চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অবশেষে নির্বাচন কমিশনের শুভবুদ্ধির উদয়

অবশেষে নির্বাচন কমিশন করোনা সংক্রমণের বিষয়টি মাথায় রেখে ১৬৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করেছে। একইসঙ্গে তিনটি সংসদীয় আসনের ভোট পিছিয়ে দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জাতীয় সংসদের তিনটি আসন: কুমিল্লা-৫, ঢাকা-১৪ ও সিলেট-৩ এ উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিল ১৪ জুলাই। তারিখ পরিবর্তন করায় এখন এই আসনে ভোট হবে ২৮ জুলাই। তবে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন ২১ জুন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। আর ১৬৩টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এখানে আগামী ২১ জুন ভোট হওয়ার কথা ছিল।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এছাড়া নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষিত ১১টি পৌরসভার মধ্যে ৯টির ভোট স্থগিত করা হয়েছে। দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ ও ঝালকাঠি পৌরসভার ভোট যথাসময়ে হবে। স্থগিত হওয়া ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে আছে বাগেরহাটের ৬৮টি, খুলনার ৩৪টি, সাতক্ষীরার ২১টি, নোয়াখালীর ১৩টি, চট্টগ্রামের ১২টি এবং কক্সবাজারের ১৫টি। ২১ জুন মোট ৩৬৭টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ১৬৩টি স্থগিত হলেও বাকি ২০৪টিতে ভোট যথাসময়ে হবে। ভোট স্থগিত হওয়া এলাকাগুলোয় স্থানীয় সরকারের সব ধরনের নির্বাচনও স্থগিত থাকবে। ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫ ও সিলেট-৩ সংসদীয় আসনের উপ নির্বাচন ১০ দিন পিছিয়ে ২৮ জুলাই করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ তিন উপনির্বাচন ১৪ জুলাই হওয়ার কথা ছিল।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কঠিন সময়ে জাতীয় সংসদ ও সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন করে সমালোচনার মুখে পড়েছিল নির্বাচন কমিশন। এমন পরিস্থিতিতেও নির্বাচন পরিচালনা করায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ভীতির সঞ্চার হয়। দেশের সচেতন মহল এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হলেও কমিশন নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকে। সাম্প্রতিককালে সারাদেশে করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে ফলে এই মুহূর্তে নির্বাচন কমিশন নির্বাচন না করে একটি শুভ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এমন উদ্যোগের জন্য আমরা নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা আশা করবো, ভবিষ্যতেও দেশের দুর্যোগ মুহূর্তে নির্বাচন কমিশন এই ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করে শুভবুদ্ধির প্রকাশ ঘটাবে।

বিজ্ঞাপন