চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আপনার অনুপস্থিতিতেও ভালো থাকবে গাছ

বাড়ির বাইরে বেড়াতে যাচ্ছেন কিন্তু ঠিক ফিরে এসেই দেখবেন আপনার সাধের গাছগুলো সব শুকিয়ে একেবারে মৃতপ্রায়। তাই বলে কি আর বাইরে বেড়াতে যাবেন না। নাকি গাছগুলো নিয়ে চিন্তা করা বাদ দিয়ে দিবেন বলুন। কতটা সময় ধরে কত যত্ন নিয়ে আপনি গাছগুলো বড় করেছেন? দুই দিনের অবহেলায় সেটা নষ্ট হয়ে যাক তা নিশ্চয়ই চাননা। তাই মেনে চলুন কিছু সাধারণ টিপস।

ঠান্ডা জায়গায় রেখে যান: যদি নিয়মিত গাছে পানি দেওয়ার সুযোগ না থাকে তাহলে এসব গাছ কোনো ঠান্ডা জায়গায় রেখে যান। গাছের জন্য রোদ প্রয়োজন, তাই বলে প্রতিনিয়ত বাড়তি রোদে থাকলে আপনার গাছ ক্ষতিগ্রস্থই হবে। রোদ থেকে দূরে রাখলে অনেকটা সময় পানি ধরে রাখতে পারবে গাছ। আর ভালোও থাকবে বেশি বেশি।

এক জায়গায় রাখুন: গাছ আর্দ্রতা ছড়ায়। তাই বাইরে কয়েকদিনের জন্য গেলে চেষ্টা করুন সবগুলো গাছ এক জায়গায় রাখতে। তাহলে গাছের চারপাশের আবহাওয়া অনেকটা ভেজা ও আর্দ্র থাকবে। তবে মনে রাখবেন ফুল গাছ কিন্তু অন্যান্য সবুজ গাছ বা বনসাই থেকে আলাদা। তাই আলাদা আলাদা করে গ্রুপ করে গাছ রাখুন।

Advertisement

প্রতিবেশি বা বন্ধুদের সাহায্য নিন: যদি কিছুই সম্ভব না হয় তাহলে গাছগুলো এমন জায়গায় রাখুন যেন আপনার প্রতিবেশি সেগুলোর নাগাল পায়। ব্যালকনিতে রাখতে পারেন। যেন পাশের ব্যলকনি থেকে পানি দেওয়া যায়। আর যদি তাদের সাথে সম্পর্ক খুবই ভালো হয় তাহলে পুরো গাছই তাদের বাসায় শিফট করে ফেলতে পারেন। অবশ্য সেক্ষেত্রে বেড়িয়ে আসার সময় কিন্তু প্রতিবেশির জন্য উপহার আনতে ভুলবেন না।

ভিন্ন পথ: আপনি থাকছেন না বলে গাছে পানি দেওয়ার কোনো উপায় নিশ্চয়ই থাকছে না। তাহলে ভিন্নপথ অবলম্বন করতে হবে। একটা ছোট ট্রে বা হালকা উঁচু প্লেটে পানি দিয়ে তার ওপর গাছের পটটা বসিয়ে দিন। তাহলে অনেকটা সময় গাছগুলো পানি গ্রহণ করতে পারবে। আপনি একটা নিজের তৈরি ঝাঁঝড়িও ব্যবহার করতে পারেন। একটা ছোট্ট মাটির পাত্র নিন। সেটার মধ্যে ছোট ছোট ছিদ্র করুন। তারপর সেটা গাছের খানিকটা ওপরে ঝুলিয়ে দিন। গাছের আকার বুঝে পট বেছে নিন। সেটা কানায় কানায় পূর্ণ করে গাছের ওপরে ঝুলিয়ে দিন। তারপর ভুলে যান। ফোঁটায় ফোঁটায় পানি পরে সেটা আপনার গাছকে আর্দ্র রাখবে বেশ খানিকটা সময়।

যাওয়ার আগেই সচেতন হলে, ফিরে এসে গাছের শুকনো মুখ দেখে আর মন খারাপ করতে হবে না মোটেও।