পরিবেশ

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বরগুনার সংরক্ষিত বন টেংরাগিরি ধ্বংস হচ্ছে। পরিবেশ-প্রতিবেশ পরিবর্তনে ধীরে ধীরে উজাড় হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই ম্যানগ্রোভ বন। এতে আবাসস্থল সংকটে পড়ছে বন্য

By চ্যানেল আই অনলাইন on মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৭:৩৯

বঙ্গোপসাগরের কোলঘেঁষা ভোলার কুকরি-মুকরিতে বন বিভাগের প্রচেষ্টায় সবুজ বেষ্টনি গড়ে উঠেছে। সাড়ে ৩ কোটি গাছের সবুজ দেয়াল প্রাকৃতিক বিপর্যয় থেকে রক্ষা করছে এ অঞ্চলের মানুষকে। এখানে সৃষ্টি হয়েছে

By মো. জাহিদুজ্জামান on সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৩:৫৮

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় প্রতিশ্রুতির অর্থ সহায়তা আসছে না বলে আবারো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। তিনি বলেছেন, পৃথিবীর উষ্ণতার সঙ্গে ক্ষতির মাত্রা

By মো. জাহিদুজ্জামান on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ২২:৩৩

পাহাড়ি ঢলে ভরাট হয়ে গেছে বান্দরবানের বাঁকখালী নদী। এরই মধ্যে নাইক্ষ্যংছড়িতে নদীর ৪০ কিলোমিটার অংশ সরু খালে পরিণত হয়েছে, হারিয়েছে গতিপথ। সেইসঙ্গে দখল করা দুই পাড়ের তামাক ক্ষেতের কীটনাশকে দূষিত

By মো. জাহিদুজ্জামান on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৭:৫৬

জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকিগুলোর কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্ব এখন অনিশ্চিত যাত্রার পথে রয়েছে। জার্মানির মিউনিখে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে প্যানেল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন। এর

By নীলাদ্রি শেখর on রবিবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৫:৫৮

মুসলিম উদ্দিন আহমেদ: দেশের তৃতীয় বৃহত্তম মধুপুরের শাল গজারি বনের বন্যপ্রাণীগুলো অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। দখল, দূষণসহ নানাভাবে এ বন ক্ষতিগ্রস্ত করায় বিপন্নপ্রায় বিভিন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণীর আবাসস্থল ও খাদ্যের সংকট দেখা দিয়েছে। খাবার না পেয়ে বানরসহ বিভিন্ন বন্যপ্রাণী লোকালয়ে চলে আসায় স্থানীয়রা তাদের পিটিয়ে মেরে ফেলছে। এক সময় এ বন হরিণ, সজারু, খরগোশ, কচ্ছপসহ বিভিন্ন জীব-বৈচিত্র্য সমৃদ্ধ ছিল। ছিল ৫শ’ ধরনের ওষুধি গাছ। এখনও সংরক্ষিত এলাকায় চোখে পড়ে হরিণ, বানর, মুখ পোড়া হনুমান ও বাগডাস। তবে, দখল হতে হতে সংকুচিত হয়ে পড়ছে মধুপুরের এ বিশাল বন। এসব প্রাণী আবাসস্থল, খাবার ও পানি সংকটে পড়েছে। মধুপুর গড়ে এসব প্রাণীর অবাধ বিচরণের উপযুক্ত ক্ষেত্র তৈরির পরামর্শ দিচ্ছেন প্রাণিবিদরা। এসব বন

By চ্যানেল আই অনলাইন on শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৫৪

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় একক ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন। গঙ্গা-ব্রহ্মপুত্র নদের অববাহিকায় গড়ে ওঠা বনভূমিটি দেশের দক্ষিণাঞ্চলকে বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা করছে। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের

By চ্যানেল আই অনলাইন on বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৯:৩৪

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ইয়োসেমাইট ন্যাশনাল পার্ক। সারা বছর এখানে বয়ে চলে হর্সটেইল জলপ্রপাত। মৌসুমভেদে কখনো এর ধারা হয় চওড়া, কখনো আবার কিছুটা সংকীর্ণ। কিন্তু বছরের একটা সময় মাত্র কয়েকদিনের জন্য এই ঝর্ণা তার রূপ পুরোটাই বদলে ফেলে। মনে হয় যেন পানির ধারার বদলে ঝর্ণাটিতে প্রবাহিত হচ্ছে উজ্জ্বল কমলা রঙের আগুন-গরম লাভা! বাস্তবে কিন্তু জলপ্রপাতটি থেকে মোটেও পানির পরিবর্তে লাভা প্রবাহিত হয় না। এটি এক ধরণের দৃষ্টিবিভ্রম, যা একেবারেই প্রাকৃতিক একটি ঘটনা। ফেব্রুয়ারির এই সময়টায় সূর্য ডোবার কিছু আগে থেকে শুরু করে সূর্যরশ্মি জলপ্রপাতের পানির ধারাকে এমন একটি বিশেষ কোণে আঘাত করে, যার ফলে পুরো পানির ধারাটিই সূর্যের উজ্জ্বল আলোয় জ্বলজ্বল করে ওঠে। আর দেখে মনে হয় যেন সেটি

By চ্যানেল আই অনলাইন on বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১২:২৬

বিপন্নপ্রায় গয়াল বা বনগরু ধরে অবৈধভাবে বিক্রি করছে একটি চক্র। উপঢৌকন হিসেবে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে এসব গরু। এর মাংস ব্যবহার হচ্ছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার স্বার্থে এ প্রাণীটিকে রক্ষার আহ্বান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এজন্য সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ দিচ্ছেন তারা। পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় একসময় ব্যাপক বিচরণ ছিল গয়াল বা বন গরুর। নানা কৌশলে একটি চক্র শক্তিশালী এ প্রাণীকে বশ করে অবৈধভাবে বিক্রি করায় এর সংখ্যা একেবারে কমে গেছে। পছন্দের খাবার- লবণ পানির টোপ দিয়ে পাহাড়ি বন থেকে এই গরু ধরে চক্রটি। এরপর পোষা গরুর মতো বেঁধে রেখে কয়েকমাস পালন করে বশে আনে। আলীকদমসহ পার্বত্য এলাকা থেকে কিনে এ গরুকে উপঢৌকন হিসেবে পাঠানো হচ্ছে ঢাকায়। বিভ

By মো. জাহিদুজ্জামান on বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:১৭

গোলাম মোস্তফা: মেহেরপুরের মহাম্মদপুর মরা নদী পরিযায়ী পাখির কলকাকলীতে এখনো মুখর। স্থানীয় পাখিপ্রেমীদের কারণে এখানে কোনো শিকারী আসতে পারে না। এমনকি পাখিদের কেউ বিরক্তও করে না। নিরাপদ আবাসস্থল পাওয়ায় প্রতি বছরই পাখি বাড়ছে। মেহেরপুরের গাংনীর এই মহাম্মদপুর মরানদী এখন ১শ’২৬ একরের জলাশয়। শীতের শুরুতেই এখানে পরিযায়ী পাখি আসে। এখনও পানিতে ভেসে আছে অসংখ্য পাখি, কেউ ব্যস্ত খুনসুটিতে। স্থানীয়রা জানান, শিকারীদের কারণে মাঝে কয়েক বছর পাখি আসা বন্ধ ছিল। পাখিপ্রেমীদের উদ্যোগে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে। নিরাপদ পরিবেশে পেয়ে আবার আসছে পরিযায়ীরা। প্রকৃতির অকৃত্রিম বন্ধু পাখির জন্য সব এলাকায় অভয়াশ্রম গড়ে তোলার আহ্বান জানান পাখিপ্রেমীরা। পাখি রক্ষায় সরকারিভাবেও নানা উদ্যোগ নেয়ার কথা ব

By চ্যানেল আই অনলাইন on বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:১২