গাইবান্ধা

দেশের উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত রয়েছে। তবে দক্ষিণ ও মধ্য-দক্ষিণাঞ্চলে পদ্মা নদী সংলগ্ন জেলাগুলোতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আরো দুই দিন সময় লাগবে বলে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে।দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর বলছে, এখন পর্যন্ত বন্যায় দেশের ৩১টি জেলায় ৫১ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। ‘কাবিটা’, ‘টিআর’ এবং ‘ইজিপিপি’ কর্মসূচির মাধ্যমে ক্ষতি কাটানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।পদ্মা সংলগ্ন জেলা মানিকগঞ্চ, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ী এবং শরীয়তপুরের বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল। তবে পদ্মায় পানি কমতে শুরু করছে। তবে, ধীরে হলেও ঢাকার চারপাশে ৫টি নদ-নদীতে পানি বাড়ছে। তারপরও দুই-তিন দিনের মধ্যে সামগ্রিক পরিস্থিতির উন্নতি আশা করছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীক

দেশের উত্তরাঞ্চলের কুড়িগ্রাম, সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও গাইবান্ধা রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে অবনতি হয়েছে। নদ নদীর পানি বেড়ে এবং বাঁধ ভেঙ্গে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।ফরিদপুর জামালপুর নেত্রকোনা এবং শেরপুরে এখনো পানিবন্দি লাখ লাখ মানুষ। টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পৌলী ব্রিজ এলাকায় রেললাইনের মাটি ধসে যাওয়ায় ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।টাঙ্গাইল: বন্যার কারণে টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পৌলী ব্রিজ এলাকায় রেললাইনের মাটি ধসে যাওয়ায় ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল রুটে সব ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। রাজধানীর কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে ওই রুটের টিকিট ফেরত দিচ্ছে রেল কর্তৃপক্ষ। র

দিনাজপুর ও নীলফামারীসহ কয়েকটি জায়গায় বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। পানি কমতে থাকায় বন্যা দুর্গতরা নিজের বাড়িতে ফিরছে। তবে নেত্রকোণা ও রংপুরে বন্যার পানি কমে যাওয়ার সাথে সাথে দেখা দিয়েছে তীব্র নদী ভাঙন।দিনাজপুর দিনাজপুরে বন্যার বন্যার পানি নেমে গেলেও এখনও জেলার ২১৮টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৪১ হাজার ৬’শ ৫০ জন মানুষ আশ্রয় নিয়ে আছে। তবে এলাকাগুলোতে বিশুদ্ধ পানির চরম সংকট দেখা দিয়েছে। প্রকোপ আকার ধারণ করেছে পেটের পীড়াসহ নানা রোগ।গাইবান্ধা গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র-যমুনা, ঘাঘট ও তিস্তার পানি কমতে থাকায় সুন্দরগঞ্জ, সাদুল্লাপুর, সাঘাটা ও সদর উপজেলা বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। তবে করতোয়া নদীর পানি বাড়া অব্যাহত থাকায় জেলার পলাশবাড়ী গোবিন্দগঞ্জ ও সাঘাটা উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অব

দেশের কয়েকটি অঞ্চলে বন্যার পানি সামান্য কমলেও সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির তেমন কোন পরিবর্তন হয়নি। যেসব অঞ্চলে পানি কমেছে সেখানে চলছে বিশুদ্ধ পানি আর খাবারের তীব্র সংকট। এরই মধ্যে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে এক শিশুর। কয়েক হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ হয়ে গেছে বন্যার কারণে।রংপুর: রংপুরের ৩০টি ইউনিয়নের প্রায় ৩ লাখ মানুষ এখন পানিবন্দী। কোথাও কোথাও ১০ থেকে ১৫ ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে বসতি এলাকা। মানুষ ঘর-বাড়ি ছেড়ে পুল-কালভার্টসহ উঁচুস্থানে আশ্রয় নিয়েছেন।গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র,ঘাঘট নদীর পানি কমতে শুরু করলেও করতোয়ার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এতে নতুন করে ১০ ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। বন্যার পানিতে বগুড়া-দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক তলিয়ে যাওয়ায় ভারি যানবাহন

দিনাজপুর ও গাইবান্ধায় বন্যার পানিতে ডুবে শিশুসহ আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া টানা বর্ষণ এবং উজান থেকে নেমে আসা ঢলে গাইবান্ধা ও দিনাজপুরে এখনও নদীর পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে।এর মধ্যে গাইবান্ধা জেলার ৬ উপজেলার ৪২টি ইউনিয়নের প্রায় ৩ লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। জেলার সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বেশিরভাগ এলাকাই পানির নীচে।এছাড়া সড়কের উপর দিয়ে পানি ওঠায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বন্যা কবলিত এ এলাকার মানুষ। এ কারণে নতুন করে জেলার ৩ ইউনিয়নের অন্তত ৩০ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বন্যার পানিতে ডুবে জেলায় এ পর্যন্ত দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।বন্যা পরিস্থিতি অবনতির ফলে ইতোমধ্যে গাইবান্ধা শহরের ডেভিট কোম্পানি পাড়া, মিয়াপাড়া, কোমরনই, ফুলছড়ির সিংড়িয়া, সাঘাটা-গাইবান্ধা স

By চ্যানেল আই অনলাইন on বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০১৭ ১১:৪২

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৭১ জনকে গ্রেফতার করেছে গাইবান্ধা জেলা পুলিশ। শনিবার মধ্যরাত থেকে রোববার ভোর পর্যন্ত জেলার ৭টি উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার

By চ্যানেল আই অনলাইন on রবিবার , ২৩ জুলাই ২০১৭ ১২:৩২

মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিতে আবারো চট্টগ্রাম বিভাগে পাহাড় ধসের আশঙ্কা কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এছাড়া দেশের ৪টি সমুদ্র বন্দরে এখনও ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত বলবৎ রয়েছে।তবে সারাদেশে বৃষ্টি এবং সমুদ্র বন্দরে এখনও ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত থাকলেও দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যেও নতুন করে বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হয়েছে ফেনীর কয়েকটি এলাকা। এছাড়া ত্রাণের অভাব আর নানা রোগ বালাইয়ে দুর্ভোগে রয়েছে বানভাসী মানুষ।এর আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে পাহাড় ধসের আশঙ্কা জানিয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের সতর্কতা জারি করার পরই চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের জঙ্গল সলিমপুরে পাহাড় ধসে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেই সঙ্গে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বি

ফারুক হোসেন,গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা জেলায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। গত ১২ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্র,তিস্তা ও ঘাঘট নদীর স্থিতিশীল রয়েছে। এদিকে বন্যার পানিতে ডুবে সদর উপজেলার বাটিকামারী চরের ১৮ মাসের শিশু সুমাইয়া এবং ফুলছড়ি উপজেলার কাবিলপুর গ্রামের দু বছরের শিশুর মৃত্যু হয়েছে।ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ফুলছড়ি পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৮ সে.মি. ও ঘাঘট নদীর পানি জেলা সদরের ডেভিট কোম্পানি পাড়া পয়েন্টে বিপদসীমার ৪৩ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।বন্যা কবলিত এসব এলাকার পানিবন্দী মানুষরা খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানি সংকটসহ নানা সমস্যায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারণ করেছে।জেলার ফুলছড়ি, সাঘাটা, সুন্দরগঞ্জ ও গাইবান্ধা সদর উপজেলার ২৯টি ইউ

By চ্যানেল আই অনলাইন on শুক্রবার, ১৪ জুলাই ২০১৭ ১২:২৪

টানা বৃষ্টিতে প্রধান নদীগুলোর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। এর ফলে বন্যা কবলিত এলাকায় খাদ্য সংকটের পাশাপাশি শিক্ষা কার্যক্রমও বন্ধ রয়েছে।কুড়িগ্রাম কুড়িগ্রামে বন্যার পানিতে ডুবে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। চিলমারী উপজেলার কাচকোলে ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের ৫০ মিটার বাঁধ ও রৌমারী উপজেলার যাদুর চরে কত্তিমারী বাজার রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে নতুন করে ৫০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।জেলার ৭ উপজেলার ৪২ ইউনিয়নের ৫শ’ গ্রামের ২ লক্ষাধিক মানুষ গত ৭দিন ধরে পানিবন্দী জীবন যাপন করছে। অনেক পরিবার বাড়ি-ঘর ছেড়ে উচুঁ জায়গায় আশ্রয় নিলেও এসব এলাকায় খাদ্য ও বিশুদ্ধ খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। ১শ’ ৫০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি উঠায় শিক্ষা কার্যক্

ফারুক হোসেন, গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চলে ‘ব্লক রেইড’ অভিযানে সাজাপ্রাপ্তসহ বিভিন্ন মামলার পলাতক ছয় আসামিকে অাটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।শনিবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে চতুর্থ দিনের মতো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৬০ সদস্য সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চরখোর্দ্দা ও বেলকাসহ বেশ কয়েকটি চরে অভিযান শুরু করে। রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কয়েক চর থেকে ছয়জন আসামিকে আটক করা হয়।আটকের বিষয়টি  নিশ্চিত করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) আসাদুজ্জামান রিংকু বলেন, অভিযান চলাকালে চরগুলোতে থেকে পলাতক আসামি ছয় জনকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত মামলার পলাতক আসামি রয়েছে একজন। বাকিরা নিয়মিত মামলার আসামি। আদালত তাদের নামে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করার পর থে

By চ্যানেল আই অনলাইন on রবিবার , ০৯ জুলাই ২০১৭ ০৯:৪৯