চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আফগানিস্তান নিয়ে জাতিসংঘের সতর্কতা

আফগানিস্তানের অনেক অঞ্চল জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবানদের দখলে চলে যাওয়ায় সেদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করা নিয়ে সতর্ক করে দিয়েছে জাতিসংঘ। 

বিবিসির প্রতিবেদন বলা হয়েছে, জাতিসংঘের বিশেষদূত দেবোরা লায়ন্স নিরাপত্তা কাউন্সিলকে আফগানিস্তানের ‘এই ভয়াবহ পরিস্থিতি’ সম্পর্কে সতর্ক করে বলে মে মাস থেকে দেশটির ৩৭০টি জেলার মধ্যে ৫০টি জেলা তালেবান জঙ্গিদের দখলে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আফগান সরকারের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে মাত্র ৬৪টি জেলা। বাকি অঞ্চলগুলো তালেবান ও সরকারি বাহিনী একে অপরের ওপর প্রভাব বিস্তার করতে পারছে না।

জাতিসংঘের তথ্য বলছে, আফগানিস্তানের ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ এলাকা এখন তালেবানের নিয়ন্ত্রণে। রাজধানী কাছাকাছি পৌঁছে গেছে তালেবান। কাবুল থেকে মাত্র ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে কট্টর ইসলামপন্থি এই সশস্ত্র গোষ্ঠী। আফগানিস্তানে সকল প্রাদেশিক কেন্দ্র এখনও সরকারে নিয়ন্ত্রণে।

বিজ্ঞাপন

সাম্প্রতিক সময়ে তালেবান জঙ্গিরা আফগান সরকারি বাহিনীর বিরুদ্ধে আক্রমণ বাড়িয়েছে। দেশটির উত্তর এবং পশ্চিমের একাধিক জেলা তারা দখল করে নিয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটো আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সম্পূর্ণ সৈন্য প্রত্যাহারের কথা রয়েছে। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে এখনই সেনা প্রত্যাহার কতটা সুফল বয়ে আনবে আফগানিস্তানে তারই আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

আগামী শুক্রবার আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি হোয়াইট হাউজে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা। যেখানে দুই নেতা আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার নিয়ে কথা বলবেন।

তালেবান সহিংসতার মুখে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের গতি কমিয়ে দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী।

পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেছেন, সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহারের সময়সীমা এখনও ১১ সেপ্টেম্বরে নির্ধারিত আছে। তবে তা পরিবর্তন হতে পারে। এরই মধ্যে আফগানিস্তান থেকে অর্ধেক সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছে।