চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আন্তর্জাতিক বইমেলায় ইটালি প্রবাসী শশী’র কৃতিত্ব

১৯৮৮ সাল থেকে ইটালির তরিনো’তে Fiera di salone del internazionale (International book fair festival) শুরু হয়েছিলো। প্রতিষ্ঠার পর থেকে Daniela Finocchi পরিচালনায় বিভিন্ন দেশের লেখক, লেখিকা, কলামিষ্ট, প্রবন্ধকদের নিয়ে আয়োজিত হয়ে আসছে এক জ্ঞানগর্ভ মূলক অনুষ্ঠান যার নাম নির্ধারণ করা হয়েছে Lingua Madre (Mother Language) নামে।

দীর্ঘ সময় থেকে চলে আসা এই আন্তজার্তিক বই মেলায় ১ম বাংলাদেশি হিসেবে ২০১৭ সালে অংশগ্রহণ করেছিলেন তাহমিনা ইয়াসমিন শশী। প্রতিভা ও মেধার স্বাক্ষর রেখে তিনি জায়গা করে নিয়েছিলেন সেরা ১০ এ। তার প্রবন্ধটিকে বই আকারে প্রকাশ করে (Lingua Madre) ১৭. ২০১৮ সালেও এর ব্যতিক্রম হয়নি এই মেধাবী ২০১৮ সালেও জায়গা করে নেন তার মেধার বিকাশ ঘটিয়ে সেরা ১০ এ।

বিজ্ঞাপন

তার লেখা প্রবন্ধটি বই আকারে প্রকাশ করা হয় (Lingua Madre) ২০১৮ থেকে। ২০১৯ সালে যথারীতি যাত্রাবিরতি ২০২০ সালে তার মেধা ও প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে পুনরুদ্ধার করল তার হারানো গৌরব। এটা তার জন্য কোনো সহজলভ্য কাজ ছিল না। একজন বাংলাদেশি হয়েও ইতালীয় ভাষায় গল্প রচনা করে পুরষ্কার জেতা নিঃসন্দেহে কঠিনতর বিষয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

২০২০ সালে ৫ হাজার প্রতিযোগীর অংশগ্রহণের এই বই মেলায় প্রতিযোগিতার লড়াইয়ে লিখার গুণগত মান ও বিজ্ঞ বিচারক মন্ডলির বিবেচনায় প্রবাসী বাংলাদেশি নারী শশী’র লেখা প্রবন্ধ স্থান করে নেয় ৩য় স্থানে। এছাড়া ২০২০ সালে যারা ১ম,২য়, ৩য় স্থান যারা অর্জন করেছেন তারা হলেন: Yeniffer Lilibell Aliaga Chavez (Peru- 1st Award), Bervian Gormez- Alessandra Nucci (Turkey & Italy- 2nd Award), TAHMINA YASMIN SHOSI- Alice Franceschini (Bangladesh & Italy – 3rd Award).

এছাড়া যারা পুরস্কার পেয়েছেন ভিন্ন ক্যাটাগরিতে, তারা হলেন: Silvia Favaretto (Italy), Slow food Terra Madre-Carnia Ardelean (Romania), Torino Film Festival-Narcissa.V.Ewan (Poland).

ভেনিসে বসবাসরত তাহমিনা ইয়াসমিন শশী’র গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের শরিয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার কাওিকপুর গ্রামে। শশী ১০ বছর যাবৎ ইটালিতে বসবাস করছে। সে ২০১৮ সালে ইটালির মিলান শহরের ক্যাথলিক করেদেল সাক্রো বিশ্ববিদ্যালয় হতে কাফুসকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগে অধ্যায়নরত।