জনপ্রিয়তা পাচ্ছে না প্রযুক্তিগুলো। এ কারণে আর্থিক সংকটকেই দায়ী করেছেন এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্টরা।

শনিবার ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে ‘এআর ভিআর প্রেজেন্ট অ্যান্ড ফিউচার’ শীর্ষক সেমিনারে এ তথ্য জানিয়েছেন আলোচকরা। গেম নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রাইজআপ ল্যাবের প্রধান নির্বাহী এরশাদুল হকের সঞ্চালনায় সেমিনারে বক্তব্য রাখেন ব্যাটারি ল ইন্টারঅ্যাক্টিভের চেয়ারম্যান মিনহাজ উজ সালেকীন, আইসিটি ডিভিশনের স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর মোবাইল গেমস অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন প্রকল্পের পরিচালক কে এম আব্দুল ওয়াদুদ, ড্রিমারস ল্যাবের প্রধান নির্বাহী তানভীর হোসেন খান প্রমুখ।

বক্তারা জানান, দেশে এই দুটি প্রযুক্তি জনপ্রিয় করার জন্য নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হলেও এখনও মানুষের মাঝে সেভাবে সাড়া লক্ষ্য করা যায়নি। এআর এবং ভিআর নিয়ে ইতোমধ্যেই দেশীয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গেম তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে। এছাড়া শিক্ষাখাতেও শুরু হয়েছে অগমেন্টেড রিয়েলিটি এবং ভার্চুয়াল রিয়েলিটির ব্যবহার।

ভার্চুয়াল রিয়েলিটি

বিজ্ঞাপন

এরশাদুল হক জানান, অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশ এ খাতে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এর কারণ হিসেবে তিনি এআর এবং ভিআর ডিভাইসের স্বল্পতাকেই দায়ী করেছেন। তিনি জানান, উদ্যমী অনেক তরুণ এখন নিজ উদ্যোগেই এখাতে কাজ করতে শুরু করেছে।

তানভীর হোসেন খান এ প্রযুক্তি নিয়ে বলেন: স্বাস্থ্যখাত এবং প্রতিরক্ষা খাতে ভিআর নিয়ে কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। এ দুটি খাতে অনেক ক্ষেত্রেই বাস্তব প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব হয় না। কিন্তু ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ব্যবহার করে খুব সহজেই বাস্তবধর্মী প্রশিক্ষন দেওয়া সম্ভব। এর মাধ্যমে খরচও অনেক কমে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

একটি গবেষণা প্রতিবেদনের সূত্র ধরে মিনহাজ উজ সালেকীন জানান, আগামী চার বছরের মধ্যে এ খাত থেকে ৪৪ বিলিয়ন ডলার আয় করা সম্ভব হবে। এ খাত থেকে প্রবৃদ্ধি হবে ৭৭ শতাংশ।

বক্তারা জানান, ল্যাবে বসেই এসব প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা অনেক বিষয়েই প্রশিক্ষণ নিতে পারবে। ঝুঁকি রয়েছে, এমন প্রশিক্ষণগুলোও এখান থেকে নেওয়া সম্ভব। ভারত এ খাতে অনেক এগিয়ে গেছে উল্লেখ করে বক্তারা জানান, ছোট আকারে হলেও এখন থেকেই আমাদের শুরু করতে হবে।

আইসিটি ডিভিশন এআর এবং ভিআর নিয়ে আগ্রহীদের জন্য শীঘ্রই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে বলে জানান আব্দুল ওয়াদুদ।

বিজ্ঞাপন