অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত

বর্তমান সরকার কৃষিবান্ধব উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, কৃষিতে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। শনিবার সকালে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি উদ্বোধন করে এ কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমাদের অর্থনীতির মূলভিত্তি হলো কৃষি। দিন দিন আমাদের জমির পরিমাণ কমছে, তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে খাদ্যের চাহিদা। বর্তমান সরকারের কার্যকরী পদক্ষেপের ফলে আমরা খাদ্যশষ্য বিদেশে রপ্তানি করছি। অর্থমন্ত্রী বলেন, কৃষিতে আধুনিক প্রযুক্তির সর্বোচ্চ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে কৃষিবিদদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। আর এক্ষত্রে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা অনস্বীকার্য। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবা

By চ্যানেল আই অনলাইন on শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭ ১৬:২০

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খালেদার জিয়ার উকিল নোটিশ দেয়া ঠিক হয়নি বলে আমি মনে করি। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালের ফলক উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমনটি বলেন। সৌদিতে খালেদা জিয়ার অবৈধ সম্পদ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী যে অভিযোগ করেছেন, নিশ্চয়ই তার পেছনে যথেষ্ট তথ্য আছে এবং সেটা প্রমান করা যাবে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়ার উকিল নোটিশের জবাব যথাযথ আইনী পদক্ষেপের মাধ্যমে দেওয়া হবে। উকিল নোটিশ উকিলরাই দেখবেন, আইনগতভাবে তার জবাব দেওয়া হবে। এসময় সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য প্ররফেসর ড. মো. গোলাম শাহী আলমসহ সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামীলী

By চ্যানেল আই অনলাইন on শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭ ১৩:০২

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, মিয়ানমার সরকারই রোহিঙ্গা সংকট সৃষ্টি করেছে। দুর্গার মাধ্যমে যেভাবে অসুরের নিধন হয়েছে, সেভাবেই মিয়ানমার সরকারের অমানবিক কর্মকাণ্ড দমন হবে। সিলেটের লাক্কাতুরা ও মালনিছড়া চা বাগানে পুজামন্ডপ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির উপর মিয়ানমার সরকারের নির্যাতন আসুরিক আচরণ’। পুজামন্ডপ পরিদর্শন শেষে অর্থমন্ত্রী দরিদ্র চা শ্রমিক সদস্যদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও মন্ডপে আর্থিক অনুদান প্রদান করেন। পূজা উপলক্ষে খাদিম নগর ও দেবপুর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও সেখানে আয়োজিত পৃথক অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, বিগত দিনে সরকার দেশে অশুভ শক্তিকে কঠোর হাতে দমন করেছে। যারা মানুষের সুখ শান্তিকে বিনষ্ট করার লক্ষ্যে বিভিন্ন

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৮:৪৬

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াব নেতাদের নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু  দুপুর দেড়টার দিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে আসার পর আড়াই ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়।  আড়াই

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ০৮ অগাস্ট ২০১৭ ২২:৫৯

বাস্তবতা যাই হোক, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য বেতন কাঠামোর দরকার নেই, কারণ তারা সরকারি চাকরিজীবীদের চেয়ে বেশী বেতন পান। মঙ্গলবার সচিবালয়ে সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াবের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াব নেতারা ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এবং  অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত দুপুর দেড়টার দিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে আসার পর আড়াই ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়। তবে ওই বৈঠকে সাংবাদিকদের বেতন কাঠামো নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বৈঠকের ছবি নিতে না দিলেও অপেক্ষা করেন সাংবাদিকরা। আড়াই ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে নোয়াব নেতারা কথা না বললেও কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। সংবাদপত্রর কর্মীদের নিয়মমাফিক বেতন বাড়ানোর ব্যবস্থাপনা নবম ওয়েজ বোর্ডের দ

By সঞ্জয় চাকী on মঙ্গলবার, ০৮ অগাস্ট ২০১৭ ১৯:১২

প্রাক বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে রাজনৈতিক তর্কে জড়িয়েছেন বিএনপির সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এবং অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে 'কেমন বাজেট চাই' ২০১৭-২০১৮ শীর্ষক অনুষ্ঠানে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির তথ্য নিয়ে তারা তর্কে জড়ান। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে এনটিভি ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সেখানে এফবিসিসিআইর সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের প্রবৃদ্ধি বাড়ছে। অর্থনীতি তরতর করে এগিয়ে যাচ্ছে। এ সময় অর্থনীতির সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরে দুইটি ভিডিও চিত্রও প্রদর্শন করা হয়। মাতলুবের কথার রেশ ধরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমু

By জসিম উদ্দিন বাদল on মঙ্গলবার, ০২ মে ২০১৭ ২২:১০

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দাবির মুখে টাইম স্কেল, সিলেকশন গ্রেড বহাল রাখার ব্যাপারে বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে প্রকৃচি-বিসিএস সমন্বয় কমিটির সঙ্গে বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নেদারল্যান্ডস থেকে ফেরার পর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে। তবে ক্যাডার সার্ভিসে বৈষম্য এবং অনিয়ম একবারে সমাধান সম্ভব নয় বলে স্বীকার করেছেন তিনি।প্রকৌশলী, কৃষিবিদ এবং চিকিৎসকদের সমন্বিত কমিটি প্রকৃচি এবং বিসিএস কর্মকর্তাদের একীভূত জোট প্রকৃচি-বিসিএস সমন্বয় কমিটির নেতারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও কে সর্বময় ক্ষমতা দিয়ে জারি করা সরকারের অফিস আদেশ প্রত্যাহারেরও দাবি জানান।জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী ২৮টি ক্যাডার সার্ভিসে ক

ভ্যাটের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যেনো কৌশলে টিউশন না বাড়ায় সেদিকে শুধু নজর রাখা নয়, প্রয়োজনে প্রতিরোধের জন্য শিক্ষার্থীদের আহবান জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি বলেন, উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনায় মন্ত্রণালয়গুলোর বাড়তি চাহিদা মেটাতে গিয়েই ভ্যাটের আওতা সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। স্কুল বির্তক প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ভ্যাট বিষয়ে তার কথা নানাভাবে বিকৃত হচ্ছে। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ভ্যাট দেবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তাই এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রয়োজন নেই। বরং এই সুযোগে প্রতিষ্ঠানের দায় যেনো শিক্ষার্থীদের চাপিয়ে না দেয়া হয় সেজন্য শিক্ষার্থীদের সর্তক থাকতে হবে।ভ্যাটের আওতা কেনো বাড়ছে তার ব্যাখ্য

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা অজ্ঞতার কারণে আন্দোলন করছেন বলে যে মন্তব্য করেছিলেন তার জন্য দু:খ প্রকাশ করেছেন। ওই বক্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, আমার বলা উচিত ছিলো তারা সঠিক তথ্য জানেন না। আমার বলতে চেয়েছিলাম 'আনইনফর্মড' শব্দটি। সিলেট জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিষয়টি নিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, 'আমি যেভাবে বক্তব্য দিয়েছি তাতে অবশ্যই শিক্ষকদের মানহানি হয়েছে। আমি গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আমার বক্তব্য যেভাবে সংবাদ মাধ্যমে এসেছে তা অনভিপ্রেত। আমি চাই এই বিষয়ে ভুল বোঝাবুঝির সমাপ্তি হোক।'তিনি আরও বলেন, 'আমি বলেছিলাম, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা অকারণে আন্দোলন করছেন। দেশের সবচেয়ে শিক্ষিত গোষ্ঠি সরকারি সিদ্ধান্ত না জে

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, অবকাঠামো ঠিক করে আঞ্চলিক যোগাযোগ পুরোপুরি শুরু হতে বছর খানেক সময় লাগবে। এ দিকে অবকাঠামো উন্নয়নে যে ব্যয় হবে তার ভিত্তিতে শুল্ক নির্ধারিত হবে বলেও জানান