চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আগামী মৌসুমে রিয়ালে নাও দেখা যেতে পারে জিদানকে

মাত্রই রিয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে নিজের দ্বিতীয় লা লিগা ট্রফি জিতেছেন জিনেদিন জিদান। প্রিয় ক্লাবের ডাগআউটে ২০২২ সাল পর্যন্ত থাকার চুক্তিও আছে। কিন্তু ফরাসি কোচ বলছেন, সেসময় পর্যন্ত সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে তাকে দেখা যাবে কিনা তা এখনই বলে ফেলাটা অনুচিত।

ফুটবলের অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই ১৯৯৮ বিশ্বকাপজয়ী ফুটবলার বলছেন, আগামী মৌসুমেই তাকে রিয়ালে দেখার কোনো নিশ্চয়তা নেই!

বিজ্ঞাপন

নিজের দ্বিতীয় মেয়াদের পূর্ণ মৌসুমে সুপার কোপা ও লা লিগা জিতে রিয়ালে মোট ১১ শিরোপা অর্জনের রেকর্ড গড়েছেন জিদান। রিয়ালের হয়ে এতগুলো শিরোপার রেকর্ড আছে কেবল মিগেল মুনোজের। চলতি মৌসুমে আরও একটি ট্রফি জয়ের সম্ভাবনা আছে জিদানের। তা জিততে হলে বেশ কঠিন পথও পাড়ি দিতে হবে রিয়ালকে।

বিজ্ঞাপন

আসছে ৭ আগস্ট চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের দ্বিতীয় লেগে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হবে রিয়াল। প্রথম লেগে নিজ মাঠে ২-১ গোলে হেরেছিল লস ব্লাঙ্কোসরা।

বিজ্ঞাপন

আগের মেয়াদে টানা তিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা জিদানের ইউরোপ সেরা হওয়ার রাস্তাটা গার্দিওলার মতোই পরিষ্কারভাবে জানা। তারপরও বৃহস্পতিবার এ নিয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে প্রশ্ন ওঠার পর ফরাসি কিংবদন্তি জানিয়ে দিয়েছেন, ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তার কোনো ধারণাই নেই।

‘কেউ বলতে পারে না ভবিষ্যতে কী হবে। আমি আগামী মৌসুম বা তার পরের বছর নিয়েও কথা বলবো না। আমার চুক্তি আছে আর আমি খুশি। আপনি বলতে পারবেন না পরের মৌসুমে কী হতে পারে।’

‘পৃথিবীতে রাতারাতি ফুটবল পাল্টে যেতে পারে আর আমি জানিও না ভবিষ্যতে কী আছে।’

রোববার ২০১৯-২০ লা লিগার শেষ ম্যাচে ওসাসুনার বিপক্ষে খেলবে রিয়াল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ম্যাচটা জিতে নিজেদের ধারাবাহিকতা ঠিক রাখার দিকে মনোযোগ জিদানের।

‘আমাদের অনুপ্রেরণা খুঁজে নিতে হবে। এটা লিগের খেলা। কিন্তু যখন আপনি রিয়ালের জার্সি পরে মাঠে নামবেন, সব ম্যাচই জিততে হবে। আমরা সব ম্যাচই জিততে চাই।’