চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অসাংবিধানিকভাবে কাউকে ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না: নাসিম

অসাংবিধানিকভাবে কাউকে ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না বলে মন্তব্য করেছেন ১৪ দলে মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী  মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, বিএনপির এখনও দুরভিসন্ধি নিয়ে এগোচ্ছে। তাদের সাম্প্রতিক বক্তব্যে এটা স্পষ্ট। তারা আগামী নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করবে।

আজ সোমবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্কাস পার্টি সভাপতি বেসামরিক বিমান এবং পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

বিজ্ঞাপন

আগামী নির্বাচনে (২০১৯) চৌদ্দ দল ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচন করবে জানিয়ে নাসিম বলেন: পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ১৪ দলও এ নির্বাচন অনুষ্ঠানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা এক সঙ্গে আছি। এবং ১৪ দল আগামী নির্বাচনেও ঐক্যবদ্ধ ভাবে অংশগ্রহণ করবে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু বিএনপির এখনও নির্বাচন বানচালের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে শেখ হাসিনার সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

১৪ দলের সভায় ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবসের স্বীকৃতি দেয়ার ব্যাপারে আলোচনা হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলে বলেন,‘আমাদের আজকের সভায় ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের জন্য সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ১১ মার্চ জাতীয় সংসদ অধিবেশনে জাতীয় ভাবে এ দিবস পালনের জন্য প্রস্তাব আনা হবে। আমরা আশা করছি সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাবটি গ্রহণ করা হবে।

পাকিস্তান এখনও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে অভিযোগ করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পর পাকিস্তান আবারও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অপপ্রচার শুরু করেছে। এর অর্থ হচ্ছে তারা এখনও অনুতপ্ত নয়। আইএসআই’র পৃষ্ঠপোষকতায় পাকিস্তান একটি বই বের করেছে। বইটি তারা বিভিন্ন অ্যাম্বাসিতে বিতরণ করছে। আমাদের এ  ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

ড. মুহাম্মদ ইউনূসের প্রসঙ্গ টেনে এনে তিনি বলেন, যারা দারিদ্র বিমোচনের জন্য ড. ইউনূসকে কৃতিত্ব দেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলবো: এরা বিভ্রান্তি তৈরি করছে। তিনি এমন একজন মানুষ, যিনি পদ্মা সেতুতে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়ন আটকে দিয়েছেন। দারিদ্র বিমোচনের কৃতিত্ব একমাত্র শেখ হাসিনার।