চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আমাদের কিছুই করার ছিল না: তাসকিন

১৩১ রানের পুঁজি নিয়ে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে লড়াই চলে না, সেটি সবারই জানা। এই আপ্তবাক্য দিয়েই ডানেডিনে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে শোচনীয় হারের কারণ ব্যাখ্যা করলেন বাংলাদেশ পেসার তাসকিন আহমেদ।

সংবাদ সম্মেলনে তাসকিন বললেন, ‘দুর্ভাগ্য যে আমরা ব্যাটিংয়ে একদমই ভালো শুরু করতে পারিনি। যদি আমরা ২৬০ থেকে ২৭০ করতে পারতাম, ম্যাচের চেহারা ভিন্ন হতে পারতো। কিন্তু সেটি করতে ব্যর্থ হয়েছি। ১৩২ রানে বোলারদের তেমন কিছুই করার ছিল না। যদি ২৬০-২৭০ হতো আমরা বোলাররা আরেকটু আক্রমণাত্মক হতে পারতাম।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে মঙ্গলবার ক্রাইস্টচার্চে। নিউজিল্যান্ড সফরে এই ভেন্যুতেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন পর্ব সেরেছিল বাংলাদেশ। সেখানে যাওয়ার আগে তাসকিন জানালেন, স্বাগতিকদের বিপক্ষে লড়াই জমাতে হলে ব্যাটে ও বলে জ্বলে উঠতে হবে বাংলাদেশকে।

‘আমাদের বোলাররা ভালো প্রস্তুতি নিয়েছে নিউজিল্যান্ডে এসে। এমনকি কোয়ারেন্টাইনে থাকার সময়ও ক্রাইস্টচার্চে পরের সাতদিন অনুশীলন করেছি। ২৬০ হলে গল্পটা ভিন্ন হতে পারত। এই রানে লড়াই করা চলে না।’

‘আমরা পরের দুটি ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছি। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে খেলা সবসময়ই কঠিন। পরের ম্যাচে আমরা সেরাটা দিয়ে লড়বো আশা করি। কোনো সন্দেহ নেই নিউজিল্যান্ড বিশ্বসেরা দলের একটি। নিজেদের মাটিতে তারা কতটা ভয়ঙ্কর তা আমরা জানি। এখানে ২৮০ বা ৩০০ রান করতে পারলে ভালো প্রতিদ্বন্দিতা হবে। যদি তাদেরকে হারাতে চাই ব্যাট-বল দুই দিকেই ভালো করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৩১ রানে শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। ব্যাটিংয়ে হোঁচটের পর বোলাররাও খানিকটা লড়াইয়ের মানসিকতা দেখাতে পারেননি। ২২ গজে ঝড় তোলা মার্টিন গাপটিলকে আউট করে প্রথম সাফল্যটি এনে দেন তাসকিন।

দলীয় ফিফটি পার করে গাপটিল ১৯ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলে উইকেটের পেছনে থাকা মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসে ক্যাচ দেন। ডানহাতি ওপেনার মারেন চারটি ছক্কা ও তিনটি চার।

আরেক ওপেনার হেনরি নিকোলস সহজেই পাড়ি দিয়েছেন বাকি পথ। ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। ডেভন কনওয়ে ২৭ রান করে তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের শিকার হন। জয় থেকে নিউজিল্যান্ড যখন ১৩ রান দূরে, তখন আউট হন এ ব্যাটসম্যান।

উইল ইয়ং ৬ বলে ১১ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ শেষ করেন। ২১.২ ওভারে দুই উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছায় কিউইরা। ৮ উইকেটের বিশাল জয়ে নিউজিল্যান্ড ১-০তে এগিয়ে গেল সিরিজে।