শিল্প সাহিত্য

সিলেটে আজ থেকে শুরু ১০ দিনের বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎসব। উৎসবে জাতীয় শিল্প-সংস্কৃতির পাশাপাশি স্থানীয় সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে। বাংলাদেশের সংস্কৃতি চর্চা এবং সাধনাকে গতিময় ও বহুমাত্রিক করতে এ উৎসব

By চ্যানেল আই অনলাইন on বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৩:৩৯

ফরিদুর রেজা সাগরের লেখার সঙ্গে আমার পরিচয় সেই কিশোর বয়স থেকে। মনে পড়ে ‘কিশোর বাংলা’ নামে কিশোরপাঠ্য একটা সাপ্তাহিক পত্রিকা বের হতো ১৯৭৬ সাল থেকে। সেই ‘কিশোর বাংলা’ পত্রিকাতেই তাঁর লেখা প্রথম পড়ি। স্বল্প সময়ের ব্যবধানে বেশ কয়েকটি গল্প প্রকাশিত হয়েছিল তাঁর। সেগুলোই অনেক পরে, আশির দশকে একবই গল্প (১৯৮৭) নামে সংকলিত হয়। বইয়ের সব গল্পই সায়েন্স ফিকশন। যে-সময়ের কথা বলছি তখন বাংলাদেশে সায়েন্স-ফিকশন লেখার যোগ্যতাসম্পন্ন লেখক ছিলই না বলতে গেলে। হুমায়ূন আহমদ সবে একটি সায়েন্স ফিকশন লিখেছেন তোমাদের জন্য ভালোবাসা (১৯৭৩), মুহম্মদ জাফর ইকবালও লিখেছেন মাত্র দুটি সায়েন্স ফিকশন--মহাকাশে মহাত্রাস (১৯৭৭) এবং কপোট্রনিক সুখ দুঃখ (১৯৭৬); দুই ভাই-ই তখন প্রবাসী। এই দুই ভাই ছাড়া তখন আহসানুল হাবীব এবং স্বপ

By আহমাদ মাযহার on বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১০:২৫

বছর ঘুরে আবারও ফিরেছে  মহান একুশে ফেব্রুয়ারি, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাংলাদেশের মতো বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মাতৃভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় জীবন উৎসর্গকারী শহীদদের প্রতি পরম শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য দিবসটি পালিত হয়। মহান ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারগুলো লোকারণ্যে হয়ে উঠে। নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ দিবসটি উদযাপন করেন। একুশের প্রথম প্রহর থেকে শুরু করে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ চলে বিকাল পর্যন্ত। একুশের এই উদযাপনে লাখো মানুষের ভিড়ে কিছু ভ্রাম্যমান হকারদের দেখা মিলে। যেকোন উৎসবে তারা উৎসবের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করেন। ১৬ ডিসেম্বর, ২৬ মার্চ, পহেলা বৈশাখ, পয়লা বসন্ত , বিশ্ব ভালোবাসা দিবসসহ নানা উৎসবে তাদের সরব পদচারণা চোখে পড়ে। কেউ ব্যাজ, স্টিকার্ড, হাতে

By সাইফুল্লাহ সাদেক on বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০০:২৭

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকালে ফেসবুকে পেজে নিজের একটি লেখা প্রকাশ করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় শিল্পী কবীর সুমন। লেখাটি তিনি প্রথম প্রকাশ করেছিলেন ২০১৫ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি। আজ আবারো পোস্ট করতে গিয়ে কবীর সুমন লিখেছেন ‘একুশে! লেখাটি আমার এখনও প্রাসঙ্গিক ।’ চ্যানেল আইয়ের অনলাইনের পাঠকদের জন্য কবীর সুমনের পেজ থেকে নেওয়া হলো লেখাটি।   আমার ১৬ নম্বর একুশে তুমি কি ফেসবুকের দেশ চেনো বিরাট এখানে অনেকে আমায় বলে রাজাকার কাল জানলাম আমি বলেছি শাহ্‌বাগের সময়ে বানানো আমার গানগুলো আমি "Diswon" করেছি একুশে একজন বাঙলাভাষীও যদি এমন বলতে ও প্রচার করতে পারে তাহলে তুমি মিথ্যে তুমি সত্যিসত্যি সত্যি হলে কোনও বাংলাভাষী মানুষের মনে এমন কথা আসত না একুশে এবারে

By মেহেদী মাসুদ on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২২:২১

তাঁকে যাঁরা দূর থেকে অবলোকন করেন, এমনকি যাঁরা কাছাকাছিও হয়েছেন, তাঁদের কাছে মনে হতে পারে, রসকষহীন নিরেট একটি পাথর। যেন তাঁর কোনো লাবণ্য নেই। সুষমা নেই। সৌন্দর্য নেই। এমনটি মনে হওয়ার কারণ, তিনি সবার সঙ্গে খুব একটা মেলামেশা করেন না। যার-তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার প্রশ্নই আসে না। তাঁকে খুব একটা হাসতেও দেখা যায় না। বেশির ভাগ সময় চুপচাপ থাকেন। কাজ করেন আপন মনে। তাঁকে গম্ভীর প্রকৃতির বললে মোটেও অত্যুক্তি হবে না। তিনি তাঁর চাবুকের মতো সুগঠিত দেহের মতো স্ট্রেইটকাট। কাউকে পরোয়া করেন না। আর আপোষ করার প্রশ্নই আসে না। নিজে যেটা বিশ্বাস করেন, সে বিষয়ে তাঁকে টলানো আর পাহাড় ধাক্কা দিয়ে নড়ানোর মধ্যে খুব একটা পার্থক্য নেই। আলোচনার টেবিলে তাঁকে দেখা যায় ভিন্ন মেজাজে। পাকা বিতার্কিকের মতো তাঁর মুখে যেন ক

By দুলাল মাহমুদ on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২১:০৩

বই অনেক সময় মানবিক দায় মেটানোর উপায়। সত্য ঘটনা অবলম্বনে বই লিখে ক্যান্সার আক্রান্ত শিক্ষার্থীর জীবন বাঁচাতে এবারের বইমেলায় মানবিক দৃষ্টান্ত তৈরি করেছেন একজন নতুন লেখক। বিস্তারিত দেখুন ভিডিও

By রোকসানা আমিন on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৯:২৭

কম্পিউটারে বাংলা বর্ণলিপির জনককে আজ থেকে ৫২ বছর আগে বাংলা লিখতে হয়েছিল লুকিয়ে। ১৯৬৫ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারিতে ভাষা শহীদদেরকে শ্রদ্ধা জানাতে হয়েছিল সবার চোখ এড়িয়ে ফৌজদারহাটের এক পাহাড়ে বসে, একান্তে। তিনি সাইফুদ্দাহার শহীদ, বেশি পরিচিত সাইফ শহীদ নামে। কম্পিউটারে প্রথম বাংলা বর্ণমালা শহীদলিপি তার তৈরি। ১৯৮৫ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি কম্পিউটারে মায়ের ভাষার প্রথম লিপি ব্যবহার করে প্রথম তিনি তার মা-কে চিঠি লিখেছিলেন। সেই শহীদলিপির পর এসেছে বিজয়, অনলাইনে বিজয়যুগ পেরিয়ে এখন ইউনিকোড। কিন্তু শুরুটা অতো সহজ ছিল না। ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজে সাইফুদ্দাহার শহীদের অনেক পরের ছাত্র সাংবাদিক সানাউল্লাহ বলছেন: প্রবাসী শুধু নয়, দেশেও একটা প্রজন্ম গড়ে ওঠেছে যারা বাংলা লিখতে বা পড়তে পারে না, কিন্

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৩:৫৪

লেখক ও নাট্যকার নাইস নূরের নতুন বই ‘জেবার প্রিয় বারবি ডল’ বইমেলায় এসেছে। বইটিতে মোট সাতটি গল্প রয়ছে। গল্পগুলো হলো ‘আমি বাংলা ভাষা হবো’, ‘অ’র প্রয়ি বন্ধু ঐ’, ‘আমিও মুক্তিযোদ্ধা’, ‘নীল ফুলপরীর গল্প’, ‘জেবার প্রিয় বারবি ডল’, ‘অনিরুদ্ধ ও টমের একদিনের অভিমান’ ও ‘ফারহানের পতাকা সেলফি।’ বই সম্পর্কে নাইস নূর বলেন, ‘প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণী পড়া শিশুদের কথা ভেবেই মূলত বইটি লিখেছি। এর একটি গল্পে বাংলা ভাষার মহত্ব ও দুটি গল্পে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে শিশুদের সহজভাবে জানানোর চেষ্টা করেছি। এছাড়া ‘জেবার প্রিয় বারবি ডল’ গল্পটিতে একটি বার্তা দিতে চেষ্টা করেছি তা হলো, একজন শিশুর রঙিন বারবি ডল যেমন পছন্দ হতে পারে, তেমনি কালো রঙের বারবি ডলও। আসলে আমি চাই ছোটবলো থেকেই যেন শিশুদের মনে বর্ণবৈষম্য ব্

By আলী এরশাদ on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২২:৩৩

বাংলাদেশের প্রখ্যাত ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর ৭০তম জন্মদিন ছিল গতকাল ১৯ ফেব্রুয়ারি। শরীরটা তার ঠিক ভালো ছিল না, তাই কাল বাইরে বের হননি। আজ সোমবার বিকেলটা তিনি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। রাজধানীর পূর্বাচল, ৩০০ ফিট, কাঞ্চন ব্রিজ এলাকায় গাড়িতে করে বেড়ানোর সময় তাঁর সঙ্গে আছেন গণ জাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার। আরও আছেন ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর পরিবারের কয়েকজন। এ সময় ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী সেলফি তুলেছেন। আর এই ছবি ফেসবুকে নিজের পেজে পোস্ট করেন ডা. ইমরান এইচ সরকার। আজ বিকেলে তাদের সঙ্গে যখন কথা হচ্ছিল, তখন তারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ডা. ইমরান এইচ সরকার বললেন, ‘তিনি আমার প্রিয় মা। কাল তার শরীরটা একটু দুর্বল ছিল আর বাসায় তার ছেলেমেয়ে, নাতি–নাতনি সবাই এসেছেন। তখন আমি আসতে পারিনি। আজ বললে

By মেহেদী মাসুদ on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৮:৩৭

আমি ছাত্রাবস্থা থেকেই দেশের বড় বড় লেখকদের কাছে যাই। তাদের উপদেশ শুনি। কিছু টিপস আমি তাদের কাছ থেকে পেয়েছিলাম— ১. কখনো বিনয় করে বলবেন না যে আপনার কবিতা কিছু হয় না। তাহলে সবাই বলবে, ও নিজেই স্বীকার করেছে ওরটা হয় না। কাজেই ও আর কী লিখবে।---কবি শামসুর রাহমান ২. ডোন্ট রুইন ইয়োর ​স্টোরিজ উইথ ফ্যাক্টস-সত্য ঘটনা বলে গল্প নষ্ট করো না। এটা মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যারকে একজন মার্কিন লেখিকা বলেছিলেন।---মুহম্মদ জাফর ইকবাল। ৩. তুমি যদি কবি হতে চাও, গদ্য লিখবে না। একবার গদ্য লিখলেই কেউ আর তোমাকে কবি বলবে না।--–কবি মহাদেব সাহা ৪. তুমি কেন ডাকনাম ব্যবহার করবে? আনিসুল হক তো খুব সুন্দর একটা নাম। এই নামে লেখো। তা না হলে ভবিষ্যতে পস্তাতে হবে।--–কবি হেলাল হাফিজ। ৫. পড়ার বাইরে তরুণ লেখকদের জন্য আমার তিনটা উপদেশ

By আনিসুল হক on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২০:৩৫