চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আদম পাচারের অভিযোগে অনন্য মামুনের সদস্যপদ স্থগিত

মালয়েশিয়ায় আদম পাচারের অভিযোগে আটক হয়েছেন ‘অস্তিত্ব’ খ্যাত চিত্রপরিচালক অনন্য মামুন। এমন ন্যাক্কারজনক কাজের ফলে বহিঃবির্শ্বে দেশের সিনেমা এবং এর কলাকুশলীদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে। আর এ কারণেই অনন্য মামুনের সদস্যপদ স্থগিত করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে এফডিসির পরিচালক সমিতির কার্যালয়ে এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে চ্যানেল আই অনলাইনককে খবরটি নিশ্চিত করেছেন পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ।

বিজ্ঞাপন

আদম পাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া অনন্য মামুনের সদস্যপদ আপাতত স্থগিত করেছে পরিচালক সমিতি। বৃহস্পতিবার থেকেই এই স্থগিতাদেশ কার্যকর হয়েছে। যার ফলে তিনি পরিচালক সমিতি থেকে কোনো ধরনের সুযোগসুবিধা পাবেন না অনন্য মামুন। তার বিরুদ্ধে আদম পাচারের অভিযোগ আমরা পর্যালোচনা করছি। এমনকি মালয়েশিয়ান দূতাবাসে প্রকৃত ঘটনা জানার জন্য চিঠি পাঠিয়েছি। যে অভিযোগ উঠেছে সেটা পুরোপুরি সত্য প্রমাণিত হলে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে পরিচালক সমিতি। এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন বদিউল আলম খোকন।

পরিচালক সমিতির গঠনতন্ত্রে উল্লেখ করা আছে, কোনো পরিচালকের সদস্যপদ স্থগিত করা হলে তিনি স্থগিতাদেশ তুলে নেয়ার আগ পর্যন্ত ছবি বানাতে পারবেন না। এমনকি তার পরিচালিত কোনো ছবিও মুক্তি পাবে না। নির্মাতা মামুনের সদস্যপদ স্থগিত হওয়ায় তার ক্ষেত্রেও একই অবস্থা প্রযোজ্য বলে জানান বদিউল আলম খোকন।

এর আগে দুইবার ভিন্ন অভিযোগে পরিচালক সমিতি থেকে মামুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। তখন তিনশ টাকার স্ট্যাম্পে লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়েছিলেন মামুন। সেখানে মামুন উল্লেখ করেছিলেন, আগামীতে পরিচালক সমিতির ভাবমূর্তি নষ্ট হয়, তেমন কাজ তিনি করবেন না। কিন্তু পুনরায় তিনি অপকর্মে জড়ান।

এ প্রসঙ্গ টেনে বদিউল আলম খোকন আরো বলেন, অনন্য মামুনের বিরুদ্ধে পূর্বের অভিযোগের কাগজ ও তার লিখিত জবানবন্দি আমাদের কাছে রয়েছে। মানব পাচারের এই অভিযোগ যদি সত্যি প্রমাণিত হয়, তবে তার বিরুদ্ধে বড় ধরনের ব্যবস্থা নেবে পরিচালক সমিতি।

গেল রোববার স্থানীয় সময় রাত ১২টায় মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের একটি হোটেল থেকে অনন্য মামুনকে আটক করে সেখানকার গোয়েন্দা পুলিশ। বর্তমানে অনন্য মামুন দেশটির পুলিশি হেফাজতেই আছেন বলে জানা গেছে।

গত শনিবার কুয়ালালামপুরের উইজমা এমসিএ সেন্টারে ‘সিনেমাটিক বাংলাদেশি নাইটস’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের অন্যতম আয়োজক ছিলেন অনন্য মামুন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশি শিল্পীদের একটি দল ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেন। এই অনুষ্ঠানকে ঘিরেই অনন্য মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি অনুষ্ঠানের নাম করে ৫৭ জনকে মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে পাচারের জন্য সঙ্গে নিয়ে গেছেন।

Bellow Post-Green View