চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অ্যাস্ট্রাজেনেকার অ্যান্টিবডি চিকিৎসা ব্যর্থ

অ্যাংলো-সুইডিশ ওষুধপ্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছে, তাদের মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি চিকিৎসা ‘এজেডডি৭৪৪২’ মূল লক্ষ্য অর্জন করতে পারেনি।

সম্প্রতি করোনাভাইরাসের আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসার পরও করোনার লক্ষণ উপসর্গ প্রতিরোধ করাই ছিলো এই চিকিৎসার মূল লক্ষ্য।

তারা জানিয়েছে, এই ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারীদের সবার বয়স ১৮ বছরের বেশি, তাদের কেউই ভ্যাকসিন গ্রহণ করেনি। তাছাড়া তারা আটদিনের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছে।

কোম্পানির রিপোর্টে বলা হয়েছে, এজেডডি৭৪৪২ চিকিৎসা করোনাভাইরাসে উপসর্গযুক্ত সংক্রমণের হার প্লেসবোর তুলনায় ৩৩ শতাংশ কমায়, যেটা পরিসংখ্যানগতভাবে খুব বেশি তাৎপর্যপূর্ণ নয়।

বিজ্ঞাপন

অ্যাস্ট্রাজনেকোর এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মেনে পাঙ্গালস বলেন, যদিও এই ট্রায়ালটি লক্ষণজনিত অসুস্থতার বিরুদ্ধে প্রাথমিক সীমা পূরণ করেনি, আমরা পিসিআরে নেগেটিভ ফলাফল আসা অংশগ্রহণকারীদের এজেডডি৭৪৪২ চিকিত্সার পরে দেখা দেওয়া সুরক্ষার দিকেই উত্সাহিত করছি।

আগেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংস্পর্শে যাওয়া হয়েছে এমন ব্যক্তিদের নিয়েও পরীক্ষণ চালাচ্ছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা, যেন তীব্র অসুস্থতা এড়ানো যায়।

মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি থেরাপিতে এমন কিছু ওষুধ অন্তর্ভুক্ত করা হয় যা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য শরীরের উত্পাদন করা প্রাকৃতিক অ্যান্টিবডিগুলির অনুকরণে তৈরি।

এজেডডি৭৪৪২ চিকিৎসা পদ্ধতিটি মার্কিন সরকারের সহযোগিতায় তৈরি করা হচ্ছে। মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অন্তত অর্ধমিলিয়ন ডোজের চুক্তির ঘোষণা করে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।  প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, তারা এই চুক্তি বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সাথে আলোচনা করছেন।

বিজ্ঞাপন