অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের অনুসন্ধান বন্ধে ‘সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের’ দেওয়া চিঠির বৈধতা প্রশ্নে জারি করা রুল পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার সাতটি পর্যবেক্ষণ দিয়ে রায় দেন। আদালত তার পর্যবেক্ষণে বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদকে দেওয়া ওই চিঠি সুপ্রিম কোর্টের মতামত  নয়। এটা  প্রশাসনিক ক্ষমতাবলে আপিল বিভাগের অফিস থেকে দেয়া চিঠি। এই চিঠি জনগণের মাঝে এই বার্তা দিয়েছে যে, একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির ফৌজদারি কর্মকাণ্ড দায়মুক্তি পেতে পারেন। বস্তুত কেবল পদে থাকাকালীন রাষ্ট্রপতি ছাড়া কেউ দায়মুক্তি পেতে পারেন না। পর্

By এস এম আশিকুজ্জামান on মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ১৭:৫৮

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের অনুসন্ধান বন্ধে ‘সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের’ দেওয়া চিঠির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টের রায় মঙ্গলবার। সোমবার প্রকাশিত হাইকোর্টের কার্যতালিকায় মঙ্গলবারের রায়ের বিষয়টি জানা যায়। এর আগে গত ৩১ অক্টোবর এ সংক্রান্ত রুলের শুনানি শেষে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমান রাখেন। এ মামলায় আদালতে অ্যামিকাস কিউরি (আদালতের বন্ধু) হিসেবে পরামর্শ দেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। অ্যাডভোকটে প্রবীর নিয়োগী ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সম্পাদক অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন। এ মামলায় দুদকের পক্ষ

By এস এম আশিকুজ্জামান on সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭ ১১:৫১

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের অনুসন্ধান বন্ধে ‘সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের’ দেওয়া চিঠির বৈধতা প্রশ্নে জারি করা রুলের শুনানি শেষ হয়েছে। এ বিষয়ে যে কোন দিন  রায় ঘোষনা করবেন হাইকোর্ট। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে মঙ্গলবার শুনানি শেষে হলে আদলত মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখেন। আজ আদালতে তৃতীয় অ্যামিকাস কিউরি (আদালতের বন্ধু) হিসেবে বক্তব্য দেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান। আর বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের  পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। এর আগে গত ২৪ অক্টোবর অ্যামিকাস কিউরি হিস

By এস এম আশিকুজ্জামান on মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০১৭ ২৩:০৫

অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিদের রায় জমা দেয়া ১৬৮ মামলার কয়েকটি ছাড়া বেশির ভাগ মামলা পুন:শুনানি হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি এস. কে সিনহা। অ্যাটর্নি জেনারেল মনে করেন, প্রধান বিচারপতি সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিদের রায় লেখা নিয়ে প্রধান বিচারপতির মন্তব্যের পর এর পক্ষে বিপক্ষে অনেক আলোচনা হয়। এ সময়ের মধ্যে সাবেক প্রধান বিচারপতি মোজাম্মেল হোসেন এবং সাবেক বিচারপতি এএইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী অনেকগুলো মামলার রায় লিখে আপিল বিভাগে জমা দেন। ওই সময় প্রধান বিচারপতি মামলাগুলো শুনানির জন্য কার্যতালিকায় দেন। মামলাগুলোর পুনঃশুনানি হতে পারে কিনা, এমন বিতর্কের মধ্যে ৫ মে আপিল বিভাগের কার্যক্রমের শুরুতে অ্যাটর্নি জেনারেল এবং সিনিয়র আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে মামলাগুলো কিভাবে নিষ্পত্ত

By অনলাইন ডেস্ক on বৃহস্পতিবার, ০৫ মে ২০১৬ ১৭:২৯