৭ মার্চ

১৯৭১ সালের ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর দেয়া ঐতিহাসিক ভাষণ সারা দেশের রাস্তা-ঘাট, ঘর-বাড়িতে মাইকে বাজানোয় তার সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী। মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম আয়োজিত তারেক রহমানের ১১ তম কারাবন্দি দিবস উপলক্ষে ‘ভুলুণ্ঠিত গণতন্ত্র, নিষ্পেষিত জনগণ, ভঙ্গুর অর্থনীতি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তার ভাষণে এ সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘আজ ৭ মার্চ। পাড়ায়-মহল্লায় মাইক বাজছে। এ নিয়ে কত হইচই। রাস্তা-ঘাটে সর্বত্র মাইকের আওয়াজ। তাদের মাইক বাজাতে কোন অনুমতি লাগে না। অথচ আমাদের মাইক বাজানোর, মিছিল, মিটিং, সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হয় না। এটাই হলো আওয়ামী লীগের চরিত্র। গণতা্ন্ত্রিক দেশে এমন বৈষম্য চলতে

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ০৭ মার্চ ২০১৭ ১৯:৫৬

ঐতিহাসিক ৭ মার্চে দেয়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণটি বিশ্বের ইতিহাসের একটি অনন্য সাধারণ ভাষণ। এই ভাষণের বহুমাত্রিক বিশেষত্ব রয়েছে। মাত্র ১৯ মিনিটের ভাষণ। এই স্বল্প সময়ে তিনি ইতিহাসের পুরো ক্যানভাসই তুলে ধরেন। তিনি তাঁর ভাষণে সামরিক আইন প্রত্যাহার, জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর, গোলাগুলি ও হত্যা বন্ধ করে সেনাবাহিনীকে ব্যারাকে ফিরিয়ে নেয়া এবং বিভিন্ন স্থানের হত্যাকান্ডের তদন্তে বিচার বিভাগীয় কমিশন গঠনের দাবি জানান। মঙ্গলবার ৭ মার্চ ভাষণের ৪৬ বছর পূর্ণ হল। এই ভাষণ এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের সাইটগুলোতে চলছে স্মৃতি চারণ ও শ্রদ্ধানিবেদন। অনেকে এই দিনটি নিয়ে পোস্ট ও ছবি শেয়ার দিচ্ছেন। তেমনই একজ

আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ। ১৯৭১ সালের এইদিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষণা করেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ সেই দিনের সেই ভাষণের উত্তাল সময়কে

By তানভীর আশিক on মঙ্গলবার, ০৭ মার্চ ২০১৭ ০৮:৪৪

একটি কবিতা লেখা হবে তার জন্য অপেক্ষার উত্তেজনা নিয়ে লক্ষ লক্ষ উন্মত্ত অধীর ব্যাকুল বিদ্রোহী শ্রোতা বসে আছে ভোর থেকে জনসমুদ্রের উদ্যান সৈকতে কখন আসবে কবি? এই শিশুপার্ক সেদিন ছিল না, এই বৃক্ষে ফুলে শোভিত উদ্যান সেদিন ছিল না, এই তন্দ্রাচ্ছন্ন বিবর্ণ বিকেল সেদিন ছিল না তাহলে কেমন ছিল সেদিনের সেই বিকেল বেলাটি? তাহলে কেমন ছিল শিশু পার্কে বেঞ্চে বৃক্ষে ফুলের বাগানে ঢেকে দেয়া এই ঢাকার হৃদয় মাঠখানি? জানি, সেদিনের সব স্মৃতি মুছে দিতে হয়েছে উদ্যত কালো হাত। তাই দেখি – কবিহীন এই বিমুখ প্রান্তরে আজ কবির বিরুদ্ধে কবি, মাঠের বিরুদ্ধে মাঠ, বিকেলের বিরুদ্ধে বিকেল, উদ্যানের বিরুদ্ধে উদ্যান মার্চের বিরুদ্ধে মার্চ......। হে অনাগত শিশু, হে আগামী দিনের কবি, শিশুপার্কের রঙ্গিন দোলনায় দোল খেত

By চ্যানেল আই অনলাইন on সোমবার, ০৬ মার্চ ২০১৭ ২২:২৩