চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আরও কম দামে টুইটার কিনতে চাইছেন ইলন মাস্ক!

৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের বিনিময়ে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার কেনার কথা বলেছিলেন টেসলা ও স্পেস এক্সের মালিক ইলন মাস্ক। আলোচনা চূড়ান্ত হওয়ার আগেই নাটকীয় ভাবে সেই চুক্তি থমকে যায়।

মাস্ক জানান, আপাতত চুক্তি স্থগিত। মুখে কুলুপ টুইটার কর্তৃপক্ষের। এবার জানা যাচ্ছে, প্রস্তাবিত দরের চেয়ে আরও কম দাম দিতে চাইছেন মাস্ক।

Reneta June

স্প্যাম অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য জানতে চান ইলন মাস্ক। তেমনটা না হলে টুইটার কেনার  পথে আর এগোবেন না তিনি।

বিজ্ঞাপন

ইলনের দাবি, মাইক্রো ব্লগিং প্ল্যাটফর্মটির কমবেশি ২০ শতাংশ স্প্যাম অ্যাকাউন্ট রয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, যতক্ষণ না সংস্থাটি প্রমাণ করছে যে তাদের প্ল্যাটফর্মে ৫ শতাংশের কম স্প্যাম অ্যাকাউন্ট রয়েছে ততক্ষণ কোনওরকমের লগ্নি করবেন না তিনি।

গত সপ্তাহ থেকেই থমকে টুইটার কেনার প্রক্রিয়া
গত ক’বছর ধরেই টুইটার ব্যবহারকারীদের বাকস্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বহুক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষকে ব্যান করেছে তারা।

টেসলার সিইও ইলন মাস্ক টুইটার কিনে নেওয়ার পর মনে করা হয়েছিল, এই অবস্থার পরিবর্তন আসবে। গত সপ্তাহে টুইটার দাবি করে, তাদের প্ল্যাটফর্মে স্প্যাম অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ৫ শতাংশের কম। ইলন সরাসরি এই দাবি উড়িয়ে দেন এবং সংস্থাটি কেনার প্রক্রিয়া স্থগিত করে দেন।

তারপর থেকেই শুরু হয়েছে জল্পনা! তবে কি টেসলা সিইও শেষ অবধি টুইটার কিনবেন না? নিজের অবস্থান অবশ্য স্পষ্ট করেছেন মাস্ক। তিনি জানিয়েছেন, সংস্থাটি কিনতে তিনি যথেষ্ট আগ্রহী।

কমতে পারে টুইটারের দাম
বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশ অবশ্য এতে মাস্কের মুন্সিয়ানা দেখছে। তাদের মতে, এই ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়ে মাস্ক আরও কম দামে কিনে ফেলবেন সংস্থাটিকে৷ গতমাসে মাস্ক প্রস্তাব দিয়েছিলেন, তিনি ৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দামে কিনবেন সংস্থাটিকে। এখন মনে করা হচ্ছে, আরও কম দামে কিনে ফেলতে পারবেন তিনি। সম্প্রতি সরাসরি সেই ইঙ্গিতও দিয়ে রেখেছেন মাস্ক। তিনি জানিয়েছেন, দামদর নিয়ে আলোচনা করা হবে৷ মঙ্গলবার তিনি তার টুইটার হ্যান্ডেলে বলেছেন, তিনি যে দাম অফার করেছেন টুইটারের দাম আসলে অত নয়। এর কয়েক ঘণ্টা পরেই মাস্ক বলেছেন, তিনি তার অফার করা ৪৪ বিলিয়ন ডলারেই টুইটার কিনবেন তবে শর্ত আছে।