চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আগামী সপ্তাহেই যুক্তরাজ্যে ফাইজারের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে যুক্তরাজ্যে ফাইজার ভ্যাকসিনের অনুমোদন

যুক্তরাজ্যে ফাইজার এবং জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেকের করোনা ভ্যাকসিন সর্বসাধারণের ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। 

বুধবার অনুমোদন দেয়ার পর ব্রিটেন সরকার বলছে, আগামী সপ্তাহে থেকে তারা এই ভ্যাকসিনের প্রয়োগ করতে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ফাইজার এবং বায়োএনটেকের তৈরি সমন্বিত ভ্যাকসিনটির ট্রায়ালের তথ্য পর্যালোচনা করে এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। কিছুদিন আগেই ফাইজারের তৃতীয় দফার ট্রায়ালের ফলাফল আসে। তাতে দেখা যায় ৯৫ শতাংশের বেশি কার্যকরী এই টিকা।

বিজ্ঞাপন

ইতিমধ্যে যুক্তরাজ্য কোম্পানি দুটি থেকে ৪ কোটি ভ্যাকসিনের আগাম অর্ডার দিয়ে রেখেছে যার মাধ্যমে ২ কোটি মানুষ ভ্যাকসিনটি পাবে। তবে টিকার দেয়ার ক্ষেত্রে ঝুঁকিপূর্ণদের বেশি অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

দেশটির টিকা এবং টিকাদান সম্পকিত যৌথ কমিটি জানিয়েছে, কেয়ার হোমের বাসিন্দারা, স্বাস্থ্যকর্মী, বয়স্ক ব্যক্তি এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর রোগিরা সর্বপ্রথম এই ভ্যাকসিনটি পাবেন।

ফাইজারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যালবার্ট বাউরলা বলেন, করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ব্রিটেনের এই অনুমোদন ঐতিহাসিক ঘটনা। বিজ্ঞান বিজয়ী হবে, এমন ঘোষণা দেয়ার পর থেকে আমরা কাজ করে আসছি। শিগগিরিই আমরা বিশ্বে ১০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন ছাড়বো।

নতুন এই ভ্যাকসিনটি একটি এমআরএনএ ভ্যাকসিন। এতে করোনা ভাইরাসের জেনেটিক কোডের ক্ষুদ্র একটি অংশ রয়েছে, যা শরীরে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ শক্তি তৈরি করবে। এর আগে কখনো মানুষের শরীরে প্রয়োগের জন্য এমআরএনএ ভ্যাকসিন অনুমোদন দেওয়া হয়নি।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানান, ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হলেও সবাইকে এখনও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং মাস্ক পরার পাশাপাশি, আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ থাকলে পরীক্ষা করাতে এবং আইসোলেশনে থাকতে হবে।