চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আমার আমলে যুক্তরাষ্ট্র আবার সাফল্যে ফিরেছে: ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, তার শাসনামলে যুক্তরাষ্ট্র আবারও সাফল্যের জগতে ফিরে এসেছে। মার্কিন কংগ্রেসের স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণে ট্রাম্প তার ৩ বছরে অর্জিত বিভিন্ন অর্থনৈতিক সাফল্য তুলে ধরেন।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে (বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল) ভাষণে মার্কিন স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা সংস্কারের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন ট্রাম্প।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের চালচিত্র তুলে ধরতে প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে কংগ্রেসে ভাষণ দিয়ে থাকেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। এবার অভিশংসনের পর প্রথম এবং নভেম্বরে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে অনুষ্ঠিত হলো ট্রাম্পের শেষ স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ।

১ ঘণ্টা ১৮ মিনিটের এ ভাষণের প্রায় পুরোটা জুড়েই ছিল যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক সাফল্যের বর্ণনা।

ট্রাম্প বলেন, তিনি ক্ষমতায় আসার আগে একটানা কয়েক দশক মানুষের আয় কমেছিল, তার শাসনামলে মানুষের উপার্জন দ্রুত বেড়েছে। নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। গত অর্ধ শতকের মধ্যে মার্কিন বেকারত্বের হার এখন সর্বনিম্নে।

বিজ্ঞাপন

নর্থ আমেরিকার বাণিজ্য চুক্তি নাফটা বাতিল করে নতুন করা সমঝোতা চুক্তির আওতায় মার্কিনিদের কর্মসংস্থান আরও বাড়বে বলেও দাবি করেন ট্রাম্প।

করদাতাদের অর্থ অভিবাসীদের চিকিৎসেবায় ব্যবহারের কঠোর সমালোচনা করেন প্রেসিডেন্ট। মার্কিন স্বাস্থ্যসেবা সংস্কারের প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি। পাশাপাশি করোনা ভাইরাস নিয়ে সতর্ক থাকার কথাও তুলে ধরেন।

পেলোসির হাত ধরলেন না ট্রাম্প, ট্রাম্পের ভাষণ ছিঁড়ে ফেললেন পেলোসি
তবে ভাষণের চেয়ে বেশি আলোচনায় এসেছে কংগ্রেসের ডোমোক্র্যাট স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সঙ্গে ট্রাম্পের দ্বন্দ্ব। ভাষণ শুরুর আগে পেলোসি ট্রাম্পের দিকে করমর্দনের জন্য হাত বাড়ালেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট তা প্রত্যাখ্যান করেন।ডোনাল্ড ট্রাম্প-স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন-আমার শাসনামলে যুক্তরাষ্ট্র

এর জবাবে পেলোসি তার সূচনা বক্তব্যে প্রেসিডেন্টকে ভাষণ দেয়ার আমন্ত্রণ জানানোর সময় প্রথাগত নিয়মে ‘আমন্ত্রণ জানিয়ে অত্যন্ত সম্মানিত বোধ করছি’ কথাটিও এড়িয়ে যান। এমনকি ভাষণ শেষে ন্যান্সি পেলোসি ট্রাম্পের ভাষণের ছাপানো কপিও ছিঁড়ে ফেলেন।

ভাষণে প্রসঙ্গ উঠে না এলেও ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার ও নভেম্বরের নির্বাচনকে ঘিরে ডোমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানদের মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্ব দেখল বিশ্ববাসী।