চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আন্তঃনদী সংযোগের খবরে ভারতকে চিঠি দেয়ার উদ্যোগ

ভারতের আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্পের বিষয়ে ভারত সরকারের কাছে বিস্তারিত জানতে চাইবে সরকার। এর প্রক্রিয়ায়ও শুরু হয়েছে। এজন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিতে বলেছে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়। পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, ওই প্রকল্পের কারণে বাংলাদেশের কোনো ক্ষতি হলে তা মেনে নেবে না সরকার।

গঙ্গা-তিস্তা-সুন্দরবন এলাকার নদীসহ ৮টি লিংক এবং বাঁধ দিয়ে ভারতের জলাধার নির্মাণ হবে বলে সংবাদের ভিত্তিতে পানি সম্পদমন্ত্রী বলেন, তারা অফিসিয়াল কোনো নোটিফিকেশন এখনো পান নি। ‘নিউজটা আসার পর আমরা পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে অলরেডি ফরেন অফিসকে একটা চিঠি দিয়েছি।’

বিজ্ঞাপন

পূর্ব প্রতিশ্রুতি ও আইন অনুযায়ী ভারত এরকম প্রকল্প করতে পারে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জল বা স্থল সীমানা যাই বলেন, বাংলাদেশের স্বার্থ আমরা কারো কাছে দিয়ে দেবো না। সরকার দেশের স্বার্থের বিষয়ে শক্ত অবস্থানে আছে।

বিজ্ঞাপন

পানি উন্নয়ন বোর্ডে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির পর্যালোচনা বৈঠক শেষে আন্ত:নদী সংযোগ বিষয়ে শক্ত অবস্থান নিতে সরকারকে বিএনপির সহযোগিতা প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী।

২০১৬ সালের মধ্যে ভারতের ভেতরের ৩৮টি নদীকে ৩০টি খালের মাধ্যমে আন্তঃ সংযোগে আনতে চায় দিল্লী সরকার। এজন্য গঙ্গা-তিস্তা-সুন্দরবন এলাকার নদীসহ ৮টি লিংক এবং বাঁধ দিয়ে জলাধার নির্মাণ হবে। এর মাধ্যমে ভারতের এক নদী থেকে আরেক নদীতে নেয়া যাবে পানি।

ভারতের পানিসম্পদ মন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের পত্রিকায় উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, এ প্রকল্পের ফলে মরুকরণের শিকার হবে বাংলাদেশ।

Bellow Post-Green View