অং সান সু চি

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নির্যাতন অস্বীকার এবং রাখাইনে সেনা অভিযান বৈধ ঘোষণার প্রতিবাদে ‘ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ খেতাবের তালিকা থেকে ভোটের মাধ্যমে মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেতা ও রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি'র নাম সরিয়ে দিয়েছেন আয়ারল্যান্ডের ডাবলিন শহরের কাউন্সিলররা। সু চি'কে এই খেতাব দেয়ার প্রতিবাদে গত নভেম্বরে পপ তারকা বব গেল্ডফ তার ‘ফ্রিডম অব ডাবলিন’ পুরস্কার ফিরিয়ে দেন। আয়ারল্যান্ডের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার তথ্য অনুসারে বিবিসি জানায়, ৬২ জন কাউন্সিলরের মধ্যে সু চি'কে ‘ফ্রিডম অব ডাবলিন’-এর তালিকা থেকে অপসারণের পক্ষে ভোট দেন ৫৯ জন। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর চালানো হত্যাযজ্ঞের মুখেও নীরব থাকার অভিযোগ রয়েছে শান্তিতে নোবেলজয়ী অং সান সু চি'র বিরুদ্

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ ১৭:০১

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেতা ও রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির প্রতি সমর্থন জানাতে পোপ ফ্রান্সিসকে জোরালো অনুরোধ জানাচ্ছেন পোপের মিত্রপক্ষের অনেকে। তাদের আশা, এমনটা করলে সু চি রাজনৈতিকভাবে দৃঢ় অবস্থানে যাবেন এবং এতে করে অন্তত দেশটি আবারও সেনাশাসনে ফিরে যাওয়া থেকে রেহাই পাবে। রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা করতে ইতোমধ্যে মিয়ানমারে পৌঁছেছেন রোমান ক্যাথলিকদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা পোপ ফ্রান্সিস।মঙ্গলবার সু চির সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে পোপের। রোহিঙ্গা হত্যাযজ্ঞে নীরব থাকা ও পরে সেনাবাহিনীর পক্ষে বক্তব্য দিয়ে বিশ্বজুড়ে নিন্দিত নোবেল বিজয়ী সু চির সঙ্গে পোপ রোহিঙ্গা সংকট নিরসনের ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, মিয়ানমারে পুরোটা সময় পোপ নৈতিক

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০১৭ ১০:২৬

অধিকারের বিষয়টি একেক জনের কাছে একেক রকম। বিশ্বের শীর্ষ ধনী মার্কিন ধনকুবের মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের সন্তান হয়ে যে শিশু এ পৃথিবীর আলো দেখে তার কাছে অধিকার এক রকম, আর রাজধানী ঢাকার ব্যস্ত গলি অথবা ফুটপাতে রাত কাটানো কোন মায়ের কোলে জন্ম নেওয়া সন্তানের কাছে অধিকার অন্য রকম। কেউ পৃথিবীর আলো দেখে সোনার চামচ মুখে নিয়ে, আর কারও জীবনই হয়ত কেটে যায় সোনার চামচের সন্ধান করতে করতে। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্র, প্রতিটি মুহূর্ত মানুষকে অধিকারের শিক্ষা দেয়। কেউ অধিকার পেয়ে খুশি কেউ অন্যকে অধিকার বঞ্চিত করে খুশি। এমনই একটি ভাগ্যহত জাতি রোহিঙ্গা যারা আজও লড়ছে তাদের অধিকার আদায়ে। কুতুপালং ক্যাম্পে তখন শুধুই ক্ষুধার্ত মানুষের আর্তনাদ। যে মানুষগুলোর কথা বলছি এরা কি আসলেই নিজেদের মান

By কাজী ইমদাদ on বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ ১৬:১৪

রোহিঙ্গা ইস্যুতে নীরব থাকায় সমালোচিত মিয়ানমারের রাজনৈতিক নেত্রী অং সান সু চি ধীরে ধীরে হলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ৫ দফা সমাধানসূত্রে হাঁটতে চান। আসেম সম্মেলনে এই ইস্যুতে এশিয়া ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশের চাপে থাকায় সু চি বলেছেন: রোহিঙ্গা পরিস্থিতির রাতারাতি সমাধান হবে না, তবে ধারাবাহিক অগ্রগতি সম্ভব। তিনি বলেন: সংকট সমাধানে কফি আনান কমিশনের প্রস্তাবনা বাস্তবায়ন এবং রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই করতে হবে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এশিয়া ও ইউরোপের ৫১ দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে আসেম সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনেও আলোচনায় গুরুত্ব পাচ্ছে রোহিঙ্গা সমস্যা। এর অন্যতম কারণ সম্মেলনের আয়োজক

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ ১৪:৪৮

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি দুই দশক আগে যখন দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেছিলেন তখন দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার নেতৃবৃন্দের সম্মিলিত মৌনতার জন্য রাগ ঝেড়েছিলেন তিনি। ১৯৯৯ সালে প্রকাশিত দি নেশন পত্রিকায় প্রকাশিত তার এক মন্তব্য কলামে তিনি আসিয়ানের হস্তক্ষেপ না করার নীতির সমালোচনা করে লেখেন, ‘সহযোগিতা না করার জন্য এই নীতি একটি অজুহাত মাত্র। বর্তমান এই সময়ে অন্যদেশের বিষয়সমূহ আপনি অগ্রাহ্য করতে পারবেন না।’ এখন মিয়ানমারের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি। দেশটির প্রতিনিধি হিসেবে তিনি ম্যানিলায় অনুষ্ঠিত আসিয়ান সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন। চলমান রোহিঙ্গা সংকটে সেই দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার নেতৃবৃন্দের নীরব থাকার উপরেই নির্ভর করছেন তিনি। তবে সম্মেলনের আলোচ্যসূচীতে রোহিঙ্গা ই

By চ্যানেল আই অনলাইন on সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭ ২৩:৩০

দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর সংস্থা আসিয়ান সম্মেলনের পর আনুষ্ঠানিকভাবে যে বিবৃতি পেশ করা হবে, সেখানে চলমান বিশ্বের অন্যতম মানবিক সংকট রোহিঙ্গাদের কথা বাদ দেয়া হয়েছে। রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর চলমান নিপীড়ন ও নির্যাতনকে জাতিসংঘ গণহত্যার টেক্সট বইয়ের উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করেছে এবং বিভিন্ন মানবাধিকার ও আন্তর্জাতিক সংস্থার পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদের উপর চলমান এই জাতিগত নিধন বন্ধ করার দাবি জানানো হয়েছে। সোমবার ওই খসড়া বিবৃতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে রয়টার্স। যেখানে দাবি করা হয় যে খসড়া বিবৃতির একটি প্যারায় ভিয়েতনামে প্রাকৃতিক দুরোগে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের জন্য মানবিক সহায়তা দেয়াসহ ফিলিপাইনের শহরগুলোতে ইসলামিক জঙ্গি দমনে অভিযান বিষয়ে বক্তব্য থাকলেও রোহিঙ্গাদের ন

By চ্যানেল আই অনলাইন on সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭ ২১:৩১

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে বসবাসকারী জাতিগোষ্ঠীকে নিজেদের মধ্যে ‘ঝগড়া’ না করার পরামর্শ দিয়েছেন অং সান সু চি। বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো সংঘাতপূর্ণ রাখাইন পরিদর্শনকালে তিনি এই পরামর্শ দেন। টেলিগ্রাফ জানায়, মিয়ানমার সরকারের নির্যাতনে এখন পর্যন্ত প্রায় ৬ লাখ মুসলিম রোহিঙ্গা নাগরিক প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এখনো প্রতিদিন অসংখ্য রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আসছে। রোহিঙ্গাদের উচ্ছেদের উদ্দেশ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর নির্মম নির্যাতনসহ তাদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেয়। সেখানে খুন, ধর্ষণের মত ঘটনাও ঘটায় তারা। রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিষয়ে জাতিসংঘসহ বিভিন্ন দেশ সোচ্চার থাকলেও নীরব থাকেন অং সান সু চি। এতে আন্তর্জাতিকভাবে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন শান্তিতে নোবেল জয়ী সু চি

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৭ ২৩:২৫

বিশ্বের ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ৩০তম স্থানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ঘোষণা করেছে বিশ্বখ্যাত ফোবর্স ম্যাগাজিন । তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানীরা মনে করছেন, ফোর্বস ম্যাগাজিন যে মানদণ্ডেই তালিকা তৈরী করুক না কেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাবিশ্বে শীর্ষে অবস্থান করা অন্যতম আলোচিত, প্রশংসিত এবং সফল একজন নারী। বিশেষজ্ঞরা এটাও বলেছেন, জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে তিনি একদিকে যেমন অ্যাঙ্গেলা মরকেলের মতো বিশ্বের অন্যতম মানবিক রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে নিজেকে পরিচিত করেছেন, তেমনি সবদিক দিয়েই নোবেল বিজয়ী সু চিকেও ছাড়িয়ে গেছেন। শান্তিতে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত সু চি যখন রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর এক ধরনের

By আফরিন আপ্পি on বৃহস্পতিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৭ ১৫:৫৮

রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ব্যাপক নিধনযজ্ঞের পর প্রথমবারের মতো ওই রাজ্যে অং সান সু চি’র সফরের খবরের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বাংলাদেশ। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম সু চিকে বাংলাদেশেও আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। বার্তা সংস্থা এপি প্রকাশিত সু চি’র সফর নিয়ে একটি পোস্ট শাহরিয়ার আলম সোশ্যাল মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে রিপোস্ট করেন বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে। সেখানেই তিনি লিখেছেন, ‘আশা করি তিনি (সু চি) কীভাবে, কে এবং কেন, সেটা বোঝার উদ্দেশ্যে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ রোহিঙ্গা নারী ও শিশুর সঙ্গে কথা বলতে বাংলাদেশ সফরেও আসবেন।’ গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সেনাবাহিনীর নির্মম নির্যাতন শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত একবারও সংঘাত আক

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৭ ১৩:৪৮

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ওপর দমন-পীড়নের ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেতা এবং দেশটির রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি অবশেষে পা রাখলেন সেনাবাহিনীর ধ্বংসযজ্ঞে বিধ্বস্ত রাখাইন রাজ্যে। গত ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গা সংকট শুরুর পর এই প্রথম তিনি ওই অঞ্চলে গেলেন। কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হুট করে রাখাইন গেছেন সু চি। সরকারের কয়েকজন কর্মকর্তার সূত্রে বিবিসি জানিয়েছে, তিনি একদিনের সফরে রাখাইনের রাজধানী সিত্তেসহ কয়েকটি শহর পরিদর্শন করবেন। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকালে কয়েকজন সাংবাদিক সিত্তে থেকে সু চি’কে হেলিকপ্টারে চড়তে দেখেন। তার সঙ্গে ছিল আরও ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। সু চি’র  মুখপাত্র জ তেই গণমাধ্যমকে বলেন, সু চি বর্তমানে সিত্তে শহরে রয়েছেন। সেখান থেকে তিনি মংডু

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৭ ১২:৪৩