টাঙ্গাইল

দেশের উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত রয়েছে। তবে দক্ষিণ ও মধ্য-দক্ষিণাঞ্চলে পদ্মা নদী সংলগ্ন জেলাগুলোতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আরো দুই দিন সময় লাগবে বলে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে।দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর বলছে, এখন পর্যন্ত বন্যায় দেশের ৩১টি জেলায় ৫১ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। ‘কাবিটা’, ‘টিআর’ এবং ‘ইজিপিপি’ কর্মসূচির মাধ্যমে ক্ষতি কাটানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।পদ্মা সংলগ্ন জেলা মানিকগঞ্চ, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ী এবং শরীয়তপুরের বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল। তবে পদ্মায় পানি কমতে শুরু করছে। তবে, ধীরে হলেও ঢাকার চারপাশে ৫টি নদ-নদীতে পানি বাড়ছে। তারপরও দুই-তিন দিনের মধ্যে সামগ্রিক পরিস্থিতির উন্নতি আশা করছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীক

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে পৌংলী নদীর উপর পৌংলী রেলসেতু মেরামতের পর সোমবার বিকাল নাগাদ দেশের উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হতে পারে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।রোববার সকালে ৯৮ নম্বর সেতুটির এপ্রোচ অংশের মাটি সরে যাওয়ায় রাজধানী ঢাকার সাথে ওই দুই অঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। সেসময় স্থানীয়দের বুদ্ধিমত্তায় বড় ধরণের দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায় উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকাগামী নীল সাগর এক্সপ্রেস ট্রেন।ঘটনার পর থেকে রেল চলাচল স্বাভাবিক করতে কাজ করছে কর্তৃপক্ষ।  রেলকর্মীদের পাশাপাশি রোববার রাতে রেললাইন সংস্কার কাজে যোগ দেয় টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিসের একটি দল।রেলওয়ের পশ্চিমঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী রমজান আলী জানান, ক্ষতিগ্রস্ত রেলপথে কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। সব ঠিক

By সোহেল তালুকদার on সোমবার, ২১ অগাস্ট ২০১৭ ১০:৪৯

দেশের উত্তরাঞ্চলের কুড়িগ্রাম, সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও গাইবান্ধা রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে অবনতি হয়েছে। নদ নদীর পানি বেড়ে এবং বাঁধ ভেঙ্গে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।ফরিদপুর জামালপুর নেত্রকোনা এবং শেরপুরে এখনো পানিবন্দি লাখ লাখ মানুষ। টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পৌলী ব্রিজ এলাকায় রেললাইনের মাটি ধসে যাওয়ায় ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।টাঙ্গাইল: বন্যার কারণে টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পৌলী ব্রিজ এলাকায় রেললাইনের মাটি ধসে যাওয়ায় ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল রুটে সব ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। রাজধানীর কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে ওই রুটের টিকিট ফেরত দিচ্ছে রেল কর্তৃপক্ষ। র

টাঙ্গাইলে যোগীহাটি গ্রামে রান্না করার খিচুড়ির পাতিল পড়ে মাইনুল (৪) বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও একজন। ঝলছে যাওয়া শিশু দুই ভাই।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে অানেহলা ইউনিয়ন অাওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বোরহান বলেন, শোক দিবসে যোগীহাটি ওয়ার্ড মেম্বার লুৎফর রহমানের বাড়ি পাশে রাস্তার উপর গণভোজের আয়োজন করা হয়। এসময় দিনমজুর হাসমত আলীর দুই ছেলে মাইনুল ও নাজমুল সেখানে খিচুড়ি খেতে যায়।খিচুড়ি রান্নাবস্থায় চুলার পাশে অন্য শিশুদের সঙ্গে মাইনুলকে খেলতে থাকে এক পর্যায়ে কোন এক শিশুর ধাক্কা লেগে নাজমুলের কাদে থেকে মাইনুল রন্ধনরত খিচুড়ির পাতিল পড়ে যায়। তাকে তুলতে গিয়ে নাজমুলও খিচুড়ির পাতিল পড়ে গিয়ে মারাত্মক ঝলসে যায়।তাৎক্ষনিক এলাকাবাসী শিশু দু’জনকে উদ্ধার করে ভূঞাপুর স্বাস্থ

By সোহেল তালুকদার on মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৭ ২০:৩৪

টাঙ্গাইলের কালিহাতি উপজেলার দেউপুর এলাকায় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে হয়ে বাবা ছেলের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন উপজেলার দেউপুর গ্রামের আব্দুল করিম ও তার ছেলে আবু দারদা।স্বজনরা

By সোহেল তালুকদার on মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৭ ১৬:৫৩

টাঙ্গাইলে ২০০৫ সালের চাঞ্চল্যকর ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে ১৪ জেএমবি সদস্যকে ২০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক জরিমানাসহ অনাদায়ে এক বছরের অতিরিক্ত সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।মঙ্গলবার দুপুরে টাঙ্গাইলের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া এ রায় দেন।মামলা সূত্রে জানা যায়, বিগত ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারাদেশের মতো টাঙ্গাইল কোর্ট চত্বর, শহীদ জগলু রোড ও বেবিস্ট্যান্ড এলাকায় জেএমবি’র সদস্যরা আতংক সৃষ্টির জন্য একযোগে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এ ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা হয়। মামলায় ১৭জন আসামির মধ্যে ৩ জন মারা যায়। দণ্ডপ্রাপ্ত ১৪ জনের মধ্যে ১০জন আসামি টাঙ্গাইল জেলহাজতে

By সোহেল তালুকদার on মঙ্গলবার, ০৮ অগাস্ট ২০১৭ ১৭:১১

টাঙ্গাইলের সখীপুরে প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার কথা বলে পরিত্যক্ত বাড়িতে ছয় মাস ১৭ দিন আটকে রেখে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণকারী দূর সম্পর্কের চাচা বাদলকে অবশেষে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।শুক্রবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুর এলাকা থেকে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকছুদুল আলম।এ বিষয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) অশোক কুমার সিংহ বলেন, সন্ধ্যার দিকে ডিবি পুলিশের একটি টিম বাদলকে গ্রেফতার করেছে। মির্জাপুর থেকে তাকে টাঙ্গাইলের ডিবি কার্যালয়ে আনা হচ্ছে। এ ব্যাপারে আগামীকাল শনিবার ১০ দিকে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তথ্য জানাবেন।অপর

By সোহেল তালুকদার on শুক্রবার, ০৪ অগাস্ট ২০১৭ ২১:২৫

টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার হাতিবান্ধা এলাকার এক কলেজ ছাত্রীকে পরিত্যক্ত একটি বাড়িতে ৬ মাস ১৭দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে দূর সম্পর্কের চাচা বাদল মিয়ার বিরুদ্ধে ওই ছাত্রীর ভাই  বাদী হয়ে সখিপুর থানায় মামলা করেছে।ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর ভাই বলেন, ধর্ষক বাদল তাদের দূর সম্পর্কের চাচা। তিনি স্থানীয় ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের’ সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ায় প্রভাব বিস্তার করে রেখেছিলো।মামলা দায়ের হলেও এখন পর্যন্ত ধর্ষককে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।কলেজ ছাত্রী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এক ছেলের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। আমি ওই ছেলেকে বিয়ে করতে চাচা বাদল মিয়ার সাহায্য চাই। তার ক্ষমতাবলে ওই ছেলের সঙ্গে আমার বিয়ে করিয়ে দিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। পরে গত ১১ জানুয়ারি প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ন

By সোহেল তালুকদার on বৃহস্পতিবার, ০৩ অগাস্ট ২০১৭ ০০:৪৯

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ২০১৫ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশের দুই উপ-পরিদর্শক ও দুই কনস্টেবলকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। এছাড়াও আরো চারজনের ইনক্রিমেন্ট স্থগিত করা হয়েছে।মঙ্গলবার বিভাগীয় মামলায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই চাকরিচ্যুতির আদেশ দেয়া হয়।চাকরিচ্যুতরা হলেন ঘাটাইল থানার সাবেক উপ-পরিদশর্ক বর্তমানে টাঙ্গাইলের বাসাইল থানায় কর্মরত মনসুর আহমেদ ও কালিহাতী থানার উপ-পরিদর্শক বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলায় কর্মরত সলেম উদ্দিন, বর্তমানে রাজবাড়ি জেলায় কর্মরত কনস্টেবল জিয়াউল হক ও আমিনুল ইসলাম।এছাড়াও এসআই ওমর ফারুকের (বর্তমানে নাগরপুর থানায় কর্মরত) পাঁচ বছরের জন্য, এসআই আবুল বাশারকে (বর্তমানে নেত্রকোনা) তিন বছরের জন্য এবং কনস্টেবল ম

By সোহেল তালুকদার on মঙ্গলবার, ০১ অগাস্ট ২০১৭ ২০:৩৫

অপহরণের দেড়মাস পর স্বেচ্ছায় ফিরে এলেন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর থেকে অপহৃত শমশের ফকির নামের এক ফার্নিচার ব্যবসায়ী। শুক্রবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে তিনি স্বেচ্ছায় ভূঞাপুর থানায় এসে উপস্থিত হন।এর আগে ১৪ জুন জেলার ভূঞাপুরের ফসলান্দি এলাকার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে তাকেসহ আরো দুইজনকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠে।ফিরে আসা শমশের ফকির জানান, ওইদিন একটি সাদা গাড়ীতে আমাকে তুলে নিয়ে চোখ বেঁধে ফেলে। পরে তারা আমাকে গাড়ীতে করে অনেক দূর পর্যন্ত নিয়ে যায়। এসময় চোখ বাঁধা অবস্থায় একটি রুমে আটকে রেখে রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করে। তিনি জানান তার কোন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা ও থানায় মামলা নেই। পরে সাভারের আশুলিয়ায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।“তাদের তুলে নেয়ার ঘটনায় আম

By সোহেল তালুকদার on শনিবার, ২৯ জুলাই ২০১৭ ০৯:১৯