চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আয়েশা খানমের মৃত্যুতে এমজেএফ ও সিএসও অ্যালায়েন্সের শোক

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়েশা খানমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) এবং সিভিল সোসাইটি অরগানাইজেশনগুলোর সম্মিলিত মঞ্চ ‘সিএসও অ্যালায়েন্স’।

রোববার পৃথক পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে এ শোক জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

শোকবার্তায় এমজেএফের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম বলেন: ‘মুক্তিযোদ্ধা আয়েশা খানম লিঙ্গীয় সমতা এবং নারীর সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে তাঁর জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। তিনি আমাদের মত অনেকেরই মহিলাদের অধিকার নিয়ে কাজ করার রোল মডেল ছিলেন।’

বিজ্ঞাপন

‘এমজেএফ মনে করে, আয়েশা খানমের মতো একজন সাহসী দেশপ্রেমী, যিনি বাংলাদেশের সকল প্রগতিশীল আন্দোলনের শীর্ষে ছিলেন, তার শূন্যতা অনুভূত হবে। আমরা বিদেহী আত্মার শাশ্বত মুক্তির জন্য দোয়া করি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করি।’

এমজেএফ আয়েশা খানমের নেতৃত্বে সামাজিক প্রতিরোধ কমিটির সদস্য হিসেবে, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের দীর্ঘকালীন অংশীদার হয়ে নারী ও বালিকাদের প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য ও সহিংসতার প্রতিবাদ ও প্রতিরোধে কাজ করেছেন।

সিএসও’র বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আয়েশা খানমের অকাল মৃত্যুতে দেশ ও জাতির যে ক্ষতি হলো তা সহজে পূরণ হওয়ার নয়।স্বাধীনতার পর থেকে গণতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থা, সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠা ও নারীর মানবাধিকার অর্জনের আন্দোলনে সর্ব শক্তি দিকে কাজ করে গেছেন। তিনি যেভাবে তার মেধা, শ্রম ও প্রজ্ঞা দিয়ে নারীর অধিকার আদায়ে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে গেছেন তা নতুন প্রজন্মের চলার পথে আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবে। আমরা বিদেহী আত্মার শাশ্বত মুক্তির জন্য দোয়া করি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করি।

শনিবার ভোরে ঢাকার নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বেসরকারি বিআরবি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আয়েশা খানমের বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।