চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অন্যের দায় নিজের ঘাড়ে নিতে নিতে ‘ক্লান্ত’ মেসি

বার্সেলোনার হয়ে সময়টা ভালো যাচ্ছে না লিওনেল মেসির। দলের পারফরম্যান্স যাচ্ছেতাই, নিজের পায়েও চলছে গোলখরা। আবার সমালোচনাকারীরাও ঘিরে বসে আছে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে। ক্লাব সতীর্থ অ্যান্টনিও গ্রিজম্যানের ফর্মহীনতার জন্য তো মেসিকেই দায়ী করে বসে আছেন ফরাসি ফরোয়ার্ডের এজেন্ট এরিক অলহাটস। ক্ষোভে, বিরক্ত হয়ে বার্সা মহাতারকা তাই বলেই বসলেন, এসব শুনতে শুনতে ভীষণ ক্লান্তি পেয়ে বসেছে তাকে।

নেইমারের বিকল্প হিসেবে বার্সায় এসে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ২০১৮ বিশ্বকাপজয়ী গ্রিজম্যান। দুমৌসুমে পেয়েছেন মাত্র ১৫ গোল। যার পেছনের কারণ হিসেবে ফরাসি ফরোয়ার্ডের কোনো দায় দেখছেন না গুরু ও এজেন্ট অলহাটস। ফ্রান্স ফুটবলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে গ্রিজম্যানের নিষ্প্রভ থাকার দায়টা অধিনায়ক মেসির কাঁধে তুলে দিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

‘অ্যান্টনিও এক বিপর্যস্ত ক্লাবে এসেছে, যেখানে সবকিছুতে মেসি নজর রাখে। সে এখানে একইসঙ্গে রাজা ও সম্রাট, অ্যান্টনিওর আসাটা সে ভালোভাবে নেয়নি। মেসির আচরণ দুঃখজনক। সবসময় শুনছি যে মেসির সঙ্গে অ্যান্টনিওর কোনো সমস্যা নেই, কিন্তু ভালোও তো নয়। সেখানে ত্রাসের সাম্রাজ্য চলছে। হয় মেসির পক্ষে যাবেন নয়তো তার বিরুদ্ধে।’

বিজ্ঞাপন

‘গত মৌসুমে যখন গ্রিজম্যান এলো, মেসি তার সঙ্গে কথা বলেনি এবং পাসও দেয়নি। বুঝতে পারছিলাম সে ওখানে মানিয়ে নিতে পারছে না।’

অলহাটসের এমন মন্তব্যের পক্ষে-বিপক্ষে মেসির জবাব চাইতে বার্সেলোনার এল প্রাত বিমানবন্দরে অপেক্ষায় ছিলেন সাংবাদিকরা। ৩৩ বছর বয়সী তারকা কাছে জবাব চাইতেই বিরক্তি চেপে রাখতে পারেননি তিনি, ‘ক্লাবে অন্যের দায় নিতে নিতে আমি ক্লান্ত!’

বিমানবন্দরেও সময়টা ভালো কাটেনি মেসির। বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব শেষে আর্জেন্টিনা থেকে ১৫ ঘণ্টার ফ্লাইট শেষে এল প্রাতে নামার পর তাকে জবাবদিহি করতে হয়েছে স্প্যানিশ কর কর্তৃপক্ষের কাছেও। মেসি ও তার ব্যক্তিগত বিমানের পাঁচ ফ্লাইট ক্রুর কর প্রদানের বৈধ কাগজপত্র চেয়ে বসে স্প্যানিশ কর কর্তৃপক্ষ। এসময় তাকে বিমান ও ক্রুদের করও প্রদান করতে হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট বিরক্তি দেখা গেছে মেসির মধ্যে।

‘১৫ ঘণ্টা ফ্লাইট শেষে আমাকে কর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আসতে হল। যতসব পাগলামি!’