চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অনলাইন গেমে আসক্ত হয়ে মা-বাবা, বোনকে হত্যা

অনলাইনভিত্তিক গেম ‘পিইউবিজি (প্লেয়ার আননোনস ব্যাটেলগ্রাউন্ডস)’-এ আসক্ত হয়ে মা- বাবা এবং বোনকে হত্যা করেছে সুরজ সারনাম ভার্মা নামের ১৯ বছরের এক ভারতীয় কিশোর।

বুধবার সকালে ভারতের নয়াদিল্লিতে এই নৃশংস ঘটনা ঘটে। কিন্তু এমন ঘটনার পরও কিশোরের কোন অনুশোচনা নেই বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

পুলিশের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, স্বপ্ন পূরণে সুরজ সারনামকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি করিয়েছিল বাবা, কিন্তু ছেলে কিছুদিনের মধ্যেই জনপ্রিয় হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে অনলাইন গেইম ‘পিইউবিজি’ আসক্ত হয়ে পড়ে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, ‘ভার্সিটির ক্লাস ফাঁকি দিয়ে বন্ধুর ভাড়া করা রুমে সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সে এই গেম খেলত। তাদের ৯ থেকে ১০ জনের একটা গ্রুপ ছিল। গ্রুপে কিছু মেয়েও ছিল। তারা হোয়াটসঅ্যাপের কথা বলার পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার প্ল্যানও করত।

প্রথমে তার বাবা মীথিলেশ, মা সিয়া এবং বোনকে হত্যা করার পর সুরজ ঘরের সব কিছু উলটপালট এবং ভাঙচুর করে রাখে, যাতে এটা ডাকাতের কাণ্ড সন্দেহ করে তাকে ধরা না পড়তে হয়। পরে দিল্লি পুলিশ বুধবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নেয়।’

এর আগে ২০১৭ সালে আত্মঘাতি গেম ‘ব্লু-হোয়েল’ বা ‘নীল তিমি’র ঝড় উঠেছিল। ব্লু-হোয়েলের আতঙ্ক থেকে বের হতে না হতেই আবার নতুন করে ইন্টারনেট জগতে ঝড় তুলে এই গেম।

অনলাইনে এ ধরনের গেমগুলোকে মরণঘাতী সাইকোলজিক্যাল গেম বলে উল্লেখ করছেন বিশ্লেষকরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মেসেজের মাধ্যমে এ গেম খেলার আমন্ত্রণ দেয়া হয়ে থাকে।