চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আইসিইউ থেকে কেবিনে মামাদু

গত রোববার মাঠের এক দুর্ঘটনায় কেঁপে ওঠে দেশের ঘরোয়া ফুটবল অঙ্গন। চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে ম্যাচে মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে যেতে হয় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার মামাদু বা’কে। আঘাত গুরুতর হওয়ায় পরে তাকে রাখা হয় নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে। তিনদিন পেরিয়ে অবশ্য বিপদ কেটেছে। শেখ জামালের ফিজিও সাইফুজ্জামান চয়ন জানালেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আইসিইউ থেকে কেবিনে নেয়া হয়েছে মামাদুকে।

আঘাতের অবস্থা প্রাথমিকভাবে গুরুতর হলেও চ্যানেল আই অনলাইনকে চয়ন জানালেন, আর কোন ঝুঁকি নেই। তবে আবাহনীর বিপক্ষে আগামী ৫ জানুয়ারি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে খেলা হবে না গাম্বিয়ান স্ট্রাইকারের, ‘আজ কেবিনে নেয়া হয়েছে মামাদুকে। ডাক্তার জানিয়েছেন, কালই হয়ত ওকে আমরা বাসায় পৌঁছে দিতে পারব।’

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ২০তম রাউন্ড শেষে শিরোপার দৌড়ে বেশ ভাল অবস্থানে আছে শেখ জামাল। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা ঢাকা আবাহনীর থেকে মাত্র ১ পয়েন্ট পিছিয়ে ধানমন্ডির দলটি। ৫ জানুয়ারি একে অপরের মুখোমুখি হবে এই দুদল। সেই ম্যাচে জয়ী দল এগিয়ে থাকবে শিরোপার লড়াইয়ে।

এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মামাদুর চোট দলের জন্য বড় ক্ষতি। সেটা মানছেন চয়নও। আবার তিন হলুদ কার্ডের খাঁড়ায় আবাহনীর বিপক্ষে এমনিতেই খেলতে পারতেন না গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার, সেটাও মাথায় রাখতে হচ্ছে।

‘মামাদুর এমনিতেই ম্যাচে খেলা হত না। তিনটি হলুদ কার্ড আছে ওর। কিন্তু ওর চোটটা দলের জন্য বেশ ক্ষতিরই হয়ে গেল। সে দারুণ ড্রিবলিং করে, রানিংয়ে দারুণ। ওর বিকল্প এমুহূর্তে দেশিয় খেলোয়াড়দের মধ্যে নেই। ও সবাইকে দারুণ উজ্জীবিতও করতে পারত। বিদেশিদের মধ্যে রাফায়েল, সলোমন থাকার পরও ওর আঘাত পাওয়া দলের জন্য বেশি ক্ষতিই।’

বিজ্ঞাপন