চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অবশেষে প্রেক্ষাগৃহে আসছে ‘গন্তব্য’

অবশেষে ১৯ মার্চ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে অরণ্য পলাশ পরিচালিত বহুল আলোচিত সিনেমা ‘গন্তব্য’

‘বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ’-স্লোগান নিয়ে ২০১৭ সালের মাঝামাঝিতে চোখে পড়ে একটি পোস্টার। না, কোনো রাজনৈতিক পোস্টার ছিলো না সেটা। বরং তা ছিলো একটি সিনেমার পোস্টার। নির্মাতা অরণ্য পলাশের প্রথম সিনেমা ‘গন্তব্য’। পোস্টারের পর আসে টিজার। এরপর নানা কারণে ছবিটি কয়েক দফায় আসে আলোচনায়।

বহুল আলোচিত সেই ‘গন্তব্য’ অবশেষে মুক্তি পাচ্ছে প্রেক্ষাগৃহে। ১৯ মার্চ দেশব্যাপী ছবিটি মুক্তির কথা নিশ্চিত করেছেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আনোয়ার আজাদ ফিল্মস এর কর্ণধার আনোয়ার আজাদ। তবে প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তির দুদিন আগে, অর্থ্যাৎ ১৭ মার্চ ছবিটির প্রিমিয়ার হবে বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভিতে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ছবিটির মুক্তি নিয়ে সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় একটি সংবাদ সম্মেলন। সেখানেই এসব তথ্য জানান ছবিটির সাথে সংশ্লিষ্টরা। জানানো হয়, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে দেশের আরও কয়েকটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে ছবিটির সম্প্রচার করা হবে। এসময় কানাডা থেকে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন ছবিটির প্রযোজক আনোয়ার আজাদ।

এক ভিডিও বার্তায় আনোয়ার ফিল্মস এর এই কর্ণধার জানান, ‘গন্তব্য’ ছবিটি অনেক উত্থান পতনের মধ্য দিয়ে অবশেষে সিনেমা হলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। নানা কারণেই এর দীর্ঘসূত্রিতা। তাই বলে কেউ মনে করবেন না, ‘গন্তব্য’ ছবিটি গত দুই বছর এমনি এমনি বসে ছিলো। আসলে গত দুই বছরে ছবিটি তিনটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শীত হয়েছে। দুটি ভারতে এবং একটি ইংল্যান্ডে। আমি মনে করি, এটি ‘গন্তব্য’র জন্য বড় অর্জন।

বিজ্ঞাপন

এরআগে কানাডা প্রবাসী এই প্রযোজক ‘মায়াবতী’ নামে একটি সিনেমা প্রযোজনা করেছেন। যা নির্মাণ করেছেন অরুণ চৌধুরী। তিশা-ইয়াশ রোহান অভিনীত ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে প্রশংসিত হয়েছিলো। আনোয়ার আজাদ বলেন, আগামি আমি নিয়মিত সিনেমা প্রযোজনা করতে চাই।

গন্তব্য চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্য

সংবাদ সম্মেলনে চলচ্চিত্রটির বিস্তারিত তুলে ধরের নির্মাতা অরণ্য পলাশ, অভিনেতা ফেরদৌস, চিত্রনায়িকা আইরিন, আমান রেজা, আফফান মিতুল, এম এইচ হিমু, এলিনা শাম্মি, কাজী শিলা, কণ্ঠশিল্পী ঐশি প্রমুখ।

ছবিটি নির্মাণকালের নানা জটিলতা ও বাধা বিপত্তি তুলে ধরারর পাশাপাশি প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে সিনেমাটি দেখার জন্য সংবাদ সম্মেলনে দর্শকদের অনুরোধ জানান এটির শিল্পী ও কলাকুশলীরা। সবশেষে ছবিটির উল্লেখযোগ্য অংশ প্রদর্শন করা হয়।