চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আরিফুলের ‘জায়গা পাকা’ করার মিশন

আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা মাত্র তিনটি। সবগুলোই টি-টুয়েন্টি। এবার সুযোগ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলতে মঙ্গলবার রাতে সেন্ট কিটস রওনা হচ্ছেন বিপিএলে তারকাখ্যাতি পাওয়া অলরাউন্ডার আরিফুল হক। তার সঙ্গী হচ্ছেন সৌম্য সরকার।

গত সিরিজে আরিফুলের ব্যাটিং করার সুযোগ মিলেছে শেষদিকে। দুই ম্যাচেই ছিলেন অপরাজিত। এই ডানহাতি পেসার বল হাতে নিতে পেরেছেন কেবল এক ওভার। দেরাদুনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচে ১৩ রান খরচায় নিয়েছেন একটি উইকেট। ব্যাটে-বলে নিজেকে প্রমাণ করার সুযোগ সেভাবে পাননি।

বিজ্ঞাপন

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সুযোগ এলে তা কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে থিতু হওয়ার সংকল্প আরিফুলের কণ্ঠে। শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ভালো করার আত্মবিশ্বাস নিয়েই যাচ্ছেন উইন্ডিজে।

‘শ্রীলঙ্কা সিরিজে আমার সময়টা ভালো কেটেছে। আমি এখনো জাতীয় দলে নিয়মিত ক্রিকেটার হতে পারিনি। তাই আসন্ন সিরিজে পারফর্ম করে জাতীয় দলে জায়গা পাকা করার চেষ্টা থাকবে।’

বিজ্ঞাপন

টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দলের নাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে নিজেদের দিনে বাংলাদেশ কতটা ভয়ঙ্কর সেটি তারা দেখিয়েছে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৪৮ রানে জিতে। তাতেই মনোবল বেড়েছে আরিফুলের।

‘এতে কোনো সন্দেহ নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেরা দল। কিন্তু এটা ক্রিকেট, আমরা অনেকে চিন্তাও করিনি প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে এত বড় জয় পাবো। আসলে ক্রিকেটে সবকিছুই সম্ভব। যেদিন যে ভালো খেলবে সেদিন সে জিতবে। আমাদেরও একইরকম চিন্তা থাকবে, আমরা যদি দিনটা নিজেদের করে নিতে পারি তাহলে অবশ্যই ওদের হারিয়ে দিতে পারব।’

৩১ জুলাই টি-টুয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ সেন্ট কিটসে। ৪ ও ৫ আগস্ট শেষ দুই ম্যাচ হবে ফ্লোরিডায়।

আনুষ্ঠানিকভাবে টাইগারদের টি-টুয়েন্টি দল ঘোষণা করেনি বিসিবি। তবে আরিফুল ও সৌম্যর দলে থাকার ব্যাপারটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। বিসিবি থেকে জানা গেছে ফ্লোরিডায় টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলেই আয়ারল্যান্ড সফরে যাবেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সহ-অধিনায়ক (ওয়ানডে) ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া সৌম্য।