চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডা. অরুপ রতন চৌধুরী ভ্যাকসিন নিচ্ছেন আজ

একুশে পদক জয়ী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. অরুপ রতন চৌধুরী আজ ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। তিনি বলেন মুক্তিযোদ্ধা এবং সন্মুখ সারির যোদ্ধা হিসেবে ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের ভীতি ও ভুল ধারণা দূর করতে চান।

বুধবার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে তিনি এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আমি ভ্যাকসিন নিতে পারলে অন্যদের অনুপ্রাণিত করতে পারব। ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের দুশ্চিন্তা ও ভুল ধারণা রয়েছে সেগুলো দূর হবে। আমি একজন চিকিৎসক, একজন মুক্তিযোদ্ধা ও সোশ্যাল ওয়ার্কার হিসেবে ভ্যাকসিন নিতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি।

টিকা নিতে আসা কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আফরোজা জাহিন বলেন, করোনা যখন শুরু হয়। আমাদের হাসপাতাল তখন সম্পূর্ণ করোনা ডেডিকেটেড ছিল না। তখন ভয় ছিল। সিনিয়ররা কাজ করতে সাহস যুগিয়েছিলেন। যখন আমাদের হাসপাতাল সম্পূর্ণ করোনা ডেডিকেটেড হয়, তখনও আমাদের সব ধরনের সাপোর্ট দেয়া হয়েছে। তবুও ভয় ছিল, যেহেতু এটা ছোঁয়াচে রোগ।

তিনি বলেন, তখন থেকেই স্বপ্নের মতো ছিল, একদিন ভ্যাকসিন আবিষ্কার হবে, আমরাও সেই ভ্যাকসিন পাব। সেই স্বপ্ন আজ বাস্তবায়িত হচ্ছে। একদম প্রথমেই ভ্যাকসিন নিতে এসেছি। একটু ভালো লাগছে, আবার নার্ভাসও লাগছে।

বিজ্ঞাপন

এই চিকিৎসক আরও বলেন, অনেকেই ভয়ে আছেন ভ্যাকসিন নিবে কিনা। আমরা টিকা নেয়ার পর আমাদের কিছুদিন পর্যবেক্ষণ  করা হবে। এরপর সবাইকে টিকা দেয়া শুরু হবে। আমাদের দেখে তারা বুঝতে পারবে, ভ্যাকসিনটা আসলেই সেফ এবং সবাই এই টিকা নিতে পারবে। টিকা নিয়ে করোনাকে পরাজিত করব।

সার্জন ল্যাবটেক (মেডিকেল টেকনোলজিস্ট) আব্দুর রহিম সেনাবাহিনীর পক্ষের প্রতিনিধি হিসেবে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। তিনি বলেন, আমার কাছে খুব ভালো লাগছে। আমরা প্রথমে ভ্যাকসিন নিতে এসেছি। এটা আমাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল ভ্যাকসিন নিতে চাই কিনা, আমি রাজি হয়েছি। ভ্যাকসিন দিতে এসে কোনো ভয় পাচ্ছি না।

তিনি আরও বলেন, এই ভ্যাকসিন আমরা প্রথমে নিচ্ছি। এরপর আমাদের দেখে অনেকেই উদ্বুদ্ধ হবে।

এছাড়াও কেন্দ্রীয়র পুলিশ হাসপাতালের  ইমাজের্ন্সি মেডিকেল অফিসার এবং নার্সিং অফিসার মোশাররফ হোসেন আজ ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। তিনি বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে পুরো দেশবাসী এবং সাধারণ মানুষের অনুপ্রেরণা জোগাতে চাই।

রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে আজ বিকাল সাড়ে তিনটায় নির্বাচিত কয়েক শ্রেণি-পেশার মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়ার মাধ্যমে করোনা টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হবে। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন।