চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আবার বিয়ে প্রসঙ্গে যা ভাবছেন হৃতিক

প্রায় সাত বছর হল বিয়ে ভেঙেছে, তবুও সুজানের সঙ্গে হৃতিকের সম্পর্ক অটুট আছে। বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার পরও তারা দুজন বন্ধুত্ব বজায় রেখেছেন। কখনও কঙ্গনার প্রসঙ্গে হৃতিকের পাশে দাঁড়িয়েছেন সুজান আবার কখনও প্রকাশ্যে বা সংবাদমাধ্যমে সুজানের প্রশংসা করেছেন হৃতিক।

লকডাউনের শুরুতে সন্তানদের জন্য নিজের বাড়ি ছেড়ে হৃতিকের বাড়িতে উঠেছেন সুজান। বাবা-মাকে এক ছাদের নিয়ে পেয়ে কঠিন সময়টা আনন্দে কাটাতে পেরেছে রিদান ও রিহান।

বিজ্ঞাপন

সুজানের এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা জানিয়ে হৃতিক সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘আমার স্ত্রীর ছবি, যে সন্তানদের জন্য নিজের বাড়ি ছেড়ে এসেছে। সন্তানদের সঙ্গে যেন বিচ্ছিন্ন না থাকতে হয় তাই এই সিদ্ধান্ত। অভিভাবকত্বের এই যাত্রায় সমর্থন দেয়ার জন্য এবং আমাকে বোঝার জন্য ধন্যবাদ সুজান।’

২০১৬ সালে হৃতিক-সুজানকে একসঙ্গে বেশ কয়েকবার দেখা যায়। শুধু তাই নয়, একে অপরের সমর্থনে সোশ্যাল মিডিয়ায় কথাও বলেন তারা। এরপরেই গুঞ্জন রটে আবার বিয়ে করতে যাচ্ছেন তারা। তবে সুজান স্পষ্ট ভাষায় সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘কোনো অনুমান না করার অনুরোধ রইলো। হৃতিকের সঙ্গে আবার এক হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে আমরা সবসময়েই ভালো অভিভাবক হয়ে থাকতে চাই।’

২০১৭ সালে ‘কাবিল’ মুক্তির আগে এক সাক্ষাৎকারে হৃতিকও বলে দিয়েছেন, ‘আবার বিয়ের পরিকল্পনা নেই। জীবন নিয়ে সন্তুষ্ট আছি।’

চার বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০০০ সালের ২০ ডিসেম্বর হৃতিক ও সুজানের বিয়ে হয়। বহু তরুণীর হৃদয় ভেঙে দেন সদ্য ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখা হার্টথ্রব। ২০১৪ সালে আইনি বিচ্ছেদ হয় হৃতিক রোশন ও সুজান খানের। বিচ্ছেদের পরে দুজনই আর বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি। টাইমস অব ইন্ডিয়া