চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অপহৃত হওয়ার ভয়ানক অভিজ্ঞতা জানালেন ডাফি

গ্র্যামি-পুরস্কার জয়ী গায়িকা ডাফি সোশ্যাল মিডিয়ায় জানালেন তার জীবনের এক ভয়ানক অধ্যায়ের কথা। ভক্তদের কাছে তিনি প্রকাশ করেছেন কীভাবে তিনি অপহরণ ও ধর্ষণের শিকার হন।

ভ্যারিফায়েড ইনস্টাগ্রাম পেজে ডাফি জানান, দিনটি ছিল তার জন্মদিন। রেস্তোঁরায় মাদক সেবন করিয়ে মাতাল করা হয় তাকে। এরপর চার সপ্তাহ তাকে মাদক সেবন করানো হয়। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় তাকে অন্য একটি দেশে নেয়া হয়। বিমান ভ্রমণ ও গাড়িতে চড়ার সময়ের কথা তার কিছুই মনে নেই। বিদেশে তাকে একটি হোটেল কক্ষে বন্দী করে রাখা হয়। সেখানে তিনি ধর্ষণের শিকার হন।

বিজ্ঞাপন

ডাফি জানিয়েছেন, অপহরণকারীর সাথেই তিনি ফিরে আসেন। সেই ব্যক্তি তাকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল। তাই প্রথমে পুলিশের কাছেও যেতে ভয় পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পরে সাহস সঞ্চয় করে এক নারী পুলিশ অফিসারের কাছে সব জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, প্রচণ্ড মানসিক চাপের কারণে আত্মহত্যার ঝুঁকি ছিল তার। এই ঘটনার পর ১০ বছর পুরোপুরি একা ছিলেন তিনি। তবে এখন মানসিক ধকল কাটিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন। শিগগির কাজে ফেরার ইচ্ছাও আছে তার।

২০১০ সালে প্রকাশিত হয় ডাফির অ্যালবাম ‘এন্ডলেসলি’। এরপর আর কোনো গান করেননি তিনি। ডাফির দুইটি বিখ্যাত একক অ্যালবাম হচ্ছে- রকফেরি (২০০৭) ও মার্সি (২০০৮)। -বিবিসি