চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আনন্দ-উৎসবে শেষ হলো স্টুডেন্টস ক্যাবিনেট নির্বাচন

সম্মিলিত হয়ে প্রার্থীরা প্রচার চালিয়েছে, কেন্দ্র দখল হয়নি একটিও কিংবা কোনো কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিতও হয়নি। ঘটেনি কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা। ভোট পড়েছে শতভাগ। প্রথমবারের মতো হওয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দাখিল মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত স্টুডেন্ট ক্যাবিনেট নির্বাচনে এরকমই চিত্র ছিল সবগুলোর কেন্দ্রের।

শনিবার ঢাকার মিরপুরের আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ক্যাবিনেট নির্বাচন উপলক্ষে ছিলো অন্যরকম সাজ। হাতে লেখা প্রার্থীদের জন্য পোস্টার ঝুলানো হয়েছে স্কুলের বিভিন্ন জায়গায়। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রের বাইরেও চলে শান্তিপূর্ণ মিছিল।

বিজ্ঞাপন

শতভাগ ভোটার উপস্থিত হওয়ায় মূল বারান্দা ছাড়িয়ে ভোটরদের দাঁড়াতে হয় মাঠেও। সব কিছু ঠিক আছে কি-না তা তদারকি করছেন স্কুলের শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

ক্যাবিনেট নির্বাচনে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থীরা বলছে, আগামী দিনে এই অভিজ্ঞতা কাজে দেবে তাদের। বড়দের নির্বাচনের মতো প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং এজেন্ট সবই ছিল এই নির্বাচনে।

গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল জাতি গড়ে তুলতেই এই নির্বাচন আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

নির্বাচনে সারাদেশের ৪৮৭টি উপজেলা ও ৮টি মহানগরের এক হাজার ৪৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ নির্বাচন হবে। এরমধ্যে ৪৯৫টি মাধ্যমিক স্কুল, ৪৮৭টি দাখিল মাদ্রাসা ও ৬১টি কারিগরি বিদ্যালয় রয়েছে। 
নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা  প্রায় সাত লাখ। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৮৪৩ জন।

প্রতিটি শ্রেণিতে একজন করে পাঁচটি শ্রেণিতে পাঁচজন ও পরবর্তী সর্বোচ্চ ভোটপ্রাপ্ত তিন শ্রেণি থেকে আরো তিনজন নিয়ে আটজনের স্টুডেন্টস ক্যাবিনেট গঠিত হবে। এই ক্যাবিনেটের মেয়াদ হবে এক বছর।