আ ক ম মোজাম্মেল হক

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, চিহ্নিত ১৯৫ জন পাকিস্তানী যুদ্ধাপরাধীর বিচার করা হবে। এজন্য প্রয়োজনে আর্ন্তজাতিক আদালতে যাওয়া হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশী মানবতাবিরোধীদের বিচার হলেও পাকিস্তানী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এখনও সম্ভব হয়নি। তবে তাদের বিচারও করা হবে। মন্ত্রী আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে বাংলাদেশ গণ আজাদী লীগ আয়োজিত মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মঞ্চ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন। মন্ত্রী বলেন, দীর্ঘদিন স্বাধীনতা বিরোধীরা ক্ষমতায় থাকায় জঙ্গিবাদ পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েছে। তবে বর্তমান সরকার জঙ্গিবাদ নির্মূল করে সকল ধর্মের মানুষের সমঅধিকার নিশ্চিত করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠনে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গণ আজ

By চ্যানেল আই অনলাইন on সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৬ ১৯:২৯

মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্যের জন্য বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া জাতির কাছে ক্ষমা না চাইলে তার সঙ্গে কোনো আলোচনা নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আলবদর প্রধান মতিউর রহমান নিজামীর ফাঁসির রায় ঘোষণার আগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণঅবস্থান কর্মসূচিতে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে জনগণ এর জবাব দেবে। গণঅবস্থানে নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেন।যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় দ্রুত কার্যকরের দাবিতে জয় বাংলা মঞ্চ এবং বঙ্গবন্ধু নাগরিক সংহতি পরিষদও মানববন্ধন করেছে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সময় অনেক মুক্তিযোদ্ধার লাশ খালে-বিলে ভাসতো। তাদের জানাজা করতে দেওয়া হয়নি, তাদের কপালে জানাজা জোটেনি। তাই যুদ্ধাপরাধীদের বাংলার মাটিতে প্রকাশ্যে জানাজা করতে দেওয়া হবে না। যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় সংগীত গাওয়া হবে না ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে না, সে সব প্রতিষ্ঠান জ্বালিয়ে ও ধ্বংস করে দেওয়া হবে।’অাজ মঙ্গলবার নবনির্মিত টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন শেষে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আগামী ঈদ-উল ফিতর ও ঈদ-উল আযহাসহ সকল উৎসবে মুক্তিযোদ্ধাদের ১০ হাজার টাকা করে উৎসব বোনাস দেওয়া হবে। প্রতি উপজেলায় যে সব খাস জমি রয়েছে সে সমস্ত জমিতে মুক্ত

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ব্যক্তিগতভাবে বা বিছিন্নভাবে জঙ্গী সংগঠন ইসলামী স্টেট-আইএস এদেশে থাকতে পারে। তবে সংঘবদ্ধভাবে এদেশে আইএস থাকতে পারে বলে মনে করে না সরকার।বাংলাদেশ আইএস জঙ্গী রয়েছে যুক্তরাজ্যের এমন বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আজ রোববার মেহেরপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধনের পর মন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। তাই একাত্তরের পরাজিত শক্তির যারা তারা বিষয়টি মেনে নিতে পারছে না।তিনি বলেন, দুই বিদেশী হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র থাকতে পারে। এর সঙ্গে জামায়াত বিএনপি জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে সরকার।মন্ত্রী আরো বলেন, ঐতিহাসিক মুজিবনগর কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজ আবারো শুরু হয়েছে। আগামী ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবসের আ