চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অবশেষে নওশাদের কাছে ক্ষমা চাইলেন রিয়াজ-মিশা

অবশেষে প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ও মধুমিতা সিনেমা হলের মালিক ইফতেখার নওশাদের উপর অনাকাঙ্ক্ষিত হামলার কারনে তার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাইলেন শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, নায়ক রিয়াজ ও প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু।

চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘চলচ্চিত্র পরিবার’ রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে রোববার দুপুরে একটি মিলন মেলার আয়োজন করে। মূলত প্রদর্শক সমিতির সঙ্গে দূরত্ব ঘোচাতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন বলে মনে করা হচ্ছে।

শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর অনুষ্ঠানে বক্তব্যে বলেন, আমি দুবার হজ্জ করে আসা মানুষ। সেদিনের অকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় আমি ছিলাম না। তারপরও আমি সেদিনের ঘটনার জন্য আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি। প্রায় একই স্বরে কথা বলেন প্রভাবশালী প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু ও নায়ক রিয়াজ।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে মধুমিতা হলের মালিক ও হল মালিক সমিতির সভাপতি ইফতেখার নওশাদ আরো বলেন, রোজার দিনের সে ঘটনায় অনেক কষ্ট পেয়েছিলাম। আমার মত মানুষের ওপর হামলায় আমার ছোট ভাই দুঃখ পেয়ে সিনেমা ব্যবসা থেকেই সরে যেতে বলেছিল। কিন্তু আজ সব ক্ষোভ মন থেকে দূর করে দিলাম। রাগ আগেই ঝেড়ে ফেলেছিলাম যখন ফারুক ভাই নিজের বাসায় ডেকে বিষয়টা মিটমাট করেছিলেন। কারণ আমার বড় ভাইয়ের নামও ছিল ফারুক। তিনি মারা যাওয়ার পরে এই ফারুক ভাই আমাকে বলেছিলেন কোন প্রয়োজন হলে বড় ভাইয়ের জায়গায় আমাকে ভাববে।

চলচ্চিত্র পরিবারের এই মিলন মেলার অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সৈয়দ হাসান ইমাম, আমজাদ হোসেন, সোহেল রানা, আজিজুর রহমান, সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, অঞ্জনা, ইলিয়াস কাঞ্চন, অরুণা বিশ্বাস, সোহানুর রহমান সোহান, মোহাম্মদ হোসেন জেমী, শিল্পী, নাসরিন, জায়েদ খান, সায়মন, ইমনসহ হল মালিক ও চলচ্চিত্র পরিবারভুক্ত ১৮ টি সংগঠনের সদস্যরা।

২১ জুন চলচ্চিত্র পরিবারের সেন্সর বোর্ড ঘেরাও কর্মসূচী থেকে সেন্সর বোর্ডের সদস্য ইফতেখার নওশাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এমন ঘটনার পর সুষ্ঠু বিচার দাবী করে রিয়াজ, মিশা, জায়েদ, বদিউল ইসলাম খোকন, গুলজার এবং খসরুর সিনেমা প্রেক্ষাগৃহগুলোতে নিষিদ্ধ করে হল মালিক সমিতি।

বিজ্ঞাপন