চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আবারও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালালো নর্থ কোরিয়া

নর্থ কোরিয়া আবারও ব্যালিস্টিক মিসাইল নিক্ষেপ করেছে বলে দাবি করেছে সাউথ কোরিয়া এবং জাপানের সামরিক বাহিনী। স্থানীয় সময় সোমবার এ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানো হয় বলে জানা গেছে।

সাউথ কোরিয়ার সিউলের জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ (জেসিএস) এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে। জানা গেছে, পেনিনসুলার পূর্বে সিনপো থেকে এ ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। বিষয়টি সাউথ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা বিশ্লেষণ করে দেখছে বলেও জানানো হয়।

সাউথ কোরিয়ার ইউনহাপ বার্তা সংস্থা বলছে, যদিও সবশেষ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে জেসিএস বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি।

সিনপো খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি নৌ শিপইয়ার্ড এবং এর আগেও নর্থ কোরিয়া সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে এই বন্দর ব্যবহার করে, এমন অভিযোগও উঠে।

বিজ্ঞাপন

চলতি অক্টোবরের শুরুতে বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় নর্থ কোরিয়া। এর আগে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয় বলে অভিযোগ উঠে দেশটির বিরুদ্ধে। পিয়ংইয়ং ব্যালিস্টিক ও ক্রুজ উভয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় সেপ্টেম্বর মাসেও।

পরে আবারও নর্থ কোরিয়া স্বল্প পাল্লার ব্যালিস্টিক মিসাইল নিক্ষেপ করে বলে দাবি করে সাউথ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী। যদিও সেসময় নর্থ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত জাতিসংঘে জানান, পিয়ংইয়ংয়ের নিজের আত্মরক্ষার্থে এরকম ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর অধিকার রয়েছে। যেটি কেউ প্রত্যাখ্যান করতে পারে না।

নর্থ কোরিয়ার এমন ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে স্থিতিশীলতা আনতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে বরাবরই শঙ্কা প্রকাশ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

পরমাণু ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির কারণে ২০০৬ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় রয়েছে নর্থ কোরিয়া। এসব কর্মসূচিতে অর্থায়ন বন্ধ করতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদও ধারাবাহিকভাবে বিধিনিষেধ বাড়িয়েছে। কিন্তু সব নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে নর্থ কোরিয়া।

 

বিজ্ঞাপন