চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আবারও কাছে গিয়ে হারল রুমানা-সানজিদারা

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ পাকিস্তানের

আগের ম্যাচে লড়াই করেছিলেন রুমানা আহমেদ। সোমবার করলেন সানজিদা ইসলাম। রুমানার মতো সানজিদার লড়াইও বিফলে গেল। তাতে এক ম্যাচ হাতে রেখেই বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন টি-টুয়েন্টির সিরিজ জিতে নিল পাকিস্তান নারী দল। দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিকরা জিতেছে ১৫ রানে।

পাকিস্তানের দেয়া ১৬৮ রানের লক্ষ্যে পুরো ২০ ওভার ব্যাট করলেও ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের মেয়েদের ইনিংস থামে ১৫২ রানে। প্রথম ম্যাচে ১২৬ রানের টার্গেটে রুমানাদের হার ছিল ১৪ রানে। দ্বিতীয় ম্যাচে লক্ষ্য বড় হলেও সেই কাছে গিয়েই থেমে গেল বাংলাদেশ।

কঠিন লক্ষ্যে নেমে শুরুটা একেবারেই ভালো হয়নি বাংলাদেশের। ২৫ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে সফরকারীরা। সেখান থেকে লড়াই শুরু সানজিদার। তিনি আউট হতেই আবার মন্থর হয়ে যায় রানের চাকা। ৩২ বলে ৮ চারে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করে যান সানজিদা।

১৯ বলে ৩০ রান তুলে শেষদিকে লড়াই করেছিলেন ফারজানা হক। কিন্তু দলের জন্য সেটা যথেষ্ট হয়নি। লতা মন্ডলের ১৭ এবং জাহানারা আলমের ৫ বলের ১৮ রানের ইনিংস শুধু হারের ব্যবধানই কমিয়েছে।

তিন উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সফল বোলার সাইদা ইকবাল। বাকি তিন বোলার নেন একটি করে উইকেট।

বিজ্ঞাপন

এর আগে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ৩৫ রানের জুটি পায় পাকিস্তান। সিরদা আমিন ১৯ রানে আউট হলেও হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন আরেক ওপেনার জাভেরিয়া খান। ৪৪ বলে পাঁচ চার ও দুই ছক্কায় করেন ৫২ রান।

বাংলাদেশের বোলারদের উপর বেশি চড়াও ছিলেন পাকিস্তানি অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ। দলীয় সর্বোচ্চ ৭০ রান করেন তিনি। ৫০ বল খেলে ৯ চার ও এক ছক্কায় ইনিংস সাজান। বিসমাহ-জাভেরিয়ার ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান করে স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের হয়ে জাহানারা আলম দুটি ও লতা মন্ডল একটি উইকেট নেন।

পাকিস্তান সিরিজ জিতে যাওয়ায় তিন নম্বর ম্যাচ হয়ে দাঁড়াল শুধুই নিয়মরক্ষার। ৩০ অক্টোবর একই ভেন্যুতে হবে ম্যাচটি।

শেয়ার করুন: