আওয়ামী লীগ-যুদ্ধাপরাধী

জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে এক সংগঠনের দুই কমিটি, দলীয় প্রার্থীর বিপরীতে একাধিক দলীয় নেতাদের স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ওঠা ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষীয় রাজনৈতিক দলে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী আলবদর রাজাকার ও তাদের সন্তানদের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে যাওয়া প্রভৃতি গঠনতান্ত্রিক দুর্বলতা কিংবা দলীয় নেতাকর্মীদের গঠনতন্ত্র উপেক্ষারই ফল।চলমান ইউপি নির্বাচনে খোদ আওয়ামী লীগেই রাজাকারের সন্তানদের দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তির ঘটনা ঘটছে। এগুলো গণমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলাও করে প্রচারিত হলেও তা নিরসনে দলীয় কোন তৎপরতা পরিলক্ষিত ক্ষীত হচ্ছে না।যে কোন রাজনৈতিক দল পরিচালনার মেইন সুইচ হচ্ছে তার গঠনতন্ত্র। গঠনতন্ত্রই পারে বিপথগামী হওয়া দল ও দলীয় নেতাদের সুপথগামী করতে। স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ রাজনৈতিক

By এখলাসুর রহমান on বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০১৬ ১৯:২৩