চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আইসিসি মিটমাট করে দিয়েছে, খেলোয়াড়দের শাস্তি প্রসঙ্গে আকবর

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনাল শেষে মাঠে বিবাদে জড়ানো ভারতের দুই ও বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটারকে বড় ধরনের শাস্তি দিয়েছে আইসিসি। ম্যাচ রেফারি গ্রায়েম ল্যাব্রয় বাংলাদেশের তৌহিদ হৃদয়, শামীম হোসেন ও রাকিবুল হাসান, আর ভারতের আকাশ সিং ও রবি বিষ্ণয়কে বিভিন্ন মাত্রার সাসপেনশন পয়েন্ট দিয়েছেন। যে কারণে আগামী বেশকিছু ম্যাচ তারা খেলতে পারবেন না।

ফাইনাল ম্যাচের পর উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় বাংলাদেশ ও ভারতের খেলোয়াড়দের মাঝে, একপর্যায়ে ধাক্কাধাক্কির ঘটনাও ঘটে। ম্যাচের পর মাঠে থাকা দর্শকদের পোস্ট করা ভিডিও দেখে অনেকেই ধারণা করছেন ফাইনাল শেষে খুবই ভয়াবহ অবস্থা হয়েছিল মাঠে।

সেদিনের ঘটনা ও শাস্তি প্রসঙ্গে কৌশলী মন্তব্য করেছেন জুনিয়র টাইগারদের অধিনায়ক আকবর আলী। বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফেরার পর আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

আকবর বললেন, ‘আইসিসি মিটমাট করে দিয়েছে। এটাতে আমাদের কারো কোনো হাত নেই। দুই দলই ভুল করেছি। আমাদের কিছু খেলোয়াড় ও ভারতের খেলোয়াড়রা ভুল করেছে। দুই দলই শাস্তি পেয়েছে, এটা সবাই মেনে নিয়েছে। আমার মনে হয় মীমাংসা হয়ে গেছে।’

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান হৃদয় ১০ সাসপেনশন পয়েন্ট পেয়েছেন। যা ছয়টি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। অলরাউন্ডার শামীম পেয়েছেন ৮ সাসপেনশন পয়েন্ট, এটিও ছয় ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। বাঁহাতি স্পিনার রাকিবুল পেয়েছেন চারটি সাসপেনশন পয়েন্ট, যা পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান।

ভারতীয় পেসার আকাশ পেয়েছেন ৮ সাসপেনশন পয়েন্ট, যা ছয়টি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। লেগস্পিনার বিষ্ণয় পেয়েছেন ৫ সাসপেনশন পয়েন্ট, যা পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান।

এক সাসপেনশন পয়েন্ট পেলেই কোনো খেলোয়াড়ের উপর একটি ওয়ানডে বা টি-টুয়েন্টি বা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলায় নিষেধাজ্ঞা থাকে।

বিজ্ঞাপন