মতামত

কুমড়ো ফুলে-ফুলে; নুয়ে পড়েছে লতাটা, সজনে ডাঁটায় ভরে গ্যাছে গাছটা আর, আমি; ডালের বড়ি শুকিয়ে রেখেছি, খোকা তুই কবে আসবি। কবে ছুটি?” চিঠিটা তার পকেটে ছিলো, ছেঁড়া আর রক্তে ভেজা। “মাগো, ওরা বলে, সবার কথা কেড়ে নেবে ; তোমার কোলে শুয়ে গল্প শুনতে দেবে না। বলো মা, তাই কি হয়? আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ'র লেখা 'কোন এক মাকে’ পড়া অনেকেরই। আমার ছোট বেলায় যখনই এই কবিতা পড়েছি, অমর একুশের প্রেক্ষাপটের একটা ছবি যেন চোখের সামনে ভেসে উঠতো। নতুন করে আবারো সামনে নিয়ে এলাম, অমর একুশ নিয়ে কিছু ব্যক্তিগত অনুভূতি বা ভাবনার কথা বলবো বলে। অমর একুশ ১৯৫২, আমার ভাইয়েরা, ভাষা শহীদগণ আমাদের মায়ের ভাষায় আমাদের চেতনা বা অস্থিত্ব জানান দেয়ার জন্যে অকাতরে প্রাণ দিয়ে গেছেন যেদিন। কিভাবে পেলাম আমাদের মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার, ই

By নাদিরা সুলতানা নদী on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০০:০২

বদলে যাচ্ছে গ্রাম। গ্রামের মানুষ। তাদের জীবন ও জীবিকা। জীবিকা অর্জনের ক্ষেত্র যেমন বদলেছে, বদলেছে তাদের দিন যাপনের রীতিনীতিও। আশা আকাঙ্ক্ষার ধরণও পালটেছে। ঘর বসতি, খানাপিনাসহ সমাজ সংসারের এতদিনকার চিরচেনা চিত্রে বদলে যাওয়ার সুর লেগেছে দারুণভাবে। কার আগে কে কত বদলায় অনেকটা প্রতিযোগিতার মতো চলছে সব। এ বদলে যাওয়ার কতটুকু ভাল কিংবা মন্দ সেই হিসেবের ধার কেউ ধারেনা। যে যেভাবে পারে বদলে যাওয়ার স্রোতে নিজেকে ভাসিয়ে দিচ্ছে। বাবা বদলাচ্ছেন। সংসারে মা বদলাচ্ছেন। বদলে যাচ্ছে ছেলেমেয়েরা। পাড়াপ্রতিবেশী আত্মীয়স্বজন সবাই এখন বদলে যাওয়ার মিছিলে। গাও গেরামের পোলা-মাইয়ার পিরীতি, বিয়েশাদি'র রীতিনীতি- এখানেও বদলে যাওয়ার আবহ আছে। মানুষের আবেগ অনুভূতি ধর্ম কিংবা সংস্কৃতি পরিবর্তনের ছোঁয়া আছে সব

By হা‌সিম উদ্দিন আহ‌মেদ on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৬:৫৪

চড় আমাদের সমাজে খুব চালু ‘মাইর’-এর একটা ধরন। রোমান্টিকতা প্রকাশে আলিঙ্গন যেমন শাসনের ক্ষেত্রে চড় তেমন ধন্বন্তরী ও অনিবার্য উপাচার। পারিবারিক পর্যায়ে এক সময় চড় ছিল খুবই প্রচলিত এবং সাধারণ বিষয়। আমরা ছোটকালে মুড়ি-মুড়কি যেমন খেয়েছি, তেমনি নিয়মিত চড়ও খেয়েছি। আমাদের শৈশব ও কৈশোরের অভিজ্ঞতায় দেখা যায়, বেশিরভাগ পরিবারে তখন বজায় ছিল ‘মিলিটারি শাসন।’ অভিভাবকরূপী শাসকরা তেমন কোনো নিয়ম-নীতি-সংবিধানের ধার ধারতেন না। পান থেকে চুন খসলেই চড়-থাপ্পড়। তারা সারাক্ষণ মুখিয়ে থাকতেন কোন উছিলায় কাকে একটা চড় কষিয়ে দেওয়া যায়। আমরাও ছিলাম নির্লজ্জ। প্রতিনিয়ত চড় খাওয়ার পরও কোনো শিক্ষা হতো না। যেন গালে চড় পড়ে-তেমন কাজই বেশি বেশি করতাম! পুরানো সমাজে শাসনের সবচেয়ে কার্যকর হাতিয়ার বা অস্ত্র ছিল চড়। জীবনে

By চিররঞ্জন সরকার on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১২:৪৩

কিছুকাল একটি নির্মাণ প্রতিষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলাম এই জীবন পরিক্রমায়। সে সময়কালে ১৯৮১ সনে স্বীয় বাহিনীরই একাংশের হাতে প্রাণ হারালেন একজন জাঁদরেল কঠিন হৃদয়ের শাসক জেনারেল পরিচিত, জিয়াউর রহমান। আরেক সেনাপ্রধান  সব কলকাঠি নাড়িয়ে নিভৃতে এসে বসলেন ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে। সম্মুখে নানারূপ বিচারপতি। জিয়া হত্যাকাণ্ডের কয়েকদিন পরই একটি সামরিক জীপ এসে আমাকে তুলে নিল, না; চোখ বেঁধে নয়। খোলা চোখ, খোলা জানালা, গুমোট হাওয়া। কিছুক্ষণ পরই বুঝে নিলাম মর্মকথা। আমাদের নির্মাণ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ঢাকা সেনানিবাসে ‘সেনা কারাগার’ তৈরির কাজ চলছিল। কাজ বাকী কয়েক মাসের। ওটা একমাসেই শেষ করে দিতে হবে। প্রকল্পটির দায়িত্বপ্রাপ্ত হিসাবে আমাকে চব্বিশ ঘণ্টা ওখানে থাকতে হবে। সঙ্গে থাকবেন একজন মেজর, স

By হিলাল ফয়েজী on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১২:১১

সাম্প্রতিক সময়ে হঠাৎ করেই সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ন্যায়পরায়ণতার প্রতীক হিসেবে বিবেচিত ‘গ্রিক দেবী’ থেমিসের ভাস্কর্যটি অপসারণের দাবী তুলেছে হেফাজতে ইসলাম। কারণ হিসেবে তারা দেখিয়েছে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগার কথা। বিশ্বে কোডিফাইড আইনের গোড়াপত্তন ঘটে প্রথম রোমান আমলে। রোমান সম্রাটদের পৃষ্ঠপোষকতায় প্রভূত উন্নতি ঘটে বিশ্বের আইনশাস্ত্রের। মহান রোমান সম্রাট জাস্টিনিয়ান এবং কনস্টানটাইনের ভূমিকা এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য। রোমানদের কাছে ‘লেডি জাস্টিস’ বিবেচিত হতেন ন্যায়পরায়ণতার দেবী হিসেবে। আর এই লেডি জাস্টিসই ছিলেন গ্রিক মিথলজির ‘দেবী থেমিস’। গ্রিক মাইথোলজি অনুযায়ী দেবী থেমিস ছিলেন গ্রীকদের ন্যায়পরায়ণতার দেবী। যার দু’চোখ কালো কাপড়ে বাধা। একহাতে খোলা তলোয়ার আ

By রাজেশ পাল on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২০:১৫

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ছাড়া এদেশে কোন নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না’ বলে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। ১৮ই ফেব্রুয়ারী ২০১৭ রোববার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। রুহুল কবির রিজভী আরো বলেছেন, ‘বেগম জিয়ার সাজা হবে। কিন্তু তিনি কী করেছেন? খালেদা ছাড়া কোন নির্বাচন হবে না, হতে পারে না। আর যদি হয় তাহলে সেটা প্রতিহত করা হবে’- বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। বিএনপি’র মহাসচিব কখরুল ইসলাম আলমগীর, তাঁর দলের বড় বড় কিছু নেতা এমন হুংকার দিচ্ছেন। গত কয়েকদিন ধরে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বিরুদ্ধে কথা বলে আসছিলেন তাঁরা। পরে বিএনপি’র মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর আর ভাইস চেয়ারম্যান শ

By সায়েদুল আরেফিন on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২০:০৪

বাংলা একাডেমি আয়োজিত একুশের বইমেলা এখন বাঙালির জাতীয় উৎসবে পরিণত হয়েছে। এত দীর্ঘ সময়ব্যাপী বইমেলা পৃথিবীর আর কোথাও হয় বলে মনে হয় না। বাংলাদেশের এ মেলা এখন সকলের কাছেই এক ঈর্ষণীয় ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে। একজন ক্ষুদ্র লেখক হিসেবে দেশের বইমেলা সম্পর্কে আমার অভিজ্ঞতা খুব একটা ইতিবাচক নয়। বলার অপেক্ষা রাখে না, বইমেলার মূল প্রাণ হচ্ছে বই। বইয়ের লিখন, প্রকাশনা, বিপণন ও বিক্রয় নিয়ে এ মেলা জমে ওঠে। আর বইয়ের রচয়িতা হচ্ছেন লেখক। তারাই প্রকাশকদের মাধ্যমে বইমেলায় বই জোগান। তাদের লেখা বই প্রকাশকরা প্রকাশ করে স্টল সাজান। সেদিক দিয়ে বিচার করে বলা যায়, লেখকরাই হলো বইমেলার মূল কারিগর। তারাই বইমেলার মূল প্রাণভোমরা। অথচ বাণিজ্যিক দিক থেকে দেখলে বইমেলায় সবচেয়ে বেশি প্রতারিত হন লেখকরা। মুখে স্বীকার

By চিররঞ্জন সরকার on শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২২:০২

বিপুলা পদ্মাকে নিয়ন্ত্রণে এনে তার উপর দিয়ে মানুষ চলাচলের আগ্রহ আদি কালের। দক্ষিণ বঙ্গের ৫ কোটি মানুষের দীর্ঘকালের স্বপ্ন পদ্মাসেতু। স্বাধীনতার পর থেকেই সে দাবি আস্তে আস্তে জোরালো হতে থাকে। বিশেষ করে ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করে যমুনা সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করার পর সে দাবি গণদাবিতে পরিণত হয়। পরবর্তী জামায়াত-বিএনপি জোট সরকার পদ্মাসেতু নির্মাণ করার জন্য কোনো কাজ না করলে ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইস্তেহারে আওয়ামীলীগ পদ্মাসেতু নির্মাণ যুক্ত করে দক্ষিণ বঙ্গের মানুষের বিপুল পরিমাণ ভোট নিজেদের বাক্সে যুক্ত করে। ২০০৯ সালে সরকার গঠন করার পর সেতু নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় কাজকর্ম শুরু হয়। ২০১১ সালে বিশ্ব ব্যাংক, ইসলামী ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক এবং এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সঙ্গে ঋণ চুক

By সাব্বির আহমেদ on শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:২৯

সদ্য নিয়োগ পাওয়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদাসহ পাঁচ নির্বাচন কমিশনার শপথ নিয়েছেন। বুধবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে তাদেরকে শপথ পড়িয়েছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। শপথ নেয়ার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে সিইসি বলেন, ‘নিরপেক্ষ থেকে সব দলের সঙ্গে পরামর্শ করে কাজ করে যাব। সরকারকে কমিশনের ওপর প্রভাব বিস্তারের কোনো সুযোগ দেব না।' এই কথা জেনেও নতুন নির্বাচন কমিশনকে ইতোমধ্যে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচন কমিশনকে স্বাগত জানালেও বিএনপি এই কমিশনের বিরুদ্ধে বিষোদাগার শুরু করেছে। বিএনপি'র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে আওয়ামী লীগের লোক ও দলটির সদস্য হিসেবে আখ্যায়িত করেছ

By আহসান কামরুল on শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১১:৫৬

আজ ১৬ ই ফেব্রুয়ারি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতীয় বীর কাজী আরেফ আহমেদের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৯ সালের এদিনে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে এক সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ চলাকালীন সময়ে উগ্রপন্থি সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহীদ হন বাঙালি জাতিসত্তার ভিত্তিতে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অন্যতম সংগঠক কাজী আরেফ আহমেদ। কাজী আরেফের জান্ম ১৯৪২ সালের ৮ ই এপ্রিল। কাজী আরেফ ঢাকা কলেজিয়েট হাই স্কুল থেকে ১৯৬০ সালে মেট্রিকুলেশন পাশ করেন। স্কুল জীবন থেকেই তাঁর মধ্যে বাঙালি জাতীয়তাবাদী চিন্তা চেতনার উন্মেষ ঘটে। ১৯৬০ সাল থেকেই আইয়ুবের সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনে তিনি যুক্ত হন। ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হওয়ার আগে তিনি পুরনো ঢাকার স্থানীয় তরুণদের নিয়ে সাহসিকতার সাথে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা মোকাবেলা করেন। এজন্য তিনি তৎকা

By শফী আহমেদ on বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০০:০০