লাইফস্টাইল

প্রতিদিন যেসব ফল আমরা খাই সেগুলোই একটু ভিন্ন রকমের হলেই কিন্তু আমাদের একটু খটকা লাগে। প্রকৃতির অদ্ভুত খেয়ালে ফলেই ফুটে ওঠে মানুষের চেহারা কিংবা বিভিন্ন অঙ্গের আঁকার। তেমনই কিছু অদ্ভুতুড়ে

By নুসরাত শারমিন on শনিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৭ ১২:০১

আকর্ষণীয় বোতল কিংবা ক্যানে রঙিন মোড়কে সারি সারি এনার্জি ড্রিংক সাজানো থাকে। সাথে দেখানো হয় চটকদার বিজ্ঞাপন। তার এই বিজ্ঞাপনগুলো দেখেই এনার্জি ড্রিঙ্কগুলো সন্তানদেরকে কিনে দেয়া হয়। কিংবা নিজেরাই খাচ্ছে আড্ডায়। কিন্তু এই এনার্জি ড্রিংকগুলো আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটুকু ক্ষতিকর, তা কি জানা আছে আমাদের? জেনে নিন এনার্জি ড্রিংকের ক্ষতিকর কিছু দিক সম্পর্কে।মাথা ব্যথা এবং মাইগ্রেনএনার্জি ড্রিংক একজাতীয় পানীয়, যা পানে শরীরের সাময়িক স্টামিনা ও কর্মদক্ষতা বাড়িয়ে দেয়l কিন্তু নিয়মিত এনার্জি ড্রিংক পান করলে মাইগ্রেনের সমস্যা বেড়ে যায় এবং সাধারণ মাথা ব্যথার সমস্যায় বাড়ে। এর কারণ হলো এনার্জি ড্রিংকে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে। হঠাৎ ক্যাফেইন বেড়ে যাওয়া এবং কমে যাওয়ার এই তারতম

By নুসরাত শারমিন on বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০১৭ ১১:৪৭

বৃষ্টি হচ্ছে, হয়ত দুই একদিন ভার্সিটির ক্লাস বন্ধও দিয়েছেন। কিন্তু ক্লাস পরীক্ষা, অফিস, সেমিনারগুলো তো আর মিস করা করা যায় না। এদিকে হুটহাট দুপুরের খাবার কাছের কোনো দোকানে সেরে নিচ্ছেন। কিন্তু বাসায় গিয়েই দেখা যায় ঠিক পেট ব্যথায় ভুগছেন। তাহলে জেনে নিন, কী করলে কমাতে পারেন আপনার পেটের পীড়া।রাস্তার খাবারকে না বলুনআপনি যদি রাস্তার পাশে বিক্রি করা অস্বাস্থ্যকর খাবার খান অথবা প্রতিদিনের খাবার কোনো রেস্টুরেন্টে সেরে ফেলেন, তাহলে কিছুদিনের মধ্যেই দেখতে পাবেন গ্যাস্ট্রিক অথবা পেটের ব্যাথায় ভুগছেন।খাবার ভালোভাবে রান্না করুনযে খাবার রান্না করবেন অবশ্যই ভালো করে ধুয়ে নেবেন। আধা সিদ্ধ সবজি অথবা ভাত খাবেন না। অনেক সময় এমন খাবার খেলে ডাইরিয়া হয়। তাই রান্না করার সময় খাবারটি ভালোভ

By তামান্না তামিম on সোমবার, ১৪ অগাস্ট ২০১৭ ১১:১৯

প্রতিদিনের নাস্তায় কী খাচ্ছেন আপনি? রুটি নাকি পাউরুটি? যদি খাবার তালিকায় পাউরুটি থেকে থাকে তাহলে আজ থেকে সাবধান হওয়া জরুরী। কারণ নিয়মিত পাউরুটি খেলে বেশ কিছু ক্ষতির সম্মুখীন হবে আপনার স্বাস্থ্য। জেনে নিন পাউরুটির ক্ষতিকর কিছু দিক সম্পর্কে।ক্ষতিকর কেমিক্যাল বেশির ভাগ পাউরুটিতে পটাশিয়াম ব্রোমেট অথবা আয়োডেট নামের ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান থাকে। এই ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদানগুলো স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এমনকি এই উপাদানগুলোর কারণে ক্যানসারের ঝুঁকিও আছে।কফ সমস্যা বাড়ায় পাউরুটিতে উপস্থিত রাসায়নিক উপাদান এবং অ্যাডিটিভগুলো পানির সংস্পর্শে এলে আঠালো এবং পিচ্ছিল পদার্থ সৃষ্টি করে। এই উপাদানগুলো পরবর্তীতে কফ সমস্যার সৃষ্টি করে।ওজন বৃদ্ধি করে পাউরুটিতে প্রচুর পরিমাণে কার

By নুসরাত শারমিন on সোমবার, ১৪ অগাস্ট ২০১৭ ১১:১০

খবরের পাতায় চোখ রাখলেই আজকাল দেখা যায় বন্ধুদের প্রতারণার খবর। কখনো বেড়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ আবার কখনো খুন। আবার অপহরণ করে টাকা চাওয়ার মতো ঘটনাও ঘটছে হর হামেশা। অথচ বন্ধুর প্রতি সরল বিশ্বাসের কারণে একবারের জন্যও মেয়েরা ভাবছেন না তাদের বিপদের কথা। নির্দ্বিধায় বন্ধুর ফেলা টোপে পা দিয়ে বিপদে পড়ছেন। বন্ধু হিসেবে আপনি যার সঙ্গে মিশছেন যে কি প্রতারক কিনা তা বোঝার কিছু লক্ষণ আছে। আপনার বন্ধুর সঙ্গে এই লক্ষণ মিলে গেলে আপনারও সাবধান থাকা জরুরী। জেনে নিন লক্ষণগুলো।পরিবারের ঠিকানা জানাতে চায় না আপনার বন্ধু কোথায় থাকে তা জানা আছে তো আপনার? কিংবা তার পরিবারের কারও সঙ্গে পরিচয় আছে? যদি না থেকে থাকে তাহলে আজই জানার চেষ্টা করুন। কারণ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বন্ধু রুপী প্রতারকরা তা

By নুসরাত শারমিন on রবিবার , ১৩ অগাস্ট ২০১৭ ০৯:৪৬

সঙ্গীর সঙ্গে সংসর্গের সবচেয়ে ভালো সময় কোনটি, জানা আছে তো? ঠিক সকাল সাড়ে ৭টা হলো একেবারে পারফেক্ট সময়। গবেষণা এমনটাই বলছে।সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় বলা হয়েছে সকালে ঘুম থেকে ওঠার জন্য সঠিক সময় হলো ৬.৪৫। আর এর ঠিক ৪৫ মিনিট পর সকাল ৭.৩০ হলো শারীরিক মিলনের জন্য একেবারে উপযুক্ত সময়। আর তার কারণ হলো পুরো রাতের ভালো ঘুমের পড়ে এই সময় শরীরটা বেশ চাঙ্গা থাকে। এছাড়াও এসময়ে শরীরে এনডরফিনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং মানসিক চাপ একেবারে কমে যায়। ফলে দিনের বাকি সময়টা বেশ ফুরফুরে মেজাজে কাটে।ফোরজা সাপ্লিমেন্টস–এর একটি গবেষণায় ১০০০ সুস্থ এবং কর্মঠ মানুষের ওপর জরিপ চালিয়ে এই তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। গবেষণায় আরও জানা গেছে সকালে দৌড়ানোর উপযুক্ত সময় হল সকাল ৭টা। গবেষকরা জানান

By চ্যানেল আই অনলাইন on শুক্রবার, ১১ অগাস্ট ২০১৭ ১৬:১৫

রাইসা জান্নাত: ঘড়িতে রাত ১০টা ২৯ মিনিট অধীর আগ্রহে টিভির সামনে বসে আছে দীপ্ত। আর মাত্র এক মিনিট বাকি। তারপরেই শুরু হবে তার পছন্দের সিরিয়াল ‘রাখি বন্ধন’। আট বছরের শিশু দীপ্ত সবে ক্লাস ওয়ানে উঠেছে। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে সে এই সিরিয়ালটি দেখে, না দেখা পর্যন্ত তার স্বস্তি নেই। কোনো দিন মিস হয়ে গেলে পরের দিন ঠিকই পুনঃপ্রচার দেখে।ভারতীয় টিভি চ্যানেল ‘স্টার জলসা’য়’ এই সিরিয়াল অনেক শিশুর কাছেই বেশ জনপ্রিয়। এই সিরিয়ালের মূল গল্প দুটো ছোট ছেলেমেয়েকে নিয়ে। রাখি আর বন্ধন। ছোটবেলায় বাবা-মা দু’জনকেই হারিয়ে ফেলে। ছোট্ট রাখিকে আগলে রাখে তার দাদা বন্ধন। বোনের ইচ্ছাই যেন তার কাছে সব। তাই শত বিপত্তির মাঝেও বোনের ইচ্ছা পূরণে দাদা অটল। স্বপ্ন দেখে বোন একদিন অনেক বড় হবে। সে নিজে পড়ালেখা করতে না পারল

By চ্যানেল আই অনলাইন on শুক্রবার, ১১ অগাস্ট ২০১৭ ১২:১৩

রাতে মন খারাপ করে দুই ফোটা চোখের জল ফেলেছেন। অথবা রাতে হয়তো ঘুম কম হয়েছে। তাই বলে সকাল বেলা চোখ দুটি এমন বিচ্ছিরি ভাবে ফুলে থাকবে? বাহিরে যাওয়ার আগে চেহারার এমন অবস্থা দেখে মেজাজটা খারাপ হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু তাতে কি আর চোখের ফোলা কমবে? চট করে চোখের ফোলা ভাব দূর করার আছে কিছু সহজ পদ্ধতি। জেনে নিন পদ্ধতিগুলো।ব্যবহার করা টি-ব্যাগ আপনার ব্যবহৃত টি ব্যাগটি অনায়াসেই চোখের ফোলা ভাব দূর করতে পারে। টি-ব্যাগটিকে দশ মিনিট ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। এবার চোখের উপর টি ব্যাগ রেখে কিছুক্ষণ শুয়ে থাকুন। টি-ব্যাগের ক্যাফেইন এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট চোখের ফোলা ভাব কমিয়ে দিবে দ্রুত।ঠাণ্ডা চামচ খুব সাধারণ একটি চামচই চোখের ফোলা কমাতে অসাধারণ ভূমিকা রাখতে পারে। একটি চামচ কিছুক্ষণ ডিম ফ্রিজে র

By নুসরাত শারমিন on বৃহস্পতিবার, ১০ অগাস্ট ২০১৭ ১৫:৩৫

নাদিয়া মেডিকেলের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। কয়েক বছর ধরে  নাদিয়াকে দেখা যায় 'ভাইয়া ভাইয়া' বলে, কলেজের বড় ভাই মারুফের সাথে বেশ খাতির দেখাতে। মারুফেরও মেডিকেল কলেজে বেশ সুনাম ভালো ছাত্র হিসেবে। তাই পড়া বুঝে নেওয়ার জন্য নাদিয়া সারাক্ষণই 'ভাইয়া' ডেকে মারুফের কাছে যায় বার বার। 'ভাইয়া' ডাক তো স্রেফ মারুফের সঙ্গে খাতির করার একটি মাধ্যম নাদিয়ার। মারুফ আর নাদিয়ার প্রেমের প্রথম পর্ব শুরু হলো 'ভাইয়া' ডাকার মাধ্যমেই।আজকাল বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ, অফিসে অনেকের সারাক্ষণ শুনতে হয়, 'ভাইয়া এটা কি? এই বিষয়টা যদি ফ্রি থাকেন বুঝিয়ে দিন। অথবা এই বিষয়ে নোট তৈরি হয়েছে কিনা?' এক জরিপে দেখা গেছে অফিস,ভার্সিটি,কলেজে 'ভাইয়া ভাইয়া' উৎপাত আসলে সব সময় বিরক্তির কারণ না। কারণ যেই মেয়েটি আপনাকে সারাক্ষণ ভাইয়া ডেকে জ্ব

By তামান্না তামিম on বৃহস্পতিবার, ১০ অগাস্ট ২০১৭ ১৫:৩১

'পাশের বাসার ছেলেটাকে দেখেছ? তোমার চাইতে কতো লক্ষ্মী। মা-কে একটুও জ্বালায় না। পরীক্ষাতেও ভালো রেজাল্ট করে। আর তুমি?'- এমন কথা হর হামেশাই সন্তানকে বলা হয়ে থাকে। বলার পেছনে কারণও আছে। কেউ তো আর নিজের সন্তানের খারাপ চান না। মনে করা হয় লক্ষ্মী বাবুদের সঙ্গে তুলনা করলে তাদের দেখাদেখি সন্তান নিজেকে শুধরে নিবে। যদি এমন করে থাকেন তাহলে নিজের অজান্তেই অনেক বড় ভুল করছেন আপনি। সন্তানকে বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছেন আপনি নিজেই।কারও সঙ্গে তুলনা করা কোনো সমস্যা কমায় না বরং বাড়ায়। ক্রমাগত তুলনা করার ফলে সন্তানের মনে বিরূপ প্রভাব পড়ে। জেনে নিন সন্তানকে অন্য কারও সঙ্গে তুলনা করার কিছু বিরূপ প্রভাব সম্পর্কে।আত্মবিশ্বাসের অভাব সন্তানকে সারাক্ষণ বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে তুলনা করে ছোট করা হলে তার আত্মবিশ্

By নুসরাত শারমিন on বুধবার, ০৯ অগাস্ট ২০১৭ ১১:৫৩